ঢাকা , বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪, ৪ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বিয়ে ভাঙা ভালো কিছু নয়: সারিকা

বিচ্ছেদের পথ থেকে অবশেষে সরে এলেন মডেল ও অভিনেত্রী সারিকা সাবরিন। স্বামী জিএস বদরুদ্দিন আহমেদ রাহীর বিরুদ্ধে যে নির্যাতন ও যৌতুকের অভিযোগ এনে মামলা করেছিলেন, সেটি তুলে নিয়েছেন। বিভেদ ভুলে দুজন এখন আবার একসঙ্গে থাকতে শুরু করেছেন।

গত বছরের ২ ফেব্রুয়ারি পারিবারিকভাবে টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ার রাহীকে বিয়ে করেন সারিকা। বিবাহোত্তর সংবর্ধনার মাসখানেকের মাথায় স্বামীর বিরুদ্ধে নির্যাতনের অভিযোগ এনে আদালতে মামলা করেন এই অভিনেত্রী। এরপর থেকে মা-বাবার সঙ্গে থাকতেন। এতে ধারণা করা হচ্ছিল, বিচ্ছেদের পথেই হয়তো হাঁটছেন সারিকা। কিন্তু সবকিছু ভুলে আবার একসঙ্গে পথ চলতে শুরু করেছেন সারিকা-রাহী।

একটি গণমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাতকারে সারিকা বলেন, আমার স্বামী রাহি ক্ষমা চেয়েছে, আমি মামলা তুলে নিয়েছি। বিষয়টি নিয়ে দুই পরিবার বসেছিল। একসঙ্গে থাকার সুযোগ চেয়েছে রাহি। সেই অনুরোধে সাড়া দিয়ে আমরা এখন একসঙ্গে থাকছি।

তিনি বলেন, আমি রাহিকে ভালোবাসি। এখন রাহির ভাড়া করা বাসা বসুন্ধরায় আছি। আমাদের এক করার ক্ষেত্রে সবচেয়ে বেশি ভূমিকা রেখেছেন আমার শ্বশুরবাড়ির লোকজন। তা ছাড়া আমিও চেয়েছি, সুন্দরভাবে সংসার করতে। কারণ, বিয়ে ভাঙা ভালো কিছু নয়। দুজনেরই পরিবার আছে, সমাজ আছে। এটা নিয়ে তারা তো বিব্রত অবস্থায় পড়ে। সুতরাং আমরা দুজনই একসঙ্গে সংসার চালাতে চেষ্টা করে যাচ্ছি।

এর আগে সাত বছর চুটিয়ে প্রেম করে ২০১৪ সালের ১২ আগস্ট পুরান ঢাকার লক্ষ্মীবাজারের বাসিন্দা মাহিম করিমকে বিয়ে করেছিলেন জনপ্রিয় অভিনেত্রী সারিকা। সেই ঘরে একটি মেয়েও আছে তার। কিন্তু ২ বছরের মাথায় সারিকার সেই সংসার ভেঙে যায়।

ডিভোর্সের পর কিছুটা ছন্নছাড়া হয়ে পড়েন সারিকা। অভিনয় থেকে কিছু সময় দূরে ছিলেন। নতুন করে কোনো সম্পর্কেও জড়াননি।

এর পাঁচ বছর পর আবার বিয়ে বন্ধনে আবদ্ধ হন নায়িকা। ক্যালেন্ডার ঘেঁটে শুভদিন দেখেই বিয়েটা করেছিলেন সারিকা। ০২.০২.২২, মানে ২০২২ সালের ফেব্রুয়ারি মাসের ২ তারিখ রাহীকে বিয়ে করেন।

দ্বিতীয় বিয়ের সময় বলেছিলেন, প্রেম করে বিয়ে করে ভুল করেছেন। সে কারণে এবার অ্যারেঞ্জ ম্যারেজ করেছেন। তবে সারিকার দ্বিতীয় সংসার জীবনে সুখ বেশি দিন টিকেনি।

বছর না ঘুরতেই তার সংসারে ভাঙনের সুর ‍উঠে। স্বামীর প্রতি তিক্ততা এত তীব্র হয় যে, আদালতের দ্বারস্থ হতে বাধ্য হন অভিনেত্রী।

তবে কী কারণে স্বামীর বিরুদ্ধে মামলা করেছিলেন- এমন প্রশ্নে সারিকা বলেন, মানুষ চায় সবার আগে নিজে ভালো থাকতে, তারপর আশপাশের মানুষকে ভালো রাখতে। ওই সময় আমার ওপর দিয়ে খুব ঝড় বয়ে গিয়েছিল। মামলা করার আগেও চেষ্টা করেছি সমাধান করতে, হয়নি। পরে বাধ্য হয়েই কাজটি করতে হয়েছিল আমাকে। থাক, সেসব কথা এখন আর না বলি।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

কামাল হোসাইন

হ্যালো আমি কামাল হোসাইন, আমি গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করছি। ২০১৭ সাল থেকে এই পত্রিকার সাথে কাজ করছি। এভাবে এখানে আপনার প্রতিনিধিদের সম্পর্কে কিছু লিখতে পারবেন।

