ঢাকা , মঙ্গলবার, ০৫ মার্চ ২০২৪, ২১ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
Logo বন্দরে শ্লীলতাহানির ভিডিও ধারণ করে যুবতীকে ধর্ষণ, প্রধান আসামি গ্রেপ্তার Logo আড়াইহাজারে রেস্টুরেন্ট থেকে অপত্তিকর অবস্থায় ১৬ কিশোর কিশোরী আটক Logo সোনারগাঁয়ে ট্রাক চাপায় যুবক নিহত, চালক আটক Logo সোনারগাঁয়ের আলোচিত সাধন মিয়া হত্যা মামলায় দুইজনের মৃত্যুদন্ড ও একজনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড Logo বন্দর ১নং খেয়াঘাট মাঝি সমিতির নির্বাচন সম্পন্ন Logo আসন্ন উপজেলা নির্বাচনে মাকসুদ চেয়ারম্যান’র মত বিনিময় সভা ও উঠান বৈঠক Logo না’গঞ্জ জেলা জা’পা সভাপতি সানুর নাম ভাঙ্গিয়ে সুমন প্রধানের অপকর্ম রুখবে কে? Logo হুথিদের হামলায় লোহিত সাগরে ডুবে গেল সেই জাহাজ Logo রাতের লাইভের নেপথ্যের কারণ জানালেন তাহসান-ফারিণ Logo যেকোনো পরিস্থিতি মোকাবেলায় সশস্ত্র বাহিনীকে সক্ষম করে তোলা হচ্ছে : প্রধানমন্ত্রী

পশ্চিমতীরে ৪ ফিলিস্তিনিকে গুলি করে হত্যা

অধিকৃত পশ্চিমতীরে ইসরাইলি সেনাদের গুলিতে হাবিব মোহাম্মদ একমাইল নামে ২৫ বছর বয়সি আরও এক ফিলিস্তিনি তরুণ প্রাণ হারিয়েছেন। পশ্চিমতীরের উত্তরাঞ্চলে অভিযান চালিয়ে ইহুদীবাদী সেনারা এই হত্যাকাণ্ড ঘটায়। এর কয়েক ঘণ্টা আগে ইসরাইলি সেনাদের হামলায় আরও তিন ফিলিস্তিনি নিহত হন। ফিলিস্তিনের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, গত বৃহস্পতিবার ইসরাইলি সেনাদের ছোঁড়া গুলি হাবিব মোহাম্মদ একমাইলের মাথায় লাগে এবং তাতে মারাত্মকভাবে আহত হন তিনি। তাকে জেনিন শহরের হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসকরা মৃত ঘোষণা করেন। খবর ওয়াফার। এই ঘটনায় আরেক ফিলিস্তিনি বুকে গুলিবিদ্ধ হয়েছেন এবং মারাত্মক অবস্থায় মেডিক্যাল সেন্টারে চিকিৎসা নিচ্ছেন। এর আগে বৃহস্পতিবার ভোরে সামির ওউনি আরাবি আসলাম নামে এক ফিলিস্তিনি আল কুদস শহরের উত্তরাংশে কালামান্দিয়া শরণার্থী শিবিরের কাছে নিহত হন। ইসরাইলি সেনাদের হাত থেকে তার ছেলেকে বাঁচাতে গিয়ে ৪১ বছর বয়সি ওই ফিলিস্তিনি বুকে গুলিবিদ্ধ হন। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ফুটেজে দেখা যায়- আসলান মারাত্মক আহত অবস্থায় মাটিতে পড়ে রয়েছেন এবং ইসরাইলি সেনারা তাকে ঘিরে রাখে। কিছুক্ষণ পর কয়েকজন ফিলিস্তিনি তাকে হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। একই দিনে জেনিন শহরে আবদুল হাদি নাজ্জাল নামে ১৮ বছরের এক তুরুণকে বুকে ও গাড়ে গুলি করে হত্যা করে ইসরাইলি সেনারা। এর আগে, বুধবার দিবাগত রাতে বর্ণবাদী ইসরাইলি সেনারা নাবলুসের বালাতা শরণার্থী শিবিরে এক তরুণকে মাথায় গুলি করে হত্যা করেছে। সাম্প্রতিক মাসগুলোতে ইহুদিবাদী সেনারা নাবলুস এবং জেনিনসহ পশ্চিমতীরের বিভিন্ন এলাকায় বর্বর হামলা বাড়িয়ে দিয়েছে। তাদের এসব হামলায় অসংখ্য ফিলিস্তিনি নিহত এবং শত শত ফিলিস্তিনি আহত হয়েছেন।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

