ঢাকা , সোমবার, ২৭ মে ২০২৪, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
Logo সরকার তারেককে ফিরিয়ে এনে অবশ্যই আদালতের রায় কার্যকর করবে : প্রধানমন্ত্রী Logo ফিলিস্তিনকে রাষ্ট্রের স্বীকৃতির প্রভাব কী হতে পারে? Logo মায়ের ওড়না শাড়ি বানিয়ে পরলেন জেফার, দেখালেন চমক Logo পরিবারসহ বেনজীরের আরও ১১৩ স্থাবর-অস্থাবর সম্পত্তি ক্রোকের নির্দেশ Logo হায়দরাবাদকে গুঁড়িয়ে, উড়িয়ে কলকাতা চ্যাম্পিয়ন Logo ফতুল্লায় রহিম হাজী ও সামেদ আলীর গ্রুপে সংঘর্ষ, ভাংচুর, আহত ১৫ Logo সোনারগাঁয়ে নির্বাচন পরবর্তী প্রতিহিংসায় শতাধিক ফলজ গাছ কর্তন Logo মুছাপুরে স্বর্ণকার অজিতের প্রেমের ফাঁদে সর্বশান্ত প্রবাসী নারী Logo বন্দরে বিভিন্ন মামলার ২ সাঁজাপ্রাপ্ত আসামি গ্রেপ্তার Logo নাসিকের ময়লার গাড়ির ধাক্কায় অন্ত:সত্তা নারীর মৃত্যু, চালক আটক

যেখানে গিয়ে বাস করলেই মিলবে লাখ লাখ টাকা!

যে কোনো দেশে বসবাস করতে হলে বাসিন্দাদের সরকারকে তার উপার্জনের ভিত্তিতে ট্যাক্স দিতে হয়। তবে যাদের অবস্থা খারাপ সেসব বাসিন্দার সরকারি বিভিন্ন প্রকল্পের আওতায় ভাতা দেওয়া হয় বটে, তবে তার পরিমাণ খুবই সামান্য।

তবে এমনও স্থান রয়েছে, যেখানে গিয়ে বসতি গড়তে সরকার বিপুল পরিমাণ টাকা দেবে। এমনই তিনটি স্থান হচ্ছে— সুইজারল্যান্ডের অ্যালবিনে, ইতালির প্রেসি-অ্যাকোয়ারটিকা এবং গ্রিসের অ্যান্টিকায়থেরা হদিস।

জানা গেছে, সুইজারল্যান্ডের ছোট্ট গ্রাম অ্যালবিন। সবুজ উপত্যকায় ঘেরা এ গ্রামটি প্রাকৃতিক সৌন্দর্যে ভরপুর। তবে ওই গ্রামের জনসংখ্যা মাত্র ২৫০ জন। তাই গ্রামের অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখতে যারা সেখানে বসতি স্থাপন করে বসবাস করবে, সরকারের পক্ষ থেকে তাদের ৬০ হাজার ডলার (বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় সাড়ে ৬২ লাখ টাকা) দেওয়া হবে।

ইতালির দুই শহর প্রেসি ও অ্যাকোয়ারটিকা এক হয়ে এখন স্যালেন্টো নামে পরিচিত। এখানেও সেই একই সমস্যা। এই শহরে গিয়ে যদি কেউ বসতি গড়ে, তবে সরকার সেখানে ব্যবসা শুরু করার জন্য বাসিন্দাকে ৩০ হাজার ডলার (বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ৩১ লাখ টাকা) দেবে। গত বছর এই অঞ্চলে ৬০ জনের জন্ম হয়েছিল, অন্যদিকে মৃত্যু হয়েছে প্রায় ১৫০ জনের।

