ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

নারী শ্রমিবকে ধর্ষণ করে ভিডিও ধারণ করল গার্মেন্টস মালিক, গ্রেপ্তার

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় গার্মেন্টেসের ভিতর নিজ অফিস কক্ষে নারী শ্রমিককে ধর্ষণের অভিযোগে গার্মেন্টস মালিক মোঃ আমিনুল হক (৪৮) কে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গ্রেপ্তারকৃত আমিনুল হক ফতুল্লা মডেল থানার ধর্মগঞ্জ চতলার মাঠস্থ জিহাদ নিট ফ্যাশনের মালিক।

সোমাবার রাতে তাকে ফতুল্লার ধর্মগঞ্জ থেকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। এর আগে ভুক্তভোগী ঐ নারী শ্রমিক(২৩) বাদী হয়ে গ্রেপ্তারকৃত আমিনুল হক কে আসামি করে ফতুল্লা মডেল থানা মামলা দায়ের করেন।

 

মামলায় উল্লেখ করা হয়, বাদী ও তার স্বামী গ্রেপ্তারকৃত আমিনুল হকের মালিকানাধীন জিহাদ নিট ফ্যাশনে গত এক বছর ধরে চাকুরি করে আসছে। পরবর্তীতে গত ৬/৭ মাস ধরে প্রায় সময় বাদীর স্বামীকে ছুটি দিয়ে দিলেও বাদীকে রাত্রীকালীন সময়ে কাজে রেখে দিতো।

রাত্রিকালীন কাজে রাখার পর রাতের নাস্তার সাথে চেতনাশক বিভিন্ন ঔষধ মিশিয়ে বাদী কে খাওয়ানো হয়। এ অবস্থায় বাদীকে একাধিকবার ধর্ষণ সহ বিবস্ত্র ছবি এবং ভিডিও গ্রেপ্তারকৃতের মোবাইলে ধারণ করে রাখে। বাদী অচেতন থাকায় বিষয়টি বুঝতে পারেনি।

চলতি মাসের ৪ তারিখ রাত ৮ টা হতে ৫ এপ্রিল ভোর ৬ টা পর্যন্ত বাদী তার নাইট ডিউটি শেষে বাসায় চলে আসার সময় গ্রেপ্তারকৃত আমিনুল হক তার সাথে জরুরী কথা আছে বলে সকল শ্রমিকদেরকে ছুটি দিয়া বাদীকে যেতে নিষেধ করে।

 

সকল শ্রমিক চলে গেলে গ্রেপ্তারকৃত আমিনুল তার নিজ অফিস কক্ষে ডেকে নিয়ে ধারন করা ধর্ষনের ভিডিও দেখিয়ে বাদীকে পুনরায় ধর্ষন করে এবং এ ঘটনা কাউকে বললে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম অনলাইনে ছেড় দেওয়ার হুমকি প্রদান করে।

এ বিষয়ে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ফতুল্লা মডেল থানার উপপরিদর্শক সৈয়দ আজিজুল হক জানায়, অভিযুক্ত ধর্ষক কে সোমাবার রাতে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। মঙ্গলবার তাকে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

কামাল হোসাইন

হ্যালো আমি কামাল হোসাইন, আমি গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করছি। ২০১৭ সাল থেকে এই পত্রিকার সাথে কাজ করছি। এভাবে এখানে আপনার প্রতিনিধিদের সম্পর্কে কিছু লিখতে পারবেন।
জনপ্রিয় সংবাদ

নারী শ্রমিবকে ধর্ষণ করে ভিডিও ধারণ করল গার্মেন্টস মালিক, গ্রেপ্তার

আপডেট সময় ০৪:০০:১৩ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১২ এপ্রিল ২০২৩

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় গার্মেন্টেসের ভিতর নিজ অফিস কক্ষে নারী শ্রমিককে ধর্ষণের অভিযোগে গার্মেন্টস মালিক মোঃ আমিনুল হক (৪৮) কে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গ্রেপ্তারকৃত আমিনুল হক ফতুল্লা মডেল থানার ধর্মগঞ্জ চতলার মাঠস্থ জিহাদ নিট ফ্যাশনের মালিক।

সোমাবার রাতে তাকে ফতুল্লার ধর্মগঞ্জ থেকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। এর আগে ভুক্তভোগী ঐ নারী শ্রমিক(২৩) বাদী হয়ে গ্রেপ্তারকৃত আমিনুল হক কে আসামি করে ফতুল্লা মডেল থানা মামলা দায়ের করেন।

 

মামলায় উল্লেখ করা হয়, বাদী ও তার স্বামী গ্রেপ্তারকৃত আমিনুল হকের মালিকানাধীন জিহাদ নিট ফ্যাশনে গত এক বছর ধরে চাকুরি করে আসছে। পরবর্তীতে গত ৬/৭ মাস ধরে প্রায় সময় বাদীর স্বামীকে ছুটি দিয়ে দিলেও বাদীকে রাত্রীকালীন সময়ে কাজে রেখে দিতো।

রাত্রিকালীন কাজে রাখার পর রাতের নাস্তার সাথে চেতনাশক বিভিন্ন ঔষধ মিশিয়ে বাদী কে খাওয়ানো হয়। এ অবস্থায় বাদীকে একাধিকবার ধর্ষণ সহ বিবস্ত্র ছবি এবং ভিডিও গ্রেপ্তারকৃতের মোবাইলে ধারণ করে রাখে। বাদী অচেতন থাকায় বিষয়টি বুঝতে পারেনি।

চলতি মাসের ৪ তারিখ রাত ৮ টা হতে ৫ এপ্রিল ভোর ৬ টা পর্যন্ত বাদী তার নাইট ডিউটি শেষে বাসায় চলে আসার সময় গ্রেপ্তারকৃত আমিনুল হক তার সাথে জরুরী কথা আছে বলে সকল শ্রমিকদেরকে ছুটি দিয়া বাদীকে যেতে নিষেধ করে।

 

সকল শ্রমিক চলে গেলে গ্রেপ্তারকৃত আমিনুল তার নিজ অফিস কক্ষে ডেকে নিয়ে ধারন করা ধর্ষনের ভিডিও দেখিয়ে বাদীকে পুনরায় ধর্ষন করে এবং এ ঘটনা কাউকে বললে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম অনলাইনে ছেড় দেওয়ার হুমকি প্রদান করে।

এ বিষয়ে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ফতুল্লা মডেল থানার উপপরিদর্শক সৈয়দ আজিজুল হক জানায়, অভিযুক্ত ধর্ষক কে সোমাবার রাতে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। মঙ্গলবার তাকে আদালতে পাঠানো হয়েছে।