ঢাকা , শনিবার, ০২ মার্চ ২০২৪, ১৯ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
Logo বেইলি রোডে অগ্নিকান্ডে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৪৬, দগ্ধরাও সংকটাপন্ন: স্বাস্থ্যমন্ত্রী Logo সাত প্রতিমন্ত্রীর শপথ গ্রহণ Logo আলো ঝলমলে রাতে বিপিএলের চ্যাম্পিয়ন বরিশাল Logo ফতুল্লায় নাসিম ওসমান স্মৃতি ক্রিকেট টুর্নামেন্টের পুরস্কার বিতরণ Logo সোনারগাঁয়ের মোগরাপাড়া চৌরাস্তা এলাকায় ফুট ওভার ব্রীজ হকার মুক্ত করলেন এম পি কাউসার হাসনাত Logo নাঃগঞ্জে মহান শহিদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে বইমেলায় কবিদের উত্তরীয় দিয়ে বরণ Logo সিদ্ধিরগঞ্জ পাওয়ার হাউজ স্কুলে ভর্তি বানিজ্য, ভর্তিতে অনিশ্চিত জমজ শিশু, প্রধান প্রকৌশলীর বদলির দাবি Logo উপজেলা নির্বাচনে সবার সহযোগিতা ও দোয়া চাইলেন মাকসুদ চেয়ারম্যান Logo বৃহত্তম মদনগঞ্জ পেশাজীবি শ্রমিক কল্যান সংগঠন’র ৫ ম বারের মতো বিনামূল্যে সুন্নতে খাৎনা অনুষ্ঠিত Logo বন্দরে গৃহবধূকে কুপিয়ে হত্যা ও স্বামী গুরুত্বর জখমের ঘটনায় মা ও ছেলে আটক

শুভমান গিলের ব্যাটে জয়ে ফিরল গুজরাট

পরপর দুই ম্যাচ জিতে আইপিএল শুরু করা গুজরাট টাইটান্স হোঁচট খায় কলকাতা নাইট রাইডার্সের রেকর্ড গড়া ম্যাচে। তবে পাঞ্জাব কিংসের বিপক্ষে ঠিকই ঘুরে দাঁড়িয়েছে তারা।

শুভমান গিলের দুর্দান্ত ইনিংসে জয়ে ফিরেছে দলটি।
ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) অষ্টদশ ম্যাচে মোহালির পাঞ্জাব ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন স্টেডিয়ামে টস হেরে আগে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে ১৫৩ রান করে স্বাগতিকরা। জবাব দিতে নেমে শেষ ওভারের পঞ্চম বলে গিয়ে জয় তুলে নেয় গুজরাট।

আগে ব্যাট করতে নামা পাঞ্জাবের শুরুটা একদমই ভালো হয়নি। ডাক মেরে প্রাবসিমরান সিংয়ের বিদায়ের পর ফর্মে থাকা শিখর ধাওয়ানও ব্যাটে রান পাননি। বিদায় নেন ৮ রানে। এরপর ২৪ বলে ৩৬ রানের ইনিংস খেলে উইকেট হারান ম্যাথেউ সর্ট। এটিই ছিল দলের হয়ে সর্বোচ্চ স্কোর। মাঝে ব্যাট করতে এসে ভানুকা রাজাপক্ষে ২০, জিতেশ শর্মা ২৫ ও স্যাম কারানের ২২ রানে শতক পার করে পাঞ্জাব।

শেষদিকে এসে ব্যাট হাতে ঝড় তোলেন শাহরুখ খান। তার ৯ বলে ২২ রানের ক্যামিওতে মাঝারি সংগ্রহ পায় পাঞ্জাব। গুটরাটের পক্ষে জোড়া উইকেট পান মহিত শর্মা। বাকি বোলাররা একটি করে উইকেট পান।

রান তাড়ায় ব্যাট করতে নেমে ঋদ্ধিমান সাহা ও শুভমান গিলের ব্যাটে ভালো শুরু পায় গুজরাট। এই দুইজন গড়েন ২৮ বলে ৪৮ রানের জুটি। ৩০ রান করা ঋদ্ধিমানকে ফিরিয়ে এই জুটি ভাঙেন কাগিসো রাবাদা। এরপর সাই সুদর্শন এসে কিছুক্ষণ সঙ্গ দেন শুভমানকে। ১৯ বলে ২০ রান করে বিদায় নেন সুদর্শন। তবে একপ্রান্তে লড়ে যাওয়া শুভমান ঠিকই তুলে নেন ফিফটি; ৪০ বলে।

