ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

শ্রীলঙ্কাকে ৩১৭ রানে হারিয়ে ইতিহাসে ভারত

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে আগে ব্যাটিং করে বিরাট কোহলি ও শুভমান গিলের সেঞ্চুরিতে ৩৯০ রানের পাহাড় গড়ে ভারত। সেই পাহাড়ের নিচে চাপ পড়ে লঙ্কানরা। মাত্র ৭৩ রানে শ্রীলঙ্কা অলআউট হলেও ভারত পায় ৩১৭ রানের বিশাল জয়। যা ওয়ানডে ক্রিকেটের ইতিহাসে সবচেয়ে বড় ব্যবধানের জয়। এই জয়ের মধ্য দিয়ে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে লঙ্কানদের হোয়াইটওয়াশ করলো স্বাগতিকরা।

ভারতের দেওয়া ৩৯১ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে মাত্র ২২ ওভারে ৭৩ রানে অলআউট হয় সফরকারী শ্রীলঙ্কা। ৩৭ রান তুলতেই টপ অর্ডারের ৫ ব্যাটারকে হারায় তারা। শুরুর বিপর্যয় থেকে ঘুরে দাঁড়াতে পারেনি লঙ্কানরা। সব মিলিয়ে ৭৩ রানে অলআউট হয়ে ইতিহাসের সবচেয়ে বড় ব্যবধানে হারের লজ্জা পেলো দলটি। লঙ্কান ব্যাটারদের মধ্যে মাত্র তিন জন দুই অঙ্কের ঘরে পৌঁছাতে পেরেছেন। ওপেনার নুওয়ানিন্দু ফার্নান্দো সর্বোচ্চ ১৯ রান করেন। কাসুন রাজিথা করেন অপরাজিত ১৩ রান। আর দাসুন শানাকার ব্যাট থেকে আসে ১১ রান। অতিরিক্ত খাত থেকে আসে ১০ রান।

লঙ্কানদের ৭৩ রানে অলআউট করে ভারত ওয়ানডে ক্রিকেটের ইতিহাসে সবচেয়ে বড় জয়টি তুলে নেয়। ১৫ বছর আগে ২০০৮ সালে আয়ারল্যান্ডকে ২৯০ রানের ব্যবধানে হারিয়েছিল নিউজিল্যান্ড। নিউজিল্যান্ডের গড়া রেকর্ডটি ১৫ বছর পর নিজের করে নিলো ভারত।

শ্রীলঙ্কাকে কোণঠাসা করার ম্যাচে ভারতের সব বোলারই ছিলেন দুর্দান্ত। মোহাম্মদ সিরাজ ৩২ রান খরচায় নেন চারটি উইকেট। এছাড়া মোহাম্মদ শামি ও কুলদীপ যাদব নেন দুটি করে উইকেট।

এর আগে টস জিতে ব্যাট করতে নেমে দারুণ সূচনা করেন রোহিত শর্মা ও শুভমান গিল। ওপেনিং জুটিতে দুই জন মিলে ৯৫ রানের জুটি গড়েন। রোহিত ৪২ রানে ফিরলেও শুভমান ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় সেঞ্চুরি তুলে নেন। দ্বিতীয় উইকেটে কোহলিকে সঙ্গে নিয়ে শুভমান ১৩১ রানের জুটি গড়েন। কাসুন রাজিথার বলে বোল্ড হওয়ার আগে ৯৭ বলে ১৪টি চার ও ২ ছক্কায় ১১৬ রান করেন ভারতীয় এই ব্যাটার।

গিল আউট হলেও কোহলি অপরাজিত থাকেন শেষ পর্যন্ত। ১১০ বল খেলে ১৩টি চার ও ৮ ছক্কায় ১৬৬ রানে অপরাজিত থাকেন। এদিন কোহলি তার ওয়ানডে ক্যারিয়ারের ৪৬তম সেঞ্চুরি তুলে নেন। তাতে ভারত পায় ৫ উইকেটে ৩৯০ রানের বিশাল সংগ্রহ। এছাড়া শ্রেয়াস আইয়ার খেলেন ৩৮ রানের ইনিংস।

লঙ্কান বোলারদের মধ্যে রাজিথা ও লাহিরু কুমারা দুটি করে উইকেট নিয়েছেন। বাকি উইকেটটি নেন চামিকা করুণারত্নে।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

কামাল হোসাইন

হ্যালো আমি কামাল হোসাইন, আমি গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করছি। ২০১৭ সাল থেকে এই পত্রিকার সাথে কাজ করছি। এভাবে এখানে আপনার প্রতিনিধিদের সম্পর্কে কিছু লিখতে পারবেন।
জনপ্রিয় সংবাদ

