ঢাকা , মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
Logo সরকার তারেককে ফিরিয়ে এনে অবশ্যই আদালতের রায় কার্যকর করবে : প্রধানমন্ত্রী Logo ফিলিস্তিনকে রাষ্ট্রের স্বীকৃতির প্রভাব কী হতে পারে? Logo মায়ের ওড়না শাড়ি বানিয়ে পরলেন জেফার, দেখালেন চমক Logo পরিবারসহ বেনজীরের আরও ১১৩ স্থাবর-অস্থাবর সম্পত্তি ক্রোকের নির্দেশ Logo হায়দরাবাদকে গুঁড়িয়ে, উড়িয়ে কলকাতা চ্যাম্পিয়ন Logo ফতুল্লায় রহিম হাজী ও সামেদ আলীর গ্রুপে সংঘর্ষ, ভাংচুর, আহত ১৫ Logo সোনারগাঁয়ে নির্বাচন পরবর্তী প্রতিহিংসায় শতাধিক ফলজ গাছ কর্তন Logo মুছাপুরে স্বর্ণকার অজিতের প্রেমের ফাঁদে সর্বশান্ত প্রবাসী নারী Logo বন্দরে বিভিন্ন মামলার ২ সাঁজাপ্রাপ্ত আসামি গ্রেপ্তার Logo নাসিকের ময়লার গাড়ির ধাক্কায় অন্ত:সত্তা নারীর মৃত্যু, চালক আটক

সরকার সব সীমা অতিক্রম করছে: জোনায়েদ সাকি

গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়ক জোনায়েদ সাকি বলেছেন, ‘সম্প্রতি গাজীপুরে এক ব্যক্তিকে গায়েবি মামলায় গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এরপর হাতকড়া ও ডান্ডাবেড়ি পরা অবস্থায় তাকে মায়ের জানাজায় অংশ নিতে দেখা গেছে। নিষ্ঠুরতার একটা সীমা থাকা দরকার। এই সরকার নিষ্ঠুরতার সব সীমা অতিক্রম করছে। এগুলো করছে মানুষকে ভয় দেখানার জন্য।’

শুক্রবার (২৩ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় নারায়ণগঞ্জ শহরের চাষাঢ়ায় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে বাংলাদেশ ছাত্র ফেডরেশনের নারায়ণগঞ্জ জেলা শাখার সপ্তম সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

জোনায়েদ সাকি বলেন, ‘এই দেশে ভোটাধিকার প্রতিষ্ঠা করতে হবে। সেটা কীভাবে হবে, শুধু তত্ত্বাবধায়ক ব্যবস্থা দিয়ে হবে না। কারণ আমরা দেখেছি, তত্ত্বাবধায়ক সরকার আসলে একটা নির্বাচন হতে পারে। কিন্তু এই স্বৈরাচারী ব্যবস্থা আবার তত্ত্বাবধায়ক ব্যবস্থাকে গিলে ফেলে। ফলে এই দেশে নির্দলীয় সরকারের ব্যবস্থা ও স্বৈরাচারী সরকারের সংস্কার করতে হবে। এর মধ্যে দিয়ে স্বৈরাচারী সরকারকে গণতান্ত্রিক করতে হবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘আওয়ামী লীগ তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবি করে বিগত সময়ে আন্দোলন করেছিল, ১৭৩ দিন হরতাল করেছে। জ্বালাও-পোড়াও করেছে। অগ্নিসন্ত্রাসের কথা এখন আপনারা বিএনপির বিরুদ্ধে বলেন, কিন্তু অগ্নিসন্ত্রাস আপনাদের ওখান থেকে শুরু। ঢাকায় শাহবাগের পাশে একটি বাস গান পাউডার দিয়ে পুড়িয়ে দেওয়া হয়েছিল, ১১ জন মানুষ সেখানে নিহত হয়েছিল। আপনারা (আওয়ামী লীগ) এত কিছু করে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবি আদায় করলেন। তবে ২০০১, ২০০৬ ও ২০০৭ সাল তত্ত্বাবধায়ক ব্যবস্থা এদেশে নির্বাচন ব্যবস্থা করতে পারলো না। কেন পারলো না? বাংলাদেশের শাসন ব্যবস্থা এমন স্বৈরতান্ত্রিক যা তত্ত্বাবধায়ক ব্যবস্থা সাময়িক সমাধান আনলেও শেষ পর্যন্ত সমাধান আনতে পারবে না। মাত্র দুটি নির্বাচনের মাথায় ঘটনা তাই ঘটলো। পরে আওয়ামী লীগ দল ক্ষমতায় এসে তত্ত্বাবধায়ক ব্যবস্থা বাতিল করে দিলো। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ সরকার একটা ফ্যাসিবাদী কর্তৃত্ব কায়েম করেছে। এর মধ্য দিয়ে তারা আগামী ২০৪১ সাল পর্যন্ত ক্ষমতায় থাকতে চায়।’

