ঢাকা , শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ৬ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

১৭৮ ঘণ্টা পর জীবিত নারীকে উদ্ধার

ভূমিকম্পে বিধ্বস্ত তুরস্কের হাতায় প্রদেশে ১৭৮ ঘণ্টা পর ধ্বংসস্তূপের নিচ থেকে এক জীবিত নারীকে উদ্ধার করা হয়েছে। এক সপ্তাহ আগে গত সোমবার ৭ দশমিক ৮ মাত্রার এই শক্তিশালী ভূমিকম্প তুরস্ক ও সিরিয়ার সীমান্তবর্তী অঞ্চলে আঘাত হেনেছিল। মার্কিন সংবাদমাধম সিএনএন এ খবর জানিয়েছে।

খবরে বলা হয়েছে, ইস্তাম্বুল পৌরসভার পক্ষ থেকে প্রকাশিত ফুটেজে দেখা গেছে, নাইদি উমায় নামের উদ্ধারকৃত নারীকে ধ্বংসস্তূপের নিচ থেকে স্ট্রেচারে করে বের করা হচ্ছে।

উদ্ধারকারী দলে ছিলেন ইস্তাম্বুলের দমকল বিভাগ ও তুর্কি খনি শ্রমিকরা। ভূমিকম্পের পর অনুসন্ধান ও উদ্ধার অভিযানে যুক্ত লাখো কর্মীর মধ্যে এরাও রিয়েছেন।

সিএনএন বলছে, সোমবারও ধ্বংসস্তূপের নিচে আটকেপড়াদের উদ্ধারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে। যদিও ত্রাণ সংস্থা ও কর্তৃপক্ষ সতর্ক করে বলেছে, আটকেপড়াদের জীবিত উদ্ধারের সম্ভাবনা ক্রমেই কমে যাচ্ছে।

এদিকে, তুরস্ক ও সিরিয়ায় ভূমিকম্পে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৩৬ হাজার ২১৭। এর মধ্যে তুরস্কে মৃতের সংখ্যা ৩১ হাজার ৬৪৩ এবং সিরিয়ায় সরকার ও বিদ্রোহী নিয়ন্ত্রিত অঞ্চলে মৃতের সংখ্যা ৪ হাজার ৫৭৪।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

কামাল হোসাইন

হ্যালো আমি কামাল হোসাইন, আমি গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করছি। ২০১৭ সাল থেকে এই পত্রিকার সাথে কাজ করছি। এভাবে এখানে আপনার প্রতিনিধিদের সম্পর্কে কিছু লিখতে পারবেন।

১৭৮ ঘণ্টা পর জীবিত নারীকে উদ্ধার

আপডেট সময় ০৭:০৭:১৮ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৩

ভূমিকম্পে বিধ্বস্ত তুরস্কের হাতায় প্রদেশে ১৭৮ ঘণ্টা পর ধ্বংসস্তূপের নিচ থেকে এক জীবিত নারীকে উদ্ধার করা হয়েছে। এক সপ্তাহ আগে গত সোমবার ৭ দশমিক ৮ মাত্রার এই শক্তিশালী ভূমিকম্প তুরস্ক ও সিরিয়ার সীমান্তবর্তী অঞ্চলে আঘাত হেনেছিল। মার্কিন সংবাদমাধম সিএনএন এ খবর জানিয়েছে।

খবরে বলা হয়েছে, ইস্তাম্বুল পৌরসভার পক্ষ থেকে প্রকাশিত ফুটেজে দেখা গেছে, নাইদি উমায় নামের উদ্ধারকৃত নারীকে ধ্বংসস্তূপের নিচ থেকে স্ট্রেচারে করে বের করা হচ্ছে।

উদ্ধারকারী দলে ছিলেন ইস্তাম্বুলের দমকল বিভাগ ও তুর্কি খনি শ্রমিকরা। ভূমিকম্পের পর অনুসন্ধান ও উদ্ধার অভিযানে যুক্ত লাখো কর্মীর মধ্যে এরাও রিয়েছেন।

সিএনএন বলছে, সোমবারও ধ্বংসস্তূপের নিচে আটকেপড়াদের উদ্ধারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে। যদিও ত্রাণ সংস্থা ও কর্তৃপক্ষ সতর্ক করে বলেছে, আটকেপড়াদের জীবিত উদ্ধারের সম্ভাবনা ক্রমেই কমে যাচ্ছে।

এদিকে, তুরস্ক ও সিরিয়ায় ভূমিকম্পে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৩৬ হাজার ২১৭। এর মধ্যে তুরস্কে মৃতের সংখ্যা ৩১ হাজার ৬৪৩ এবং সিরিয়ায় সরকার ও বিদ্রোহী নিয়ন্ত্রিত অঞ্চলে মৃতের সংখ্যা ৪ হাজার ৫৭৪।