ঢাকা , শনিবার, ০২ মার্চ ২০২৪, ১৯ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
Logo বেইলি রোডে অগ্নিকান্ডে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৪৬, দগ্ধরাও সংকটাপন্ন: স্বাস্থ্যমন্ত্রী Logo সাত প্রতিমন্ত্রীর শপথ গ্রহণ Logo আলো ঝলমলে রাতে বিপিএলের চ্যাম্পিয়ন বরিশাল Logo ফতুল্লায় নাসিম ওসমান স্মৃতি ক্রিকেট টুর্নামেন্টের পুরস্কার বিতরণ Logo সোনারগাঁয়ের মোগরাপাড়া চৌরাস্তা এলাকায় ফুট ওভার ব্রীজ হকার মুক্ত করলেন এম পি কাউসার হাসনাত Logo নাঃগঞ্জে মহান শহিদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে বইমেলায় কবিদের উত্তরীয় দিয়ে বরণ Logo সিদ্ধিরগঞ্জ পাওয়ার হাউজ স্কুলে ভর্তি বানিজ্য, ভর্তিতে অনিশ্চিত জমজ শিশু, প্রধান প্রকৌশলীর বদলির দাবি Logo উপজেলা নির্বাচনে সবার সহযোগিতা ও দোয়া চাইলেন মাকসুদ চেয়ারম্যান Logo বৃহত্তম মদনগঞ্জ পেশাজীবি শ্রমিক কল্যান সংগঠন’র ৫ ম বারের মতো বিনামূল্যে সুন্নতে খাৎনা অনুষ্ঠিত Logo বন্দরে গৃহবধূকে কুপিয়ে হত্যা ও স্বামী গুরুত্বর জখমের ঘটনায় মা ও ছেলে আটক

সন্তান হত‌্যার দা‌য়ে মা‌য়ের কারাদণ্ড ও মা‌য়ের প্রেমিকের ফাঁসি

পরকীয় প্রেমিককে সাথে নিয়ে নিজের এক বছর বয়সী শিশু সন্তানকে হত্যা করে ছিল মা; চাঞ্চল্যকর এমন ঘটনা প্রমানিত হওয়ায় অভিযুক্ত মাকে আমৃত্যু কারাদণ্ড ও তার প্রেমিককে মৃত্যুদন্ড দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে তাদেরকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও ৬ মাসের কারাদণ্ডের নির্দেশ দিয়েছেন।রোববার দুপুরে নারায়ণগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ ও বিশেষ ট্রাইবুনাল আদালতের বিচারক উম্মে সরাবান তহুরার এ রায় ঘোষনার করেন।

নিহত ওই শিশুর নাম ছিল মরিয়ম আক্তার।

আমৃত্যু কারাদন্ডপ্রাপ্ত মায়ের নাম বিলকিস বেগম। সে পটুয়াখালী জেলার খারি জমা ঝাটি বুনিয়া এলাকার নয়া হাওলাদের মেয়ে। পরকীয় প্রেমিক মো. সোলাইমান জামালপুর জেলার গড়পাড়া এলাকার লিচু আকন্দের ছেলে।

মামলার রাষ্ট্র পক্ষের আইনজীবী অতিরিক্ত পাবলিক প্রসিকিউটর মাকসুদা আহামেদ জানান, ২০১৮ সালের ১৪ ফেব্রুয়ারি ফতুল্লার পশ্চিম নন্দলালপুর নাককাটার বাড়ির পাশের ৪ তলা বিল্ডিংয়ের বাউন্ডারি ওয়ালের ভিতরে থেকে মরিয়মের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। পরে পুলিশ বাদী হয়ে ফতুল্লা থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলার তদন্তে বেড়িয়ে আসে শিশুটির মা বিলকিসের সাথে সোলেমানের পরকীয়া প্রেম ছিলো। তারা দাম্পত্য জীবনে সুখি হতে পরিকল্পিত ভাবে শিশুটিকে শ্বাসরোধ করে হত্যার পর লাশ গুম করে। মামলাটিতে ২০১৯ সালের ১৯ ফেব্রুয়ারি আদালতে এই দুই আসামীর বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করা হয়। ১৩ জন স্বাক্ষীর সাক্ষ্য শেষে আদালত এ রায় ঘোষনা করেন।