জোনায়েদ সাকি বলেন, ‘উন্নয়ন যাদের স্লোগান, বাংলাদেশের উন্নতি দেখে নাকি বিদেশের বড় বড় দেশ নাকি চমকে যাচ্ছেন, এই দেশ কীভাবে উন্নতি করছে। অথচ ৫১ বছর পার হচ্ছে, আমাদের দেশের শিশুরা ক্লাস টেন পর্যন্ত দশ জনের নয় জন যেতে পারে না। যদি এই দেশে গণমানুষের পক্ষের একটা সরকার থাকতো, পাঁচ বছরের মধ্যে শতকরা ১০০ ভাগ শিশুর জন্য মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষাকে সবার জন্য নিশ্চিত করা সম্ভব। উন্নতি কাকে বলে, উন্নতি মানে মেগা প্রকল্প করে লাখ লাখ কোটি টাকা বিদেশে পাচার করছে। দশ লাখ কোটি টাকা এই সরকারের আমলে বিদেশে পাচার হয়েছে।’

সরকারের অধীনের থেকে একটি গ্রুপ টাকা পাচার করছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘এস আলম গ্রুপ এই সরকারের ছায়াতলে থেকে ৯টি ব্যাংকের মালিক হয়েছে। যখন সরকার বলছে সামনে অর্থনীতির খারাপ অবস্থা, তখন সংবাদপত্রে হেডলাইন হয় ‘‘ভয়ঙ্কর নভেম্বর’’। গত নভেম্বর মাসে এস আলম গ্রুপ একটি ব্যাংক থেকে ৩০ হাজার কোটি টাকা নিয়ে চলে গেছে।’

ছাত্র ফেডারেশন জেলা শাখার সভাপতি ইলিয়াস জামানের সভাপতিত্বে আরও উপস্থিত ছিলেন গণসংহতি আন্দোলনের জেলার সমন্বয়ক তরিকুল সুজন, নারী সংহতির জেলার সম্পাদক পপি রানী সরকারসহ অনেকে। সম্মেলনের মধ্য দিয়ে ছাত্র ফেডারেশন জেলা শাখার নবগঠিত কমিটির সভাপতি ফারহানা মুনা ও সাধারণ সম্পাদক সৃজয় সাহা হয়েছেন।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

কামাল হোসাইন

হ্যালো আমি কামাল হোসাইন, আমি গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করছি। ২০১৭ সাল থেকে এই পত্রিকার সাথে কাজ করছি। এভাবে এখানে আপনার প্রতিনিধিদের সম্পর্কে কিছু লিখতে পারবেন।
জনপ্রিয় সংবাদ

সরকার তারেককে ফিরিয়ে এনে অবশ্যই আদালতের রায় কার্যকর করবে : প্রধানমন্ত্রী

সরকার সব সীমা অতিক্রম করছে: জোনায়েদ সাকি

আপডেট সময় ০৩:৪৪:৪২ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২৪ ডিসেম্বর ২০২২

গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়ক জোনায়েদ সাকি বলেছেন, ‘সম্প্রতি গাজীপুরে এক ব্যক্তিকে গায়েবি মামলায় গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এরপর হাতকড়া ও ডান্ডাবেড়ি পরা অবস্থায় তাকে মায়ের জানাজায় অংশ নিতে দেখা গেছে। নিষ্ঠুরতার একটা সীমা থাকা দরকার। এই সরকার নিষ্ঠুরতার সব সীমা অতিক্রম করছে। এগুলো করছে মানুষকে ভয় দেখানার জন্য।’

শুক্রবার (২৩ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় নারায়ণগঞ্জ শহরের চাষাঢ়ায় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে বাংলাদেশ ছাত্র ফেডরেশনের নারায়ণগঞ্জ জেলা শাখার সপ্তম সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

