ঢাকা , শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ৬ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বান্দরবানের থানচির বলি বাজারে ৫৯ দোকান পুড়ে গেছে। ক্ষয়ক্ষতি ৪ কোটি টাকা

বান্দরবানের থানচি উপজেলার বলিবাজারে এক ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে ৫৯টি দোকান পুড়ে গেছে। এই ঘটনায় প্রায় ৪ কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বুধবার (২২ মার্চ) সকাল পৌনে ছয়টায় অগ্নিকান্ডের এই ঘটনা ঘটে। বলিবাজারের নীলগিরি হোটেল থেকে আগুনের সূত্রপাত হলে তা একে একে সব দোকানে ছড়িয়ে পড়ে। এসময় বলিবাজারের ১৫০টি দোকানের মধ্যে ৫৯টি দোকান পুড়ে যায়। স্থানীয় ও ফায়ার সার্ভিসের ২টি ইউনিটের সহায়তায় সকাল আটটার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রনে আসে।

থানচি বলিপাড়ার ইউপি চেয়ারম্যান জিয় অং মার্মা বলেন, অগ্নিকান্ডে বাজারের কয়েক কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে, এতে ব্যবসায়িরা নি:স্ব হয়ে পড়েছে।

এদিকে ঘটনার পর থানচি উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান থোয়াইহ্লা মং মার্মা, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, মো: আবুল মনসুরসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।
এই ব্যাপারে থানচি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, মো: আবুল মনসুর বলেন,অগ্নিকান্ডের ঘটনায় চার থেকে পাঁচ কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে, ক্ষতিগ্রস্তদের ত্রান সহায়তা প্রদানের ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
উল্লেখ্য, ২০২০ সালের ২৭ এপ্রিল বলিবাজারের ২০০টি দোকান পুড়ে ছাই হয়ে যায়, এতে প্রায় ৮০ লক্ষ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

কামাল হোসাইন

হ্যালো আমি কামাল হোসাইন, আমি গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করছি। ২০১৭ সাল থেকে এই পত্রিকার সাথে কাজ করছি। এভাবে এখানে আপনার প্রতিনিধিদের সম্পর্কে কিছু লিখতে পারবেন।

বান্দরবানের থানচির বলি বাজারে ৫৯ দোকান পুড়ে গেছে। ক্ষয়ক্ষতি ৪ কোটি টাকা

আপডেট সময় ০৪:২৪:৪৫ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ মার্চ ২০২৩

বান্দরবানের থানচি উপজেলার বলিবাজারে এক ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে ৫৯টি দোকান পুড়ে গেছে। এই ঘটনায় প্রায় ৪ কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বুধবার (২২ মার্চ) সকাল পৌনে ছয়টায় অগ্নিকান্ডের এই ঘটনা ঘটে। বলিবাজারের নীলগিরি হোটেল থেকে আগুনের সূত্রপাত হলে তা একে একে সব দোকানে ছড়িয়ে পড়ে। এসময় বলিবাজারের ১৫০টি দোকানের মধ্যে ৫৯টি দোকান পুড়ে যায়। স্থানীয় ও ফায়ার সার্ভিসের ২টি ইউনিটের সহায়তায় সকাল আটটার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রনে আসে।

থানচি বলিপাড়ার ইউপি চেয়ারম্যান জিয় অং মার্মা বলেন, অগ্নিকান্ডে বাজারের কয়েক কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে, এতে ব্যবসায়িরা নি:স্ব হয়ে পড়েছে।

এদিকে ঘটনার পর থানচি উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান থোয়াইহ্লা মং মার্মা, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, মো: আবুল মনসুরসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।
এই ব্যাপারে থানচি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, মো: আবুল মনসুর বলেন,অগ্নিকান্ডের ঘটনায় চার থেকে পাঁচ কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে, ক্ষতিগ্রস্তদের ত্রান সহায়তা প্রদানের ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
উল্লেখ্য, ২০২০ সালের ২৭ এপ্রিল বলিবাজারের ২০০টি দোকান পুড়ে ছাই হয়ে যায়, এতে প্রায় ৮০ লক্ষ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়।