ঢাকা , রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ২ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

যুদ্ধের প্রথম সপ্তাহের পর রুশ সেনাদের মৃত্যুর হার সর্বোচ্চ: ইউক্রেন

আগ্রাসন শুরুর প্রথম সপ্তাহের পর চলতি মাসে সবচেয়ে বেশি রুশ সেনা ইউক্রেনে নিহত হয়েছে বলে জানিয়েছে কিয়েভ কর্তৃপক্ষ। তাদের তথ্য অনুযায়ী, ফেব্রুয়ারি মাসে দিনে গড়ে ৮২৪ জন রুশ সেনা প্রাণ হারাচ্ছেন।

গত সপ্তাহে ইউক্রেনের বিদায়ী প্রতিরক্ষামন্ত্রী ওলেক্সি রেজনিকভ জানিয়েছিলেন, ২৪ ফেব্রুয়ারির কাছাকাছি সময়ে একটি নতুন আক্রমণের আশংকা করা হচ্ছে। এক বছর আগে ২০২২ সালের ফেব্রুয়ারিতে প্রতিবেশী দেশ ইউক্রেনে সামরিক অভিযান শুরু করে রুশ বাহিনী।

অভিযান শুরুর কয়েক মাসের মধ্যে ইউক্রেনের বিদ্রোহী অধ্যুষিত পূর্বাঞ্চলের কয়েকটি অঞ্চলের দখল নেয় রাশিয়ার সেনারা। এরপর ‘গণভোটের’ মাধ্যমে লুহানস্ক, দোনেৎস্কসহ চারটি অঞ্চলকে নিজেদের মানচিত্রে অন্তর্ভূক্ত করে নেন রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন।

যুদ্ধ শুরুর প্রথম বার্ষিকী ঘিরে রাশিয়া যে নতুন হামলা শুরু করবে, তা আগে ধারণা করেছিল ইউক্রেন ও তার পশ্চিমা মিত্র দেশগুলো। ক’দিন আগে লুহানস্ক এবং দোনেৎস্কের গভর্নরসহ কিছু স্থানীয় রাজনীতিবিদ দাবি করেছেন, আক্রমণ ইতোমধ্যে শুরু হয়ে গেছে। দেশটির পূর্বে বাখমুতের চারপাশে তীব্র কয়েকটি লড়াইও হয়েছে।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

কামাল হোসাইন

হ্যালো আমি কামাল হোসাইন, আমি গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করছি। ২০১৭ সাল থেকে এই পত্রিকার সাথে কাজ করছি। এভাবে এখানে আপনার প্রতিনিধিদের সম্পর্কে কিছু লিখতে পারবেন।

যুদ্ধের প্রথম সপ্তাহের পর রুশ সেনাদের মৃত্যুর হার সর্বোচ্চ: ইউক্রেন

আপডেট সময় ০৫:১৩:০৩ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৩

আগ্রাসন শুরুর প্রথম সপ্তাহের পর চলতি মাসে সবচেয়ে বেশি রুশ সেনা ইউক্রেনে নিহত হয়েছে বলে জানিয়েছে কিয়েভ কর্তৃপক্ষ। তাদের তথ্য অনুযায়ী, ফেব্রুয়ারি মাসে দিনে গড়ে ৮২৪ জন রুশ সেনা প্রাণ হারাচ্ছেন।

গত সপ্তাহে ইউক্রেনের বিদায়ী প্রতিরক্ষামন্ত্রী ওলেক্সি রেজনিকভ জানিয়েছিলেন, ২৪ ফেব্রুয়ারির কাছাকাছি সময়ে একটি নতুন আক্রমণের আশংকা করা হচ্ছে। এক বছর আগে ২০২২ সালের ফেব্রুয়ারিতে প্রতিবেশী দেশ ইউক্রেনে সামরিক অভিযান শুরু করে রুশ বাহিনী।

অভিযান শুরুর কয়েক মাসের মধ্যে ইউক্রেনের বিদ্রোহী অধ্যুষিত পূর্বাঞ্চলের কয়েকটি অঞ্চলের দখল নেয় রাশিয়ার সেনারা। এরপর ‘গণভোটের’ মাধ্যমে লুহানস্ক, দোনেৎস্কসহ চারটি অঞ্চলকে নিজেদের মানচিত্রে অন্তর্ভূক্ত করে নেন রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন।

যুদ্ধ শুরুর প্রথম বার্ষিকী ঘিরে রাশিয়া যে নতুন হামলা শুরু করবে, তা আগে ধারণা করেছিল ইউক্রেন ও তার পশ্চিমা মিত্র দেশগুলো। ক’দিন আগে লুহানস্ক এবং দোনেৎস্কের গভর্নরসহ কিছু স্থানীয় রাজনীতিবিদ দাবি করেছেন, আক্রমণ ইতোমধ্যে শুরু হয়ে গেছে। দেশটির পূর্বে বাখমুতের চারপাশে তীব্র কয়েকটি লড়াইও হয়েছে।