ঢাকা , শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ৬ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

হাতকড়া-ডান্ডাবেড়ি নিয়ে মায়ের জানাজা পড়ানো বিএনপি নেতা জামিনে মুক্ত

জামিনে মুক্তি পেয়েছেন হাতকড়া ও ডান্ডাবেড়ি নিয়ে মায়ের জানাজা পড়া গাজীপুরের বিএনপি নেতা আলী আজম। বুধবার (১১ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় কারামুক্ত হন তিনি। আলী আজম গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলার বোয়ালী গ্রামের উম্মত আলীর ছেলে ও উপজেলার বোয়ালী ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি।

রাজনৈতিক মামলায় এক মাস ৯ দিন কারাভোগের পর তিনি মুক্তি পান। আলী আজমের আইনজীবী আনিসুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

আনিসুর রহমান বলেন, ‘কালিয়াকৈরের চন্দ্রা এলাকায় আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে হামলা ও ভাঙচুরের ঘটনায় করা একটি মামলায় গত ২ ডিসেম্বর আলী আজমকে গ্রেফতার করে পুলিশ। কারাগারে থাকা অবস্থায় গত ১৮ ডিসেম্বর তার মা সাহেরা বেগম বার্ধক্যজনিত কারণে মারা যান। মাকে শেষবারের মতো দেখতে এবং নিজে মায়ের জানাজা পড়ানোর জন্য গত ১৯ ডিসেম্বর জেলা প্রশাসক বরাবর আইনজীবীর মাধ্যমে প্যারোলে মুক্তির আবেদন করেন। ২০ ডিসেম্বর তিন ঘণ্টার জন্য প্যারোলে মুক্তি পান। প্যারোলে মুক্তি পেয়ে সকাল ১০টায় নিজ বাড়িতে উপস্থিত হয়ে বেলা ১১টায় হাতকড়া ও ডান্ডাবেড়ি পরা অবস্থায় মায়ের জানাজা পড়ান আলী আজম। মায়ের দাফন শেষে আবার কারাগারে নিয়ে যাওয়া হয় তাকে। জানাজা থেকে দাফন পর্যন্ত পুরো সময় হাতকড়া ও ডান্ডাবেড়ি পরা অবস্থায় ছিলেন।’

তিনি আরও বলেন, ‘হাতকড়া ও ডান্ডাবেড়ি নিয়ে মায়ের জানাজা পড়ানোর সংবাদ গণমাধ্যমে প্রকাশিত হলে আলোচনা-সমালোচনার সৃষ্টি হয়। এ অবস্থায় গাজীপুর জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত-১-এর বিচারক নাজমুন নাহারের কাছে জামিনের আবেদন করা হয়। পরে বিস্তারিত জেনে তার জামিন মঞ্জুর করেন বিচারক। জামিনের কাগজ কারাগারে পাঠানো হলে তা যাচাই-বাছাই করে সন্ধ্যায় তাকে মুক্তি দেওয়া হয়।’

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

কামাল হোসাইন

হ্যালো আমি কামাল হোসাইন, আমি গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করছি। ২০১৭ সাল থেকে এই পত্রিকার সাথে কাজ করছি। এভাবে এখানে আপনার প্রতিনিধিদের সম্পর্কে কিছু লিখতে পারবেন।

হাতকড়া-ডান্ডাবেড়ি নিয়ে মায়ের জানাজা পড়ানো বিএনপি নেতা জামিনে মুক্ত

আপডেট সময় ০৩:৩৮:০৪ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১২ জানুয়ারী ২০২৩

জামিনে মুক্তি পেয়েছেন হাতকড়া ও ডান্ডাবেড়ি নিয়ে মায়ের জানাজা পড়া গাজীপুরের বিএনপি নেতা আলী আজম। বুধবার (১১ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় কারামুক্ত হন তিনি। আলী আজম গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলার বোয়ালী গ্রামের উম্মত আলীর ছেলে ও উপজেলার বোয়ালী ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি।

রাজনৈতিক মামলায় এক মাস ৯ দিন কারাভোগের পর তিনি মুক্তি পান। আলী আজমের আইনজীবী আনিসুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

আনিসুর রহমান বলেন, ‘কালিয়াকৈরের চন্দ্রা এলাকায় আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে হামলা ও ভাঙচুরের ঘটনায় করা একটি মামলায় গত ২ ডিসেম্বর আলী আজমকে গ্রেফতার করে পুলিশ। কারাগারে থাকা অবস্থায় গত ১৮ ডিসেম্বর তার মা সাহেরা বেগম বার্ধক্যজনিত কারণে মারা যান। মাকে শেষবারের মতো দেখতে এবং নিজে মায়ের জানাজা পড়ানোর জন্য গত ১৯ ডিসেম্বর জেলা প্রশাসক বরাবর আইনজীবীর মাধ্যমে প্যারোলে মুক্তির আবেদন করেন। ২০ ডিসেম্বর তিন ঘণ্টার জন্য প্যারোলে মুক্তি পান। প্যারোলে মুক্তি পেয়ে সকাল ১০টায় নিজ বাড়িতে উপস্থিত হয়ে বেলা ১১টায় হাতকড়া ও ডান্ডাবেড়ি পরা অবস্থায় মায়ের জানাজা পড়ান আলী আজম। মায়ের দাফন শেষে আবার কারাগারে নিয়ে যাওয়া হয় তাকে। জানাজা থেকে দাফন পর্যন্ত পুরো সময় হাতকড়া ও ডান্ডাবেড়ি পরা অবস্থায় ছিলেন।’

তিনি আরও বলেন, ‘হাতকড়া ও ডান্ডাবেড়ি নিয়ে মায়ের জানাজা পড়ানোর সংবাদ গণমাধ্যমে প্রকাশিত হলে আলোচনা-সমালোচনার সৃষ্টি হয়। এ অবস্থায় গাজীপুর জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত-১-এর বিচারক নাজমুন নাহারের কাছে জামিনের আবেদন করা হয়। পরে বিস্তারিত জেনে তার জামিন মঞ্জুর করেন বিচারক। জামিনের কাগজ কারাগারে পাঠানো হলে তা যাচাই-বাছাই করে সন্ধ্যায় তাকে মুক্তি দেওয়া হয়।’