ঢাকা , শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ৬ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে ৩৩০ বিজিপি সদস্য

মিয়ানমারে চলমান সংঘর্ষের জেরে এখন পর্যন্ত দেশটির সীমান্তরক্ষী বাহিনী বর্ডার গার্ড পুলিশের (বিজিপি) ৩৩০ সদস্য বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছেন। প্রশাসনিক সুবিধার কথা বিবেচনা করে তাদের মধ্যে ১০০ জনকে তুমব্রু থেকে টেকনাফের হ্নীলাতে স্থানান্তর করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (৭ জানুয়ারি) বিকেলে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) সদর দপ্তরের জনসংযোগ কমকর্তা শরীফুল ইসলাম রাইজিংবিডিকে এ তথ্য জানিয়েছেন।

উল্লেখ্য, মিয়ানমারের বিদ্রোহী ও ক্ষমতাসীন সেনাবাহিনীর মধ্যে লড়াই তীব্রতর হয়ে উঠছে। একের পর এক ঘাঁটির নিয়ন্ত্রণ হারাচ্ছে সামরিক বাহিনী। লড়াইয়ে পরাজয় আঁচ করতে পেরে বিজিপির অনেক সদস্য সীমান্ত পেরিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নিচ্ছেন।

এদিকে, মিয়ানমারের বিদ্রোহী বাহিনী বা সেনাবাহিনীর ছোঁড়া মর্টার শেলের আঘাতে সীমান্তবর্তী বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়িতে দুজন নিহত হয়েছেন, আহত হয়েছেন কয়েকজন। ইতোমধ্যে ওই এলাকা থেকে স্থানীয় বাসিন্দাদের নিরাপদ গন্তব্যে সরিয়ে নিয়েছে প্রশাসন।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

কামাল হোসাইন

হ্যালো আমি কামাল হোসাইন, আমি গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করছি। ২০১৭ সাল থেকে এই পত্রিকার সাথে কাজ করছি। এভাবে এখানে আপনার প্রতিনিধিদের সম্পর্কে কিছু লিখতে পারবেন।

বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে ৩৩০ বিজিপি সদস্য

আপডেট সময় ০২:৪৪:৩৫ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

মিয়ানমারে চলমান সংঘর্ষের জেরে এখন পর্যন্ত দেশটির সীমান্তরক্ষী বাহিনী বর্ডার গার্ড পুলিশের (বিজিপি) ৩৩০ সদস্য বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছেন। প্রশাসনিক সুবিধার কথা বিবেচনা করে তাদের মধ্যে ১০০ জনকে তুমব্রু থেকে টেকনাফের হ্নীলাতে স্থানান্তর করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (৭ জানুয়ারি) বিকেলে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) সদর দপ্তরের জনসংযোগ কমকর্তা শরীফুল ইসলাম রাইজিংবিডিকে এ তথ্য জানিয়েছেন।

উল্লেখ্য, মিয়ানমারের বিদ্রোহী ও ক্ষমতাসীন সেনাবাহিনীর মধ্যে লড়াই তীব্রতর হয়ে উঠছে। একের পর এক ঘাঁটির নিয়ন্ত্রণ হারাচ্ছে সামরিক বাহিনী। লড়াইয়ে পরাজয় আঁচ করতে পেরে বিজিপির অনেক সদস্য সীমান্ত পেরিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নিচ্ছেন।

এদিকে, মিয়ানমারের বিদ্রোহী বাহিনী বা সেনাবাহিনীর ছোঁড়া মর্টার শেলের আঘাতে সীমান্তবর্তী বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়িতে দুজন নিহত হয়েছেন, আহত হয়েছেন কয়েকজন। ইতোমধ্যে ওই এলাকা থেকে স্থানীয় বাসিন্দাদের নিরাপদ গন্তব্যে সরিয়ে নিয়েছে প্রশাসন।