চারে ব্যাট করতে নেমে হার্দিক পান্ডিয়া বিদায় নেন ৮ রান করে। লড়তে থাকা শুভমানও শেষ ওভারে এসে উইকেট হারান। যাওয়ার আগে খেলে যান ৪৯ বলে ১ ছক্কা ও ৭ চারে ৬৭ রানের ইনিংস। পঞ্চম বলে এসে চার মেরে জয় নিশ্চিত করেন রাহুল তেওয়াতিয়া। ২ বলে ৫ রানে অপরাজিত থাকেন তিনি। অপরপ্রান্তে থাকা ডেভিড মিলার ১৮ বলে ১৭ রানের গুরুত্বপূর্ণ ইনিংস খেলে অপরাজিত থাকেন।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

কামাল হোসাইন

হ্যালো আমি কামাল হোসাইন, আমি গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করছি। ২০১৭ সাল থেকে এই পত্রিকার সাথে কাজ করছি। এভাবে এখানে আপনার প্রতিনিধিদের সম্পর্কে কিছু লিখতে পারবেন।

বেইলি রোডে অগ্নিকান্ডে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৪৬, দগ্ধরাও সংকটাপন্ন: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

শুভমান গিলের ব্যাটে জয়ে ফিরল গুজরাট

আপডেট সময় ০৫:১০:৩৪ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৩

পরপর দুই ম্যাচ জিতে আইপিএল শুরু করা গুজরাট টাইটান্স হোঁচট খায় কলকাতা নাইট রাইডার্সের রেকর্ড গড়া ম্যাচে। তবে পাঞ্জাব কিংসের বিপক্ষে ঠিকই ঘুরে দাঁড়িয়েছে তারা।

শুভমান গিলের দুর্দান্ত ইনিংসে জয়ে ফিরেছে দলটি।
ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) অষ্টদশ ম্যাচে মোহালির পাঞ্জাব ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন স্টেডিয়ামে টস হেরে আগে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে ১৫৩ রান করে স্বাগতিকরা। জবাব দিতে নেমে শেষ ওভারের পঞ্চম বলে গিয়ে জয় তুলে নেয় গুজরাট।

আগে ব্যাট করতে নামা পাঞ্জাবের শুরুটা একদমই ভালো হয়নি। ডাক মেরে প্রাবসিমরান সিংয়ের বিদায়ের পর ফর্মে থাকা শিখর ধাওয়ানও ব্যাটে রান পাননি। বিদায় নেন ৮ রানে। এরপর ২৪ বলে ৩৬ রানের ইনিংস খেলে উইকেট হারান ম্যাথেউ সর্ট। এটিই ছিল দলের হয়ে সর্বোচ্চ স্কোর। মাঝে ব্যাট করতে এসে ভানুকা রাজাপক্ষে ২০, জিতেশ শর্মা ২৫ ও স্যাম কারানের ২২ রানে শতক পার করে পাঞ্জাব।

শেষদিকে এসে ব্যাট হাতে ঝড় তোলেন শাহরুখ খান। তার ৯ বলে ২২ রানের ক্যামিওতে মাঝারি সংগ্রহ পায় পাঞ্জাব। গুটরাটের পক্ষে জোড়া উইকেট পান মহিত শর্মা। বাকি বোলাররা একটি করে উইকেট পান।

রান তাড়ায় ব্যাট করতে নেমে ঋদ্ধিমান সাহা ও শুভমান গিলের ব্যাটে ভালো শুরু পায় গুজরাট। এই দুইজন গড়েন ২৮ বলে ৪৮ রানের জুটি। ৩০ রান করা ঋদ্ধিমানকে ফিরিয়ে এই জুটি ভাঙেন কাগিসো রাবাদা। এরপর সাই সুদর্শন এসে কিছুক্ষণ সঙ্গ দেন শুভমানকে। ১৯ বলে ২০ রান করে বিদায় নেন সুদর্শন। তবে একপ্রান্তে লড়ে যাওয়া শুভমান ঠিকই তুলে নেন ফিফটি; ৪০ বলে।

চারে ব্যাট করতে নেমে হার্দিক পান্ডিয়া বিদায় নেন ৮ রান করে। লড়তে থাকা শুভমানও শেষ ওভারে এসে উইকেট হারান। যাওয়ার আগে খেলে যান ৪৯ বলে ১ ছক্কা ও ৭ চারে ৬৭ রানের ইনিংস। পঞ্চম বলে এসে চার মেরে জয় নিশ্চিত করেন রাহুল তেওয়াতিয়া। ২ বলে ৫ রানে অপরাজিত থাকেন তিনি। অপরপ্রান্তে থাকা ডেভিড মিলার ১৮ বলে ১৭ রানের গুরুত্বপূর্ণ ইনিংস খেলে অপরাজিত থাকেন।