ঢাকা , সোমবার, ০৪ মার্চ ২০২৪, ২১ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
Logo বন্দরে শ্লীলতাহানির ভিডিও ধারণ করে যুবতীকে ধর্ষণ, প্রধান আসামি গ্রেপ্তার Logo আড়াইহাজারে রেস্টুরেন্ট থেকে অপত্তিকর অবস্থায় ১৬ কিশোর কিশোরী আটক Logo সোনারগাঁয়ে ট্রাক চাপায় যুবক নিহত, চালক আটক Logo সোনারগাঁয়ের আলোচিত সাধন মিয়া হত্যা মামলায় দুইজনের মৃত্যুদন্ড ও একজনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড Logo বন্দর ১নং খেয়াঘাট মাঝি সমিতির নির্বাচন সম্পন্ন Logo আসন্ন উপজেলা নির্বাচনে মাকসুদ চেয়ারম্যান’র মত বিনিময় সভা ও উঠান বৈঠক Logo না’গঞ্জ জেলা জা’পা সভাপতি সানুর নাম ভাঙ্গিয়ে সুমন প্রধানের অপকর্ম রুখবে কে? Logo হুথিদের হামলায় লোহিত সাগরে ডুবে গেল সেই জাহাজ Logo রাতের লাইভের নেপথ্যের কারণ জানালেন তাহসান-ফারিণ Logo যেকোনো পরিস্থিতি মোকাবেলায় সশস্ত্র বাহিনীকে সক্ষম করে তোলা হচ্ছে : প্রধানমন্ত্রী

নাশকতা ঠেকাতে ব্যর্থ হয়ে বিরোধীপক্ষকে দোষারোপ করছে সরকার: জিএম কাদের

রাজধানীর গুলিস্তানে দুই ভবনে বিস্ফোরণ প্রসঙ্গে জাতীয় পার্টির (জাপা) চেয়ারম্যান ও বিরোধীদলীয় উপনেতা গোলাম মোহাম্মদ (জিএম) কাদের বলেছেন, সরকারি দলের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে বিরোধীপক্ষ আন্দোলনে ব্যর্থ হয়ে নাশকতা করছে কি না তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। আমরা প্রশ্ন হলো যদি নাশকতা হয়েই থাকে তাহলে সরকার তা ঠেকাতে পুরোপুরি ব্যর্থ। যারা নাশকতা ঠেকাতে ব্যর্থ হয়েছে তাদের বিরুদ্ধে কী ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে?। দেশের মানুষকে রক্ষা করতে না পারলে রাষ্ট্র তো শোক প্রকাশ করতে পারতো, স্বজনহারাদের সহানুভ‚তি জানানো যেতো। এখন ব্যর্থতা ঘোচাতে অপরকে দোষারোপ করা হচ্ছে। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যানের বনানী কার্যালয় মিলনায়তনে ‘আন্তর্জাতিক নারী দিবস’ এর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন তিনি। এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে জাতীয় মহিলা পার্টি।

রাজধানীর গুলিস্তানে দুই ভবনে বিস্ফোরণের ঘটনায় রাষ্ট্রীয় শোক প্রকাশ না করায় ক্ষোভপ্রকাশ করে জিএম কাদের বলেন, গুলিস্তানে ভয়াবহ বিস্ফোরণের ঘটনা নিয়ে একে অপরের বিরুদ্ধে দোষারোপের রাজনীতি শুরু করছে। দুর্ঘটনা ঘটলেই একে-অপরকে দোষারোপ। স্বজনহারাদের সহানুভ‚তি না জানিয়ে দেশে ফুর্তি চলছে। একদিকে আহাজারি, অন্যদিকে ফুর্তি। জিএম কাদের বলেন, আমরা নিহতদের যথাযথ ক্ষতিপূরণ এবং আহতদের সুচিকিৎসা নিশ্চিতে দাবি জানাচ্ছি। যারা ভয়াবহ দুর্ঘটনার জন্য দায়ী তাদের চিহ্নিত করা হচ্ছে না। যাদের ব্যর্থতা, অবহেলা, দায়িত্বহীনতা এমন অবস্থা সৃষ্টি হচ্ছে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে হবে। একটি দুর্ঘটনা ঘটলে তা থেকে শিক্ষা নিতে হয়, যাতে এমন আর না ঘটে। এসব ঘটনা নিয়ে তদন্ত কমিটি গঠন করা হলেও প্রতিবেদন কেউ জানেন না জানিতে তিনি বলেন, তদন্ত কমিটি কী সুপারিশ করলো কেউ জানেন না। কে দায়ী বা দায়ীর বিরুদ্ধে কী ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে তা কেউ জানতে পারেন না। এখন সব কিছুতেই গলদ। ভবন তৈরি হয় বিল্ডিং কোড মানা হয় না, গ্যাসের লাইন বৈধ না অবৈধ তার ঠিক নেই। এগুলো দেখাশোনার দায়িত্বে যাদের তাদের খোঁজ নেই। এত বড় দুর্ঘটনা ঘটছে কিন্তু কারণ উদঘটন করা সম্ভব হচ্ছে না। এর চেয়ে বড় ব্যর্থতা আর হতে পারে না।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

