ঢাকা , বুধবার, ১২ জুন ২০২৪, ২৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সম্পর্ক গভীর করতে পোল্যান্ডে জেলেনস্কি

নতুন কূটনৈতিক উদ্যোগের অংশ হিসেবে পোল্যান্ড সফর করছেন ইউক্রেনীয় প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি। সফরে পোল্যান্ডের প্রেসিডেন্ট আন্দ্রেজ দুদা ও প্রধানমন্ত্রী মাতেউস মোরাউইকির সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় চুক্তি স্বাক্ষরে বুধবার ( ৫ এপ্রিল) ওয়ারশ সফরে যান জেলেনস্কি।

স্থানীয় সময় সকাল ১১টায় পোল্যান্ডের প্রেসিডেন্ট প্রাসাদে জেলেনস্কি প্রবেশ করবেন বলে জানিয়েছেন ইউক্রেনীয় প্রেসিডেন্ট কার্যালয়ের আন্তর্জাতিক নীতি বিভাগের প্রধান মারসিন প্রজিডাকজ।

এই সফরে পোল্যান্ডে থাকা ইউক্রেনীয় শরণার্থী, পোল্যান্ডের জনগণ এবং ব্যবসায়ীদের সঙ্গে ইউক্রেন পুনর্গঠনের বিষয়ে জেলেনস্কি আলোচনা করবেন বলে জানা গেছে।

যুদ্ধের শুরু থেকেই বিগত ১৩ মাস ধরে ইউক্রেনকে সমর্থন করে আসছে দেশটির অন্যতম ঘনিষ্ঠ মিত্র ও প্রতিবেশী পোল্যান্ড। শুধু সমর্থনই নয়, সামরিক সহযোগিতাসহ কিয়েভে ট্যাংক ও অস্ত্র সরবরাহে অন্যান্য পশ্চিমা দেশগুলোর আগ্রহ সৃষ্টিতেও ভূমিকা রাখে ন্যাটো জোটের এই সদস্য দেশটি।

এসব কারণে পোল্যান্ডের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছে ইউক্রেন। মঙ্গলবার (৪ এপ্রিল) কিয়েভের প্রতিরক্ষামন্ত্রী ওলেকসি রেজনিকভ জানান, মিগ-২৯ যুদ্ধবিমান ইউক্রেনে পৌঁছাতে অবদান রাখার জন্য পোল্যান্ডের প্রতি কৃতজ্ঞ ইউক্রেন।

এছাড়া পোল্যান্ডের কাছে এফ-১৬ যুদ্ধবিমান চায় কিয়েভ। তবে এ বিষয়ে এখনও কিছু জানায়নি ওয়ারশ।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

কামাল হোসাইন

হ্যালো আমি কামাল হোসাইন, আমি গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করছি। ২০১৭ সাল থেকে এই পত্রিকার সাথে কাজ করছি। এভাবে এখানে আপনার প্রতিনিধিদের সম্পর্কে কিছু লিখতে পারবেন।

সম্পর্ক গভীর করতে পোল্যান্ডে জেলেনস্কি

আপডেট সময় ০৪:১১:৫০ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৬ এপ্রিল ২০২৩

নতুন কূটনৈতিক উদ্যোগের অংশ হিসেবে পোল্যান্ড সফর করছেন ইউক্রেনীয় প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি। সফরে পোল্যান্ডের প্রেসিডেন্ট আন্দ্রেজ দুদা ও প্রধানমন্ত্রী মাতেউস মোরাউইকির সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় চুক্তি স্বাক্ষরে বুধবার ( ৫ এপ্রিল) ওয়ারশ সফরে যান জেলেনস্কি।

স্থানীয় সময় সকাল ১১টায় পোল্যান্ডের প্রেসিডেন্ট প্রাসাদে জেলেনস্কি প্রবেশ করবেন বলে জানিয়েছেন ইউক্রেনীয় প্রেসিডেন্ট কার্যালয়ের আন্তর্জাতিক নীতি বিভাগের প্রধান মারসিন প্রজিডাকজ।

এই সফরে পোল্যান্ডে থাকা ইউক্রেনীয় শরণার্থী, পোল্যান্ডের জনগণ এবং ব্যবসায়ীদের সঙ্গে ইউক্রেন পুনর্গঠনের বিষয়ে জেলেনস্কি আলোচনা করবেন বলে জানা গেছে।

যুদ্ধের শুরু থেকেই বিগত ১৩ মাস ধরে ইউক্রেনকে সমর্থন করে আসছে দেশটির অন্যতম ঘনিষ্ঠ মিত্র ও প্রতিবেশী পোল্যান্ড। শুধু সমর্থনই নয়, সামরিক সহযোগিতাসহ কিয়েভে ট্যাংক ও অস্ত্র সরবরাহে অন্যান্য পশ্চিমা দেশগুলোর আগ্রহ সৃষ্টিতেও ভূমিকা রাখে ন্যাটো জোটের এই সদস্য দেশটি।

এসব কারণে পোল্যান্ডের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছে ইউক্রেন। মঙ্গলবার (৪ এপ্রিল) কিয়েভের প্রতিরক্ষামন্ত্রী ওলেকসি রেজনিকভ জানান, মিগ-২৯ যুদ্ধবিমান ইউক্রেনে পৌঁছাতে অবদান রাখার জন্য পোল্যান্ডের প্রতি কৃতজ্ঞ ইউক্রেন।

এছাড়া পোল্যান্ডের কাছে এফ-১৬ যুদ্ধবিমান চায় কিয়েভ। তবে এ বিষয়ে এখনও কিছু জানায়নি ওয়ারশ।