ঢাকা , শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সুপ্রিম কোর্টে উদ্ভূত পরিস্থিতিতে প্রধান বিচারপতির উদ্যোগ চান মির্জা ফখরুল

সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী সমিতির ‘একতরফা’ নির্বাচন হয়েছে অভিযোগ করে উদ্ভূত পরিস্থিতিতে প্রধান বিচারপতির উদ্যোগ চান মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, ‘রাজনৈতিকভাবে আওয়ামী লীগ আজ এমন একটি দেউলিয়া দলে পরিণত হয়েছে, আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে পুলিশ ও বহিরাগতদের ব্যবহার করে নিজেদের প্রার্থীদের বিজয়ী ঘোষণা করতে হয়- এটা বড় লজ্জার বিষয়।’

শুক্রবার (১৭ মার্চ) নয়া পল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে বিএনপি মহাসচিব প্রধান বিচারপতির প্রতি এই আহ্বান জানান।

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘আমার প্রত্যাশা, প্রধান বিচারপতি রাষ্ট্রের সর্বোচ্চ বিচারালয় সুপ্রিম কোর্টের পবিত্রতা রক্ষার জন্য এগিয়ে আসবেন এবং প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন।’ একই সঙ্গে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির নির্বাচনের ফলাফল বাতিল ও নতুন নির্বাচনেরও দাবি জানান বিএনপি মহাসচিব।

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘আইনগতভাবে কোনও নির্বাচন না হলেও নাটক সাজিয়ে একতরফা ক্ষমতাসীন দলের প্রার্থীদের অবৈধভাবে নির্বাচিত ঘোষণা করা হয়েছে। আমি অবিলম্বে সুপ্রিম কোর্টে যে তথাকথিত নির্বাচন, সমস্ত বাতিল করে দিয়ে, আবার নতুন করে সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠানের দাবি জানাচ্ছি।’

সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে বঙ্গবন্ধু আওয়ামী আইনজীবী পরিষদ সমর্থিত সভাপতি পদে মো. মোমতাজ উদ্দিন এবং সম্পাদক হিসেবে একই প্যানেলের আব্দুর নূর দুলালসহ পূর্ণ প্যানেল নির্বাচিত হয়। বৃহস্পতিবার গভীর রাতে নির্বাচন পরিচালনা উপকমিটির আহ্বায়ক মো. মনিরুজ্জামান ভোটের ফলাফল ঘোষণা করেন।

ব্যাপক হাঙ্গামা, হট্টগোল, পুলিশের পিটুনির মধ্যে বুধবার ও বৃহস্পতিবার ভোটগ্রহণ হয়। এদিকে বুধবার ভোটগ্রহণের প্রথম দিন ব্যালট পেপার চুরি ও ছিঁড়ে ফেলা এবং নির্বাচন সংক্রান্ত আনুষঙ্গিক জিনিসপত্র বাইরে ফেলে দেওয়ার অভিযোগে বিএনপির নীল প্যানেলের সভাপতি প্রার্থী মাহবুব উদ্দিন খোকন ও সম্পাদক প্রার্থী রুহুল কুদ্দস কাজলসহ ৩৫০ জন আইনজীবীর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী ও সমিতির নির্বাচন পরিচালনা কমিটির আহ্বায়ক মো. মনিরুজ্জামান।

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘আমরা মনে করি, সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির নির্বাচনকে কেন্দ্র করে ভোট ডাকাতিতে সিদ্ধহস্ত আওয়ামী লীগের মুখোশ আরেকবার উন্মোচিত হলো। দেশের নির্বাচনি ব্যবস্থার কফিনে শেষ পেরেকটি ঠোকা হয়েছে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির ভোটে।’

সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির সহ-দফতর সম্পাদক তাইফুল ইসলাম টিপু ও বিএনপি চেয়ারপারসনের প্রেস উইং সদস্য শামসুদ্দিন দিদার উপস্থিত ছিলেন।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

কামাল হোসাইন

হ্যালো আমি কামাল হোসাইন, আমি গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করছি। ২০১৭ সাল থেকে এই পত্রিকার সাথে কাজ করছি। এভাবে এখানে আপনার প্রতিনিধিদের সম্পর্কে কিছু লিখতে পারবেন।
জনপ্রিয় সংবাদ

