ঢাকা , বুধবার, ১২ জুন ২০২৪, ২৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

‘পুরনো গাড়ির মতো দম ফুরিয়ে গেছে বিএনপির’

বিএনপির দম ফুরিয়ে গেছে, সে কারণে নীরব পদযাত্রা উল্লেখ করে তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হাছান মাহমুদ বলেছেন, ‘পুরনো গাড়ির যেমন দম ফুরিয়ে যায়, তেমনি বিএনপিরও দম ফুরিয়ে গেছে। কয়েকদিন পরপর দম আসে। সে কারণে নীরব পদযাত্রা কর্মসূচি দিয়েছে তারা।’

শুক্রবার (২৭ জানুয়ারি) বিকালে রাজশাহীতে আওয়ামী লীগের বিভাগীয় জনসভাস্থল পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন তিনি।

করোনার সময়সহ জাতীয় সব দুর্যোগে আওয়ামী লীগ ছাড়া কাউকে পাশে দাঁড়াতে দেখা যায়নি দাবি করে হাছান মাহমুদ বলেন, ‘বিএনপিকে তো শীতের পাখির মতো দেখা যায়। এখন তো কয়েকদিন বিরতি দিয়ে দিয়ে প্রোগ্রাম করে। বিএনপির অবস্থা পুরনো গাড়ির মতো। গাড়ি যখন পুরনো হয়, তখন সচল রাখতে কিছুদিন পরপর স্টার্ট দিয়ে রাখতে হয়। পুরনো গাড়ি যখন চলে না, ওটাকে মাঝেমধ্যে স্টার্ট দেওয়ার মতো বিএনপির এখনকার অবস্থা। তাই নীরব পদযাত্রা কর্মসূচি দিয়েছে তারা।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রাজশাহীতে আসবেন, বিশাল জনসমুদ্রে ভাষণ দেবেন উল্লেখ করে আওয়ামী লীগের এই যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘জনসভা ঘিরে রাজশাহীতে সাজ সাজ রব বিরাজ করছে। মানুষের মাঝে ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনা তৈরি হয়েছে। রাজশাহীর মাদ্রাসা মাঠ জনসভাস্থল হলেও পুরো রাজশাহীজুড়ে জনসভা হবে। কারণ মাঠের বাইরে ১০ থেকে ১২ গুণ মানুষ থাকবে।’

গত ১৪ বছরে রাজশাহী শহর বদলে গেছে জানিয়ে হাছান মাহমুদ আরও বলেন, ‘যে ব্যক্তি ১৪ বছর আগে রাজশাহীতে এসেছে, সে ১৪ বছর পর রাজশাহীতে এসে চিনতে পারছে না। এটি জননেত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়নের কারণে হয়েছে। পুরো রাজশাহী অঞ্চলটাই বদলে গেছে। প্রধানমন্ত্রী সেদিন শুধু জনসভাই করবেন না, অনেক উন্নয়ন প্রকল্প উদ্বোধন করবেন।’

এটি নির্বাচনের বছর, এজন্য প্রধানমন্ত্রী আওয়ামী লীগের সভাপতি হিসেবে ইতোমধ্যে দেশের বিভিন্ন জনসভায় ভোট চেয়েছেন বলেও জানান হাছান মাহমুদ। তিনি বলেন, ‘আমরাও দলের কর্মী হিসেবে মানুষের কাছে ভোট চাচ্ছি। আমরা সারা বছর মানুষের কাছে থাকি। শুধু এখন ভোট চাচ্ছি, তা নয়। গত ১৪ বছর মানুষের সঙ্গে থেকেছি। মানুষের খোঁজখবর রেখেছি। মানুষের সুখে-দুঃখে, অভাব ও অভিযোগে শুধু আওয়ামী লীগকে পাওয়া গেছে। দেশে যখন কোনও ঝড়-জলোচ্ছ্বাস কিংবা দুর্যোগ হয় তখন আওয়ামী লীগ নেতাদেরই খুঁজে পাওয়া যায়। অন্যদের খুঁজে পাওয়া যায় না।’

এ সময় তথ্যমন্ত্রীর সঙ্গে ছিলেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও রাজশাহী সিটি করপোরেশনের মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন, রাজশাহী-৩ আসনের সংসদ সদস্য আয়েন উদ্দিন, মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকার, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবদুল ওয়াদুদ দারা প্রমুখ।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

কামাল হোসাইন

হ্যালো আমি কামাল হোসাইন, আমি গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করছি। ২০১৭ সাল থেকে এই পত্রিকার সাথে কাজ করছি। এভাবে এখানে আপনার প্রতিনিধিদের সম্পর্কে কিছু লিখতে পারবেন।