শ্রীলঙ্কাকে ৩১৭ রানে হারিয়ে ইতিহাসে ভারত

আপডেট সময় ০৪:২৮:৪৯ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৬ জানুয়ারী ২০২৩

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে আগে ব্যাটিং করে বিরাট কোহলি ও শুভমান গিলের সেঞ্চুরিতে ৩৯০ রানের পাহাড় গড়ে ভারত। সেই পাহাড়ের নিচে চাপ পড়ে লঙ্কানরা। মাত্র ৭৩ রানে শ্রীলঙ্কা অলআউট হলেও ভারত পায় ৩১৭ রানের বিশাল জয়। যা ওয়ানডে ক্রিকেটের ইতিহাসে সবচেয়ে বড় ব্যবধানের জয়। এই জয়ের মধ্য দিয়ে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে লঙ্কানদের হোয়াইটওয়াশ করলো স্বাগতিকরা।

ভারতের দেওয়া ৩৯১ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে মাত্র ২২ ওভারে ৭৩ রানে অলআউট হয় সফরকারী শ্রীলঙ্কা। ৩৭ রান তুলতেই টপ অর্ডারের ৫ ব্যাটারকে হারায় তারা। শুরুর বিপর্যয় থেকে ঘুরে দাঁড়াতে পারেনি লঙ্কানরা। সব মিলিয়ে ৭৩ রানে অলআউট হয়ে ইতিহাসের সবচেয়ে বড় ব্যবধানে হারের লজ্জা পেলো দলটি। লঙ্কান ব্যাটারদের মধ্যে মাত্র তিন জন দুই অঙ্কের ঘরে পৌঁছাতে পেরেছেন। ওপেনার নুওয়ানিন্দু ফার্নান্দো সর্বোচ্চ ১৯ রান করেন। কাসুন রাজিথা করেন অপরাজিত ১৩ রান। আর দাসুন শানাকার ব্যাট থেকে আসে ১১ রান। অতিরিক্ত খাত থেকে আসে ১০ রান।

লঙ্কানদের ৭৩ রানে অলআউট করে ভারত ওয়ানডে ক্রিকেটের ইতিহাসে সবচেয়ে বড় জয়টি তুলে নেয়। ১৫ বছর আগে ২০০৮ সালে আয়ারল্যান্ডকে ২৯০ রানের ব্যবধানে হারিয়েছিল নিউজিল্যান্ড। নিউজিল্যান্ডের গড়া রেকর্ডটি ১৫ বছর পর নিজের করে নিলো ভারত।

শ্রীলঙ্কাকে কোণঠাসা করার ম্যাচে ভারতের সব বোলারই ছিলেন দুর্দান্ত। মোহাম্মদ সিরাজ ৩২ রান খরচায় নেন চারটি উইকেট। এছাড়া মোহাম্মদ শামি ও কুলদীপ যাদব নেন দুটি করে উইকেট।

এর আগে টস জিতে ব্যাট করতে নেমে দারুণ সূচনা করেন রোহিত শর্মা ও শুভমান গিল। ওপেনিং জুটিতে দুই জন মিলে ৯৫ রানের জুটি গড়েন। রোহিত ৪২ রানে ফিরলেও শুভমান ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় সেঞ্চুরি তুলে নেন। দ্বিতীয় উইকেটে কোহলিকে সঙ্গে নিয়ে শুভমান ১৩১ রানের জুটি গড়েন। কাসুন রাজিথার বলে বোল্ড হওয়ার আগে ৯৭ বলে ১৪টি চার ও ২ ছক্কায় ১১৬ রান করেন ভারতীয় এই ব্যাটার।

গিল আউট হলেও কোহলি অপরাজিত থাকেন শেষ পর্যন্ত। ১১০ বল খেলে ১৩টি চার ও ৮ ছক্কায় ১৬৬ রানে অপরাজিত থাকেন। এদিন কোহলি তার ওয়ানডে ক্যারিয়ারের ৪৬তম সেঞ্চুরি তুলে নেন। তাতে ভারত পায় ৫ উইকেটে ৩৯০ রানের বিশাল সংগ্রহ। এছাড়া শ্রেয়াস আইয়ার খেলেন ৩৮ রানের ইনিংস।

লঙ্কান বোলারদের মধ্যে রাজিথা ও লাহিরু কুমারা দুটি করে উইকেট নিয়েছেন। বাকি উইকেটটি নেন চামিকা করুণারত্নে।