কামাল হোসাইন

হ্যালো আমি কামাল হোসাইন, আমি গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করছি। ২০১৭ সাল থেকে এই পত্রিকার সাথে কাজ করছি। এভাবে এখানে আপনার প্রতিনিধিদের সম্পর্কে কিছু লিখতে পারবেন।
জনপ্রিয় সংবাদ

বন্দরে শ্লীলতাহানির ভিডিও ধারণ করে যুবতীকে ধর্ষণ, প্রধান আসামি গ্রেপ্তার

পশ্চিমতীরে ৪ ফিলিস্তিনিকে গুলি করে হত্যা

আপডেট সময় ০৩:২২:২০ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৪ জানুয়ারী ২০২৩

অধিকৃত পশ্চিমতীরে ইসরাইলি সেনাদের গুলিতে হাবিব মোহাম্মদ একমাইল নামে ২৫ বছর বয়সি আরও এক ফিলিস্তিনি তরুণ প্রাণ হারিয়েছেন। পশ্চিমতীরের উত্তরাঞ্চলে অভিযান চালিয়ে ইহুদীবাদী সেনারা এই হত্যাকাণ্ড ঘটায়। এর কয়েক ঘণ্টা আগে ইসরাইলি সেনাদের হামলায় আরও তিন ফিলিস্তিনি নিহত হন। ফিলিস্তিনের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, গত বৃহস্পতিবার ইসরাইলি সেনাদের ছোঁড়া গুলি হাবিব মোহাম্মদ একমাইলের মাথায় লাগে এবং তাতে মারাত্মকভাবে আহত হন তিনি। তাকে জেনিন শহরের হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসকরা মৃত ঘোষণা করেন। খবর ওয়াফার। এই ঘটনায় আরেক ফিলিস্তিনি বুকে গুলিবিদ্ধ হয়েছেন এবং মারাত্মক অবস্থায় মেডিক্যাল সেন্টারে চিকিৎসা নিচ্ছেন। এর আগে বৃহস্পতিবার ভোরে সামির ওউনি আরাবি আসলাম নামে এক ফিলিস্তিনি আল কুদস শহরের উত্তরাংশে কালামান্দিয়া শরণার্থী শিবিরের কাছে নিহত হন। ইসরাইলি সেনাদের হাত থেকে তার ছেলেকে বাঁচাতে গিয়ে ৪১ বছর বয়সি ওই ফিলিস্তিনি বুকে গুলিবিদ্ধ হন। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ফুটেজে দেখা যায়- আসলান মারাত্মক আহত অবস্থায় মাটিতে পড়ে রয়েছেন এবং ইসরাইলি সেনারা তাকে ঘিরে রাখে। কিছুক্ষণ পর কয়েকজন ফিলিস্তিনি তাকে হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। একই দিনে জেনিন শহরে আবদুল হাদি নাজ্জাল নামে ১৮ বছরের এক তুরুণকে বুকে ও গাড়ে গুলি করে হত্যা করে ইসরাইলি সেনারা। এর আগে, বুধবার দিবাগত রাতে বর্ণবাদী ইসরাইলি সেনারা নাবলুসের বালাতা শরণার্থী শিবিরে এক তরুণকে মাথায় গুলি করে হত্যা করেছে। সাম্প্রতিক মাসগুলোতে ইহুদিবাদী সেনারা নাবলুস এবং জেনিনসহ পশ্চিমতীরের বিভিন্ন এলাকায় বর্বর হামলা বাড়িয়ে দিয়েছে। তাদের এসব হামলায় অসংখ্য ফিলিস্তিনি নিহত এবং শত শত ফিলিস্তিনি আহত হয়েছেন।