‘পুরনো গাড়ির মতো দম ফুরিয়ে গেছে বিএনপির’

আপডেট সময় ০৩:৪৭:০৭ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২৮ জানুয়ারী ২০২৩

বিএনপির দম ফুরিয়ে গেছে, সে কারণে নীরব পদযাত্রা উল্লেখ করে তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হাছান মাহমুদ বলেছেন, ‘পুরনো গাড়ির যেমন দম ফুরিয়ে যায়, তেমনি বিএনপিরও দম ফুরিয়ে গেছে। কয়েকদিন পরপর দম আসে। সে কারণে নীরব পদযাত্রা কর্মসূচি দিয়েছে তারা।’

শুক্রবার (২৭ জানুয়ারি) বিকালে রাজশাহীতে আওয়ামী লীগের বিভাগীয় জনসভাস্থল পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন তিনি।

করোনার সময়সহ জাতীয় সব দুর্যোগে আওয়ামী লীগ ছাড়া কাউকে পাশে দাঁড়াতে দেখা যায়নি দাবি করে হাছান মাহমুদ বলেন, ‘বিএনপিকে তো শীতের পাখির মতো দেখা যায়। এখন তো কয়েকদিন বিরতি দিয়ে দিয়ে প্রোগ্রাম করে। বিএনপির অবস্থা পুরনো গাড়ির মতো। গাড়ি যখন পুরনো হয়, তখন সচল রাখতে কিছুদিন পরপর স্টার্ট দিয়ে রাখতে হয়। পুরনো গাড়ি যখন চলে না, ওটাকে মাঝেমধ্যে স্টার্ট দেওয়ার মতো বিএনপির এখনকার অবস্থা। তাই নীরব পদযাত্রা কর্মসূচি দিয়েছে তারা।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রাজশাহীতে আসবেন, বিশাল জনসমুদ্রে ভাষণ দেবেন উল্লেখ করে আওয়ামী লীগের এই যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘জনসভা ঘিরে রাজশাহীতে সাজ সাজ রব বিরাজ করছে। মানুষের মাঝে ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনা তৈরি হয়েছে। রাজশাহীর মাদ্রাসা মাঠ জনসভাস্থল হলেও পুরো রাজশাহীজুড়ে জনসভা হবে। কারণ মাঠের বাইরে ১০ থেকে ১২ গুণ মানুষ থাকবে।’

গত ১৪ বছরে রাজশাহী শহর বদলে গেছে জানিয়ে হাছান মাহমুদ আরও বলেন, ‘যে ব্যক্তি ১৪ বছর আগে রাজশাহীতে এসেছে, সে ১৪ বছর পর রাজশাহীতে এসে চিনতে পারছে না। এটি জননেত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়নের কারণে হয়েছে। পুরো রাজশাহী অঞ্চলটাই বদলে গেছে। প্রধানমন্ত্রী সেদিন শুধু জনসভাই করবেন না, অনেক উন্নয়ন প্রকল্প উদ্বোধন করবেন।’

এটি নির্বাচনের বছর, এজন্য প্রধানমন্ত্রী আওয়ামী লীগের সভাপতি হিসেবে ইতোমধ্যে দেশের বিভিন্ন জনসভায় ভোট চেয়েছেন বলেও জানান হাছান মাহমুদ। তিনি বলেন, ‘আমরাও দলের কর্মী হিসেবে মানুষের কাছে ভোট চাচ্ছি। আমরা সারা বছর মানুষের কাছে থাকি। শুধু এখন ভোট চাচ্ছি, তা নয়। গত ১৪ বছর মানুষের সঙ্গে থেকেছি। মানুষের খোঁজখবর রেখেছি। মানুষের সুখে-দুঃখে, অভাব ও অভিযোগে শুধু আওয়ামী লীগকে পাওয়া গেছে। দেশে যখন কোনও ঝড়-জলোচ্ছ্বাস কিংবা দুর্যোগ হয় তখন আওয়ামী লীগ নেতাদেরই খুঁজে পাওয়া যায়। অন্যদের খুঁজে পাওয়া যায় না।’

এ সময় তথ্যমন্ত্রীর সঙ্গে ছিলেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও রাজশাহী সিটি করপোরেশনের মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন, রাজশাহী-৩ আসনের সংসদ সদস্য আয়েন উদ্দিন, মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ডাবলু সরকার, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবদুল ওয়াদুদ দারা প্রমুখ।