এ ছাড়া গ্রিসের অ্যান্টিকায়থেরা শহরটিও প্রাকৃতিক সৌন্দর্যে ভরপুর, চোখ সরানো দায়। এর প্রাকৃতিক পরিবেশ মনোমুগ্ধকর। এ জায়গায় মোট ৫০ জনের বসতি। সেখানেও অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখার জন্য সরকার বিশেষ ভাতার ব্যবস্থা করেছে। বলা হয়েছে, তিন বছরের জন্য কেউ যদি সেখানে গিয়ে বসতি গড়ে তাকে প্রতি বছর ৬০০ ডলার, যা বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ৬২ হাজার টাকা দেওয়া হবে।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

কামাল হোসাইন

হ্যালো আমি কামাল হোসাইন, আমি গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করছি। ২০১৭ সাল থেকে এই পত্রিকার সাথে কাজ করছি। এভাবে এখানে আপনার প্রতিনিধিদের সম্পর্কে কিছু লিখতে পারবেন।
জনপ্রিয় সংবাদ

সরকার তারেককে ফিরিয়ে এনে অবশ্যই আদালতের রায় কার্যকর করবে : প্রধানমন্ত্রী

যেখানে গিয়ে বাস করলেই মিলবে লাখ লাখ টাকা!

আপডেট সময় ০৪:৪৯:৩৩ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১১ জানুয়ারী ২০২৩

যে কোনো দেশে বসবাস করতে হলে বাসিন্দাদের সরকারকে তার উপার্জনের ভিত্তিতে ট্যাক্স দিতে হয়। তবে যাদের অবস্থা খারাপ সেসব বাসিন্দার সরকারি বিভিন্ন প্রকল্পের আওতায় ভাতা দেওয়া হয় বটে, তবে তার পরিমাণ খুবই সামান্য।

তবে এমনও স্থান রয়েছে, যেখানে গিয়ে বসতি গড়তে সরকার বিপুল পরিমাণ টাকা দেবে। এমনই তিনটি স্থান হচ্ছে— সুইজারল্যান্ডের অ্যালবিনে, ইতালির প্রেসি-অ্যাকোয়ারটিকা এবং গ্রিসের অ্যান্টিকায়থেরা হদিস।

জানা গেছে, সুইজারল্যান্ডের ছোট্ট গ্রাম অ্যালবিন। সবুজ উপত্যকায় ঘেরা এ গ্রামটি প্রাকৃতিক সৌন্দর্যে ভরপুর। তবে ওই গ্রামের জনসংখ্যা মাত্র ২৫০ জন। তাই গ্রামের অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখতে যারা সেখানে বসতি স্থাপন করে বসবাস করবে, সরকারের পক্ষ থেকে তাদের ৬০ হাজার ডলার (বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় সাড়ে ৬২ লাখ টাকা) দেওয়া হবে।

ইতালির দুই শহর প্রেসি ও অ্যাকোয়ারটিকা এক হয়ে এখন স্যালেন্টো নামে পরিচিত। এখানেও সেই একই সমস্যা। এই শহরে গিয়ে যদি কেউ বসতি গড়ে, তবে সরকার সেখানে ব্যবসা শুরু করার জন্য বাসিন্দাকে ৩০ হাজার ডলার (বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ৩১ লাখ টাকা) দেবে। গত বছর এই অঞ্চলে ৬০ জনের জন্ম হয়েছিল, অন্যদিকে মৃত্যু হয়েছে প্রায় ১৫০ জনের।

এ ছাড়া গ্রিসের অ্যান্টিকায়থেরা শহরটিও প্রাকৃতিক সৌন্দর্যে ভরপুর, চোখ সরানো দায়। এর প্রাকৃতিক পরিবেশ মনোমুগ্ধকর। এ জায়গায় মোট ৫০ জনের বসতি। সেখানেও অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখার জন্য সরকার বিশেষ ভাতার ব্যবস্থা করেছে। বলা হয়েছে, তিন বছরের জন্য কেউ যদি সেখানে গিয়ে বসতি গড়ে তাকে প্রতি বছর ৬০০ ডলার, যা বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ৬২ হাজার টাকা দেওয়া হবে।