সুপ্রিম কোর্টে উদ্ভূত পরিস্থিতিতে প্রধান বিচারপতির উদ্যোগ চান মির্জা ফখরুল

আপডেট সময় ০৪:১৫:৪০ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৮ মার্চ ২০২৩

সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী সমিতির ‘একতরফা’ নির্বাচন হয়েছে অভিযোগ করে উদ্ভূত পরিস্থিতিতে প্রধান বিচারপতির উদ্যোগ চান মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, ‘রাজনৈতিকভাবে আওয়ামী লীগ আজ এমন একটি দেউলিয়া দলে পরিণত হয়েছে, আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে পুলিশ ও বহিরাগতদের ব্যবহার করে নিজেদের প্রার্থীদের বিজয়ী ঘোষণা করতে হয়- এটা বড় লজ্জার বিষয়।’

শুক্রবার (১৭ মার্চ) নয়া পল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে বিএনপি মহাসচিব প্রধান বিচারপতির প্রতি এই আহ্বান জানান।

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘আমার প্রত্যাশা, প্রধান বিচারপতি রাষ্ট্রের সর্বোচ্চ বিচারালয় সুপ্রিম কোর্টের পবিত্রতা রক্ষার জন্য এগিয়ে আসবেন এবং প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন।’ একই সঙ্গে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির নির্বাচনের ফলাফল বাতিল ও নতুন নির্বাচনেরও দাবি জানান বিএনপি মহাসচিব।

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘আইনগতভাবে কোনও নির্বাচন না হলেও নাটক সাজিয়ে একতরফা ক্ষমতাসীন দলের প্রার্থীদের অবৈধভাবে নির্বাচিত ঘোষণা করা হয়েছে। আমি অবিলম্বে সুপ্রিম কোর্টে যে তথাকথিত নির্বাচন, সমস্ত বাতিল করে দিয়ে, আবার নতুন করে সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠানের দাবি জানাচ্ছি।’

সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে বঙ্গবন্ধু আওয়ামী আইনজীবী পরিষদ সমর্থিত সভাপতি পদে মো. মোমতাজ উদ্দিন এবং সম্পাদক হিসেবে একই প্যানেলের আব্দুর নূর দুলালসহ পূর্ণ প্যানেল নির্বাচিত হয়। বৃহস্পতিবার গভীর রাতে নির্বাচন পরিচালনা উপকমিটির আহ্বায়ক মো. মনিরুজ্জামান ভোটের ফলাফল ঘোষণা করেন।

ব্যাপক হাঙ্গামা, হট্টগোল, পুলিশের পিটুনির মধ্যে বুধবার ও বৃহস্পতিবার ভোটগ্রহণ হয়। এদিকে বুধবার ভোটগ্রহণের প্রথম দিন ব্যালট পেপার চুরি ও ছিঁড়ে ফেলা এবং নির্বাচন সংক্রান্ত আনুষঙ্গিক জিনিসপত্র বাইরে ফেলে দেওয়ার অভিযোগে বিএনপির নীল প্যানেলের সভাপতি প্রার্থী মাহবুব উদ্দিন খোকন ও সম্পাদক প্রার্থী রুহুল কুদ্দস কাজলসহ ৩৫০ জন আইনজীবীর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী ও সমিতির নির্বাচন পরিচালনা কমিটির আহ্বায়ক মো. মনিরুজ্জামান।

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘আমরা মনে করি, সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির নির্বাচনকে কেন্দ্র করে ভোট ডাকাতিতে সিদ্ধহস্ত আওয়ামী লীগের মুখোশ আরেকবার উন্মোচিত হলো। দেশের নির্বাচনি ব্যবস্থার কফিনে শেষ পেরেকটি ঠোকা হয়েছে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির ভোটে।’

সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির সহ-দফতর সম্পাদক তাইফুল ইসলাম টিপু ও বিএনপি চেয়ারপারসনের প্রেস উইং সদস্য শামসুদ্দিন দিদার উপস্থিত ছিলেন।