এদিকে আদালত পুলিশের পরিদর্শক মো. আসাদুজ্জামান বলেন, উভয় আসামির উপস্থিতিতে আদালত একজনের ফাসিঁর রায় ও অপরজনকে আমৃত্যু কারাদণ্ড দিয়েছেন। আসামিদের জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

কামাল হোসাইন

হ্যালো আমি কামাল হোসাইন, আমি গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করছি। ২০১৭ সাল থেকে এই পত্রিকার সাথে কাজ করছি। এভাবে এখানে আপনার প্রতিনিধিদের সম্পর্কে কিছু লিখতে পারবেন।

বেইলি রোডে অগ্নিকান্ডে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৪৬, দগ্ধরাও সংকটাপন্ন: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

সন্তান হত‌্যার দা‌য়ে মা‌য়ের কারাদণ্ড ও মা‌য়ের প্রেমিকের ফাঁসি

আপডেট সময় ০৩:৩১:৪৫ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৩

পরকীয় প্রেমিককে সাথে নিয়ে নিজের এক বছর বয়সী শিশু সন্তানকে হত্যা করে ছিল মা; চাঞ্চল্যকর এমন ঘটনা প্রমানিত হওয়ায় অভিযুক্ত মাকে আমৃত্যু কারাদণ্ড ও তার প্রেমিককে মৃত্যুদন্ড দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে তাদেরকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও ৬ মাসের কারাদণ্ডের নির্দেশ দিয়েছেন।রোববার দুপুরে নারায়ণগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ ও বিশেষ ট্রাইবুনাল আদালতের বিচারক উম্মে সরাবান তহুরার এ রায় ঘোষনার করেন।

নিহত ওই শিশুর নাম ছিল মরিয়ম আক্তার।

আমৃত্যু কারাদন্ডপ্রাপ্ত মায়ের নাম বিলকিস বেগম। সে পটুয়াখালী জেলার খারি জমা ঝাটি বুনিয়া এলাকার নয়া হাওলাদের মেয়ে। পরকীয় প্রেমিক মো. সোলাইমান জামালপুর জেলার গড়পাড়া এলাকার লিচু আকন্দের ছেলে।

মামলার রাষ্ট্র পক্ষের আইনজীবী অতিরিক্ত পাবলিক প্রসিকিউটর মাকসুদা আহামেদ জানান, ২০১৮ সালের ১৪ ফেব্রুয়ারি ফতুল্লার পশ্চিম নন্দলালপুর নাককাটার বাড়ির পাশের ৪ তলা বিল্ডিংয়ের বাউন্ডারি ওয়ালের ভিতরে থেকে মরিয়মের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। পরে পুলিশ বাদী হয়ে ফতুল্লা থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলার তদন্তে বেড়িয়ে আসে শিশুটির মা বিলকিসের সাথে সোলেমানের পরকীয়া প্রেম ছিলো। তারা দাম্পত্য জীবনে সুখি হতে পরিকল্পিত ভাবে শিশুটিকে শ্বাসরোধ করে হত্যার পর লাশ গুম করে। মামলাটিতে ২০১৯ সালের ১৯ ফেব্রুয়ারি আদালতে এই দুই আসামীর বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করা হয়। ১৩ জন স্বাক্ষীর সাক্ষ্য শেষে আদালত এ রায় ঘোষনা করেন।

এদিকে আদালত পুলিশের পরিদর্শক মো. আসাদুজ্জামান বলেন, উভয় আসামির উপস্থিতিতে আদালত একজনের ফাসিঁর রায় ও অপরজনকে আমৃত্যু কারাদণ্ড দিয়েছেন। আসামিদের জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।