ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

নাঙ্গলকোটে দাড়ানো মালবাহী ট্রেনের পিছনে সোনারবাংলা ট্রেনের ধাক্কা : ৯ বগী লাইনচ্যুত , আহত কমপক্ষে ৫০

ঢাকা চট্টগ্রাম রেলপথের কুমিল্লার নাঙ্গলকোট উপজেলার হাসানপুর রেলস্টেশনে ঢাকাগামী মালবাহী ওয়াগন ট্রেনের পিছনে চট্টগ্রাম থেকে ছেড়ে আসা আন্তঃনগর এক্সপ্রেস ট্রেন সোনার বাংলা ট্রেন ধাক্কা দিলে দুই ট্রেনের ৯ বগী লাইনচ্যুত হয়ে
যায়।এতে কমপক্ষে শতাধিক যাত্রী আহত হওয়ার ঘটনা ঘটে।
রোববার সন্ধ্যা সাড়ে ৬ টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।
আহতরা হলেন,জিআরপি পুলিশের সহকারী উপ পরিদর্শক তানবীর,পুলিশ সদস্য আবসার,সোনার বাংলা ট্রেনের এ্যাটিন্ডান্ট সাইদুর রহমানসহ কমপক্ষে অর্ধশত আহত হয়েছে।

ঘটনার দেড় ঘন্টা পর লাকসাম থেকে ফায়ার সার্ভিসের লোকজন এসে তল্লাশি চালায় তবে কোন মরদেহ পাওয়া যায়নি। সংবাদ লেখা পর্যন্ত রাত পৌনে ৯ টা রেলওয়ের কোন কর্মকর্তাকে পাওয়া যায়নি। ঘটনার পর স্টেশন মাস্টারসহ লোকজন পলাতক রয়েছে।

সোনারবাংলা ট্রেনে কর্মরত জিআরপি পুলিশের সহকারী উপ পরিদর্শক তানবীর বলেন,ফেনী রেলস্টেশনে স্লো করে আমরা ইফতারী কিনি হাসানপুর রেলস্টেশনে প্রবেশের আগে ট্রেনটি আকাবাকা হয়ে ঢুলতে থাকে হঠাৎ বিকট শব্দ হয়।পরে দেখি ট্রেনটি এক্সিডেন্ট করছে আমরা আহত হই।
খবর পেয়ে উপজেলা চেয়ারম্যান সামছুদ্দিন কালু,ভাইস চেয়ারম্যান আবু ইউসূফ ভূইয়া,ইউপি চেয়ারম্যান আলমগীর হোসেন, নাজমুল হাসান ভূইয়া বাসির ঘটনাস্হল পরিদর্শন করেন।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

কামাল হোসাইন

হ্যালো আমি কামাল হোসাইন, আমি গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করছি। ২০১৭ সাল থেকে এই পত্রিকার সাথে কাজ করছি। এভাবে এখানে আপনার প্রতিনিধিদের সম্পর্কে কিছু লিখতে পারবেন।
জনপ্রিয় সংবাদ

নাঙ্গলকোটে দাড়ানো মালবাহী ট্রেনের পিছনে সোনারবাংলা ট্রেনের ধাক্কা : ৯ বগী লাইনচ্যুত , আহত কমপক্ষে ৫০

আপডেট সময় ০৪:০৯:২৩ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৩

ঢাকা চট্টগ্রাম রেলপথের কুমিল্লার নাঙ্গলকোট উপজেলার হাসানপুর রেলস্টেশনে ঢাকাগামী মালবাহী ওয়াগন ট্রেনের পিছনে চট্টগ্রাম থেকে ছেড়ে আসা আন্তঃনগর এক্সপ্রেস ট্রেন সোনার বাংলা ট্রেন ধাক্কা দিলে দুই ট্রেনের ৯ বগী লাইনচ্যুত হয়ে
যায়।এতে কমপক্ষে শতাধিক যাত্রী আহত হওয়ার ঘটনা ঘটে।
রোববার সন্ধ্যা সাড়ে ৬ টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।
আহতরা হলেন,জিআরপি পুলিশের সহকারী উপ পরিদর্শক তানবীর,পুলিশ সদস্য আবসার,সোনার বাংলা ট্রেনের এ্যাটিন্ডান্ট সাইদুর রহমানসহ কমপক্ষে অর্ধশত আহত হয়েছে।

ঘটনার দেড় ঘন্টা পর লাকসাম থেকে ফায়ার সার্ভিসের লোকজন এসে তল্লাশি চালায় তবে কোন মরদেহ পাওয়া যায়নি। সংবাদ লেখা পর্যন্ত রাত পৌনে ৯ টা রেলওয়ের কোন কর্মকর্তাকে পাওয়া যায়নি। ঘটনার পর স্টেশন মাস্টারসহ লোকজন পলাতক রয়েছে।

সোনারবাংলা ট্রেনে কর্মরত জিআরপি পুলিশের সহকারী উপ পরিদর্শক