জোনায়েদ সাকি বলেন, ‘এই দেশে ভোটাধিকার প্রতিষ্ঠা করতে হবে। সেটা কীভাবে হবে, শুধু তত্ত্বাবধায়ক ব্যবস্থা দিয়ে হবে না। কারণ আমরা দেখেছি, তত্ত্বাবধায়ক সরকার আসলে একটা নির্বাচন হতে পারে। কিন্তু এই স্বৈরাচারী ব্যবস্থা আবার তত্ত্বাবধায়ক ব্যবস্থাকে গিলে ফেলে। ফলে এই দেশে নির্দলীয় সরকারের ব্যবস্থা ও স্বৈরাচারী সরকারের সংস্কার করতে হবে। এর মধ্যে দিয়ে স্বৈরাচারী সরকারকে গণতান্ত্রিক করতে হবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘আওয়ামী লীগ তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবি করে বিগত সময়ে আন্দোলন করেছিল, ১৭৩ দিন হরতাল করেছে। জ্বালাও-পোড়াও করেছে। অগ্নিসন্ত্রাসের কথা এখন আপনারা বিএনপির বিরুদ্ধে বলেন, কিন্তু অগ্নিসন্ত্রাস আপনাদের ওখান থেকে শুরু। ঢাকায় শাহবাগের পাশে একটি বাস গান পাউডার দিয়ে পুড়িয়ে দেওয়া হয়েছিল, ১১ জন মানুষ সেখানে নিহত হয়েছিল। আপনারা (আওয়ামী লীগ) এত কিছু করে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবি আদায় করলেন। তবে ২০০১, ২০০৬ ও ২০০৭ সাল তত্ত্বাবধায়ক ব্যবস্থা এদেশে নির্বাচন ব্যবস্থা করতে পারলো না। কেন পারলো না? বাংলাদেশের শাসন ব্যবস্থা এমন স্বৈরতান্ত্রিক যা তত্ত্বাবধায়ক ব্যবস্থা সাময়িক সমাধান আনলেও শেষ পর্যন্ত সমাধান আনতে পারবে না। মাত্র দুটি নির্বাচনের মাথায় ঘটনা তাই ঘটলো। পরে আওয়ামী লীগ দল ক্ষমতায় এসে তত্ত্বাবধায়ক ব্যবস্থা বাতিল করে দিলো। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ সরকার একটা ফ্যাসিবাদী কর্তৃত্ব কায়েম করেছে। এর মধ্য দিয়ে তারা আগামী ২০৪১ সাল পর্যন্ত ক্ষমতায় থাকতে চায়।’

জোনায়েদ সাকি বলেন, ‘উন্নয়ন যাদের স্লোগান, বাংলাদেশের উন্নতি দেখে নাকি বিদেশের বড় বড় দেশ নাকি চমকে যাচ্ছেন, এই দেশ কীভাবে উন্নতি করছে। অথচ ৫১ বছর পার হচ্ছে, আমাদের দেশের শিশুরা ক্লাস টেন পর্যন্ত দশ জনের নয় জন যেতে পারে না। যদি এই দেশে গণমানুষের পক্ষের একটা সরকার থাকতো, পাঁচ বছরের মধ্যে শতকরা ১০০ ভাগ শিশুর জন্য মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষাকে সবার জন্য নিশ্চিত করা সম্ভব। উন্নতি কাকে বলে, উন্নতি মানে মেগা প্রকল্প করে লাখ লাখ কোটি টাকা বিদেশে পাচার করছে। দশ লাখ কোটি টাকা এই সরকারের আমলে বিদেশে পাচার হয়েছে।’

সরকারের অধীনের থেকে একটি গ্রুপ টাকা পাচার করছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘এস আলম গ্রুপ এই সরকারের ছায়াতলে থেকে ৯টি ব্যাংকের মালিক হয়েছে। যখন সরকার বলছে সামনে অর্থনীতির খারাপ অবস্থা, তখন সংবাদপত্রে হেডলাইন হয় ‘‘ভয়ঙ্কর নভেম্বর’’। গত নভেম্বর মাসে এস আলম গ্রুপ একটি ব্যাংক থেকে ৩০ হাজার কোটি টাকা নিয়ে চলে গেছে।’

ছাত্র ফেডারেশন জেলা শাখার সভাপতি ইলিয়াস জামানের সভাপতিত্বে আরও উপস্থিত ছিলেন গণসংহতি আন্দোলনের জেলার সমন্বয়ক তরিকুল সুজন, নারী সংহতির জেলার সম্পাদক পপি রানী সরকারসহ অনেকে। সম্মেলনের মধ্য দিয়ে ছাত্র ফেডারেশন জেলা শাখার নবগঠিত কমিটির সভাপতি ফারহানা মুনা ও সাধারণ সম্পাদক সৃজয় সাহা হয়েছেন।