বিয়ে ভাঙা ভালো কিছু নয়: সারিকা

আপডেট সময় ০৪:৩২:০৯ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৩

বিচ্ছেদের পথ থেকে অবশেষে সরে এলেন মডেল ও অভিনেত্রী সারিকা সাবরিন। স্বামী জিএস বদরুদ্দিন আহমেদ রাহীর বিরুদ্ধে যে নির্যাতন ও যৌতুকের অভিযোগ এনে মামলা করেছিলেন, সেটি তুলে নিয়েছেন। বিভেদ ভুলে দুজন এখন আবার একসঙ্গে থাকতে শুরু করেছেন।

গত বছরের ২ ফেব্রুয়ারি পারিবারিকভাবে টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ার রাহীকে বিয়ে করেন সারিকা। বিবাহোত্তর সংবর্ধনার মাসখানেকের মাথায় স্বামীর বিরুদ্ধে নির্যাতনের অভিযোগ এনে আদালতে মামলা করেন এই অভিনেত্রী। এরপর থেকে মা-বাবার সঙ্গে থাকতেন। এতে ধারণা করা হচ্ছিল, বিচ্ছেদের পথেই হয়তো হাঁটছেন সারিকা। কিন্তু সবকিছু ভুলে আবার একসঙ্গে পথ চলতে শুরু করেছেন সারিকা-রাহী।

একটি গণমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাতকারে সারিকা বলেন, আমার স্বামী রাহি ক্ষমা চেয়েছে, আমি মামলা তুলে নিয়েছি। বিষয়টি নিয়ে দুই পরিবার বসেছিল। একসঙ্গে থাকার সুযোগ চেয়েছে রাহি। সেই অনুরোধে সাড়া দিয়ে আমরা এখন একসঙ্গে থাকছি।

তিনি বলেন, আমি রাহিকে ভালোবাসি। এখন রাহির ভাড়া করা বাসা বসুন্ধরায় আছি। আমাদের এক করার ক্ষেত্রে সবচেয়ে বেশি ভূমিকা রেখেছেন আমার শ্বশুরবাড়ির লোকজন। তা ছাড়া আমিও চেয়েছি, সুন্দরভাবে সংসার করতে। কারণ, বিয়ে ভাঙা ভালো কিছু নয়। দুজনেরই পরিবার আছে, সমাজ আছে। এটা নিয়ে তারা তো বিব্রত অবস্থায় পড়ে। সুতরাং আমরা দুজনই একসঙ্গে সংসার চালাতে চেষ্টা করে যাচ্ছি।

এর আগে সাত বছর চুটিয়ে প্রেম করে ২০১৪ সালের ১২ আগস্ট পুরান ঢাকার লক্ষ্মীবাজারের বাসিন্দা মাহিম করিমকে বিয়ে করেছিলেন জনপ্রিয় অভিনেত্রী সারিকা। সেই ঘরে একটি মেয়েও আছে তার। কিন্তু ২ বছরের মাথায় সারিকার সেই সংসার ভেঙে যায়।

ডিভোর্সের পর কিছুটা ছন্নছাড়া হয়ে পড়েন সারিকা। অভিনয় থেকে কিছু সময় দূরে ছিলেন। নতুন করে কোনো সম্পর্কেও জড়াননি।

এর পাঁচ বছর পর আবার বিয়ে বন্ধনে আবদ্ধ হন নায়িকা। ক্যালেন্ডার ঘেঁটে শুভদিন দেখেই বিয়েটা করেছিলেন সারিকা। ০২.০২.২২, মানে ২০২২ সালের ফেব্রুয়ারি মাসের ২ তারিখ রাহীকে বিয়ে করেন।

দ্বিতীয় বিয়ের সময় বলেছিলেন, প্রেম করে বিয়ে করে ভুল করেছেন। সে কারণে এবার অ্যারেঞ্জ ম্যারেজ করেছেন। তবে সারিকার দ্বিতীয় সংসার জীবনে সুখ বেশি দিন টিকেনি।

বছর না ঘুরতেই তার সংসারে ভাঙনের সুর ‍উঠে। স্বামীর প্রতি তিক্ততা এত তীব্র হয় যে, আদালতের দ্বারস্থ হতে বাধ্য হন অভিনেত্রী।

তবে কী কারণে স্বামীর বিরুদ্ধে মামলা করেছিলেন- এমন প্রশ্নে সারিকা বলেন, মানুষ চায় সবার আগে নিজে ভালো থাকতে, তারপর আশপাশের মানুষকে ভালো রাখতে। ওই সময় আমার ওপর দিয়ে খুব ঝড় বয়ে গিয়েছিল। মামলা করার আগেও চেষ্টা করেছি সমাধান করতে, হয়নি। পরে বাধ্য হয়েই কাজটি করতে হয়েছিল আমাকে। থাক, সেসব কথা এখন আর না বলি।