ঢাকা , মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ৩ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মুন্সিগঞ্জে প্রাইভেটকার কেড়ে নিল যুবকের প্রাণ

মুন্সিগঞ্জের লৌহজংয়ে প্রাইভেটকারের সাথে মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষে ইব্রাহিম খাঁন (২৫) নামের এক যুবক নিহত হয়েছেন।

নিহত ইব্রাহিম খাঁন উপজেলার কুমারভোগ ইউনিয়নের খড়িয়া গ্রামের কাসেম খানের ছেলে।

আজ শুক্রবার সাড়ে ১১টার দিকে উপজেলার মাওয়া-শিমুলিয়া সড়কের প্রজেক্ট হিলসা সংলগ্ন শিমুলিয়া মোড়ে এই দুর্ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও স্থানীয়রা জানান, মাওয়া থেকে শিমুলিয়া ঘাটে যাওয়ার পথে দ্রুত গতির একটি প্রাইভেটকার কুমারভোগ থেকে ঘাটমুখী একটি মোটরসাইকেলকে চাপা দেয়।

এসময় প্রাইভেটকারের চাকার সাথে আটকে পড়া মোটরসাইকেল আরোহীকে টেনে হিচরে দূরে নিয়ে যায় চালক।

এসময় স্থানীয়দের বাঁধার মুখে প্রাইভেটকার চালকসহ বেশ কয়েকজন আহত মোটরসাইকেল চালক ইব্রাহিমকে গুরুতর আহত অবস্থায় শ্রীনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে ফেলে রেখে পালিয়ে যায়। পরে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

শ্রীনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক ডাক্তার আকলিমা আক্তার জানান, গুরুতর আহত অবস্থায় নিহত মোটরসাইকেল চালক ইব্রাহিমকে বেশ কয়েকজন মিলে হাসপাতালের জরুরী বিভাগে ফেলে রেখে চলে যায়। এসময় চিকিৎসকদের পর্যবেক্ষণ শেষে মৃত ঘোষণা করা হয় তাকে। পরে পুলিশ এসে নিহতের মরদেহ সুরতহাল শেষে স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করে।

লৌহজং থানার ওসি মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ আল তায়াবীর জানান, দুর্ঘটনার পর থেকে প্রাইভেটকার চালক পলাতক রয়েছে। নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে লিখিত অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

কামাল হোসাইন

হ্যালো আমি কামাল হোসাইন, আমি গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করছি। ২০১৭ সাল থেকে এই পত্রিকার সাথে কাজ করছি। এভাবে এখানে আপনার প্রতিনিধিদের সম্পর্কে কিছু লিখতে পারবেন।

মুন্সিগঞ্জে প্রাইভেটকার কেড়ে নিল যুবকের প্রাণ

আপডেট সময় ০৩:৫৫:২৮ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৪ জানুয়ারী ২০২৩

মুন্সিগঞ্জের লৌহজংয়ে প্রাইভেটকারের সাথে মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষে ইব্রাহিম খাঁন (২৫) নামের এক যুবক নিহত হয়েছেন।

নিহত ইব্রাহিম খাঁন উপজেলার কুমারভোগ ইউনিয়নের খড়িয়া গ্রামের কাসেম খানের ছেলে।

আজ শুক্রবার সাড়ে ১১টার দিকে উপজেলার মাওয়া-শিমুলিয়া সড়কের প্রজেক্ট হিলসা সংলগ্ন শিমুলিয়া মোড়ে এই দুর্ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও স্থানীয়রা জানান, মাওয়া থেকে শিমুলিয়া ঘাটে যাওয়ার পথে দ্রুত গতির একটি প্রাইভেটকার কুমারভোগ থেকে ঘাটমুখী একটি মোটরসাইকেলকে চাপা দেয়।

এসময় প্রাইভেটকারের চাকার সাথে আটকে পড়া মোটরসাইকেল আরোহীকে টেনে হিচরে দূরে নিয়ে যায় চালক।

এসময় স্থানীয়দের বাঁধার মুখে প্রাইভেটকার চালকসহ বেশ কয়েকজন আহত মোটরসাইকেল চালক ইব্রাহিমকে গুরুতর আহত অবস্থায় শ্রীনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে ফেলে রেখে পালিয়ে যায়। পরে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

শ্রীনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক ডাক্তার আকলিমা আক্তার জানান, গুরুতর আহত অবস্থায় নিহত মোটরসাইকেল চালক ইব্রাহিমকে বেশ কয়েকজন মিলে হাসপাতালের জরুরী বিভাগে ফেলে রেখে চলে যায়। এসময় চিকিৎসকদের পর্যবেক্ষণ শেষে মৃত ঘোষণা করা হয় তাকে। পরে পুলিশ এসে নিহতের মরদেহ সুরতহাল শেষে স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করে।

লৌহজং থানার ওসি মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ আল তায়াবীর জানান, দুর্ঘটনার পর থেকে প্রাইভেটকার চালক পলাতক রয়েছে। নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে লিখিত অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।