কামাল হোসাইন

হ্যালো আমি কামাল হোসাইন, আমি গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করছি। ২০১৭ সাল থেকে এই পত্রিকার সাথে কাজ করছি। এভাবে এখানে আপনার প্রতিনিধিদের সম্পর্কে কিছু লিখতে পারবেন।
জনপ্রিয় সংবাদ

বন্দরে শ্লীলতাহানির ভিডিও ধারণ করে যুবতীকে ধর্ষণ, প্রধান আসামি গ্রেপ্তার

নাশকতা ঠেকাতে ব্যর্থ হয়ে বিরোধীপক্ষকে দোষারোপ করছে সরকার: জিএম কাদের

আপডেট সময় ০৩:৩৫:৫৯ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১০ মার্চ ২০২৩

রাজধানীর গুলিস্তানে দুই ভবনে বিস্ফোরণ প্রসঙ্গে জাতীয় পার্টির (জাপা) চেয়ারম্যান ও বিরোধীদলীয় উপনেতা গোলাম মোহাম্মদ (জিএম) কাদের বলেছেন, সরকারি দলের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে বিরোধীপক্ষ আন্দোলনে ব্যর্থ হয়ে নাশকতা করছে কি না তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। আমরা প্রশ্ন হলো যদি নাশকতা হয়েই থাকে তাহলে সরকার তা ঠেকাতে পুরোপুরি ব্যর্থ। যারা নাশকতা ঠেকাতে ব্যর্থ হয়েছে তাদের বিরুদ্ধে কী ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে?। দেশের মানুষকে রক্ষা করতে না পারলে রাষ্ট্র তো শোক প্রকাশ করতে পারতো, স্বজনহারাদের সহানুভ‚তি জানানো যেতো। এখন ব্যর্থতা ঘোচাতে অপরকে দোষারোপ করা হচ্ছে। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যানের বনানী কার্যালয় মিলনায়তনে ‘আন্তর্জাতিক নারী দিবস’ এর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন তিনি। এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে জাতীয় মহিলা পার্টি।

রাজধানীর গুলিস্তানে দুই ভবনে বিস্ফোরণের ঘটনায় রাষ্ট্রীয় শোক প্রকাশ না করায় ক্ষোভপ্রকাশ করে জিএম কাদের বলেন, গুলিস্তানে ভয়াবহ বিস্ফোরণের ঘটনা নিয়ে একে অপরের বিরুদ্ধে দোষারোপের রাজনীতি শুরু করছে। দুর্ঘটনা ঘটলেই একে-অপরকে দোষারোপ। স্বজনহারাদের সহানুভ‚তি না জানিয়ে দেশে ফুর্তি চলছে। একদিকে আহাজারি, অন্যদিকে ফুর্তি। জিএম কাদের বলেন, আমরা নিহতদের যথাযথ ক্ষতিপূরণ এবং আহতদের সুচিকিৎসা নিশ্চিতে দাবি জানাচ্ছি। যারা ভয়াবহ দুর্ঘটনার জন্য দায়ী তাদের চিহ্নিত করা হচ্ছে না। যাদের ব্যর্থতা, অবহেলা, দায়িত্বহীনতা এমন অবস্থা সৃষ্টি হচ্ছে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে হবে। একটি দুর্ঘটনা ঘটলে তা থেকে শিক্ষা নিতে হয়, যাতে এমন আর না ঘটে। এসব ঘটনা নিয়ে তদন্ত কমিটি গঠন করা হলেও প্রতিবেদন কেউ জানেন না জানিতে তিনি বলেন, তদন্ত কমিটি কী সুপারিশ করলো কেউ জানেন না। কে দায়ী বা দায়ীর বিরুদ্ধে কী ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে তা কেউ জানতে পারেন না। এখন সব কিছুতেই গলদ। ভবন তৈরি হয় বিল্ডিং কোড মানা হয় না, গ্যাসের লাইন বৈধ না অবৈধ তার ঠিক নেই। এগুলো দেখাশোনার দায়িত্বে যাদের তাদের খোঁজ নেই। এত বড় দুর্ঘটনা ঘটছে কিন্তু কারণ উদঘটন করা সম্ভব হচ্ছে না। এর চেয়ে বড় ব্যর্থতা আর হতে পারে না।