ঢাকা , শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ৬ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সিদ্ধিরগঞ্জে নিজ বাসায় গৃহবধুকে হাত-পা বেঁধে ধর্ষণ, ধর্ষক গ্রেপ্তার

নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে নিজ বাসায় সাবলেট ভাড়াটিয়া কর্তৃক গৃহবধৃ ধর্ষণের ঘটনায় মামলা হওয়ার ৪৮ ঘন্টার মধ্যে অভিযুক্ত ধর্ষককে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তার নাম হৃদয় প্রধান (৩০)।

 

গ্রেপ্তারকৃত হৃদয় প্রধান চাঁদপুর জেলার মতলব উত্তর থানার কৃষ্ণপুর গ্রামের মৃত ওয়াহেদ প্রধানের ছেলে। মঙ্গলবার দিবাগত রাতে রাজধানি ঢাকার শ্যামপুর থানা এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব-১১।

 

র‌্যাব জানায়, হৃদয় প্রধান (৩০) এবং ভিকটিম (২৫) সিদ্ধিরগঞ্জের পাইনাদি কেন্দ্রিয় জামে মসজিদের পিছনে মমিন মিয়ার বাড়ির ২য় তলার ফ্ল্যাটে সাবলেট হিসেবে স্ব-পরিবারে বসবাস করত।

 

গত ২১ ডিসেম্বর দুপুরে হৃদয় প্রধান ভিকটিমকে বাসায় একা পেয়ে ভিকটিমের ব্যবহৃত উড়না দিয়ে হাত-পা বেঁধে জোরপূর্বক ভিকটিমের ইচ্ছার বিরুদ্ধে ধর্ষণ করে। পরে ভিকটিমকে বিভিন্ন ধরনের ভয়-ভীতি প্রদর্শণ করে কৌশলে আত্মগোপন করে।

এঘটনায় ভুক্তভোগী ওই গৃহবধু নিজে বাদী হয়ে ২৫ ডিসেম্বর সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন, যার মামলা নং-৪৬।

মামলার সূত্রধরে র‌্যাব-১১ এর একটি চৌকস গোয়েন্দা দল হৃদয় প্রধানকে আইনের আওতায় নিয়ে আসার জন্য গোয়েন্দা অনুসন্ধান শুরু করে গ্রেপ্তার করে। গ্রেপ্তারের পর হৃদয় প্রধান ধর্ষণের সাথে সংশ্লিষ্টতার কথা স্বীকার করে।

র‌্যাব আরও জানায়, পরবর্তী আইনানুগ কার্যক্রমের জন্য সিদ্ধিরগঞ্জ থানার অত্র মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তার নিকট হস্তান্তর করা হয়েছে।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

কামাল হোসাইন

হ্যালো আমি কামাল হোসাইন, আমি গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করছি। ২০১৭ সাল থেকে এই পত্রিকার সাথে কাজ করছি। এভাবে এখানে আপনার প্রতিনিধিদের সম্পর্কে কিছু লিখতে পারবেন।

সিদ্ধিরগঞ্জে নিজ বাসায় গৃহবধুকে হাত-পা বেঁধে ধর্ষণ, ধর্ষক গ্রেপ্তার

আপডেট সময় ০৪:৪৬:০৬ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৯ ডিসেম্বর ২০২২

নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে নিজ বাসায় সাবলেট ভাড়াটিয়া কর্তৃক গৃহবধৃ ধর্ষণের ঘটনায় মামলা হওয়ার ৪৮ ঘন্টার মধ্যে অভিযুক্ত ধর্ষককে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তার নাম হৃদয় প্রধান (৩০)।

 

গ্রেপ্তারকৃত হৃদয় প্রধান চাঁদপুর জেলার মতলব উত্তর থানার কৃষ্ণপুর গ্রামের মৃত ওয়াহেদ প্রধানের ছেলে। মঙ্গলবার দিবাগত রাতে রাজধানি ঢাকার শ্যামপুর থানা এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব-১১।

 

র‌্যাব জানায়, হৃদয় প্রধান (৩০) এবং ভিকটিম (২৫) সিদ্ধিরগঞ্জের পাইনাদি কেন্দ্রিয় জামে মসজিদের পিছনে মমিন মিয়ার বাড়ির ২য় তলার ফ্ল্যাটে সাবলেট হিসেবে স্ব-পরিবারে বসবাস করত।

 

গত ২১ ডিসেম্বর দুপুরে হৃদয় প্রধান ভিকটিমকে বাসায় একা পেয়ে ভিকটিমের ব্যবহৃত উড়না দিয়ে হাত-পা বেঁধে জোরপূর্বক ভিকটিমের ইচ্ছার বিরুদ্ধে ধর্ষণ করে। পরে ভিকটিমকে বিভিন্ন ধরনের ভয়-ভীতি প্রদর্শণ করে কৌশলে আত্মগোপন করে।

এঘটনায় ভুক্তভোগী ওই গৃহবধু নিজে বাদী হয়ে ২৫ ডিসেম্বর সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন, যার মামলা নং-৪৬।

মামলার সূত্রধরে র‌্যাব-১১ এর একটি চৌকস গোয়েন্দা দল হৃদয় প্রধানকে আইনের আওতায় নিয়ে আসার জন্য গোয়েন্দা অনুসন্ধান শুরু করে গ্রেপ্তার করে। গ্রেপ্তারের পর হৃদয় প্রধান ধর্ষণের সাথে সংশ্লিষ্টতার কথা স্বীকার করে।

র‌্যাব আরও জানায়, পরবর্তী আইনানুগ কার্যক্রমের জন্য সিদ্ধিরগঞ্জ থানার অত্র মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তার নিকট হস্তান্তর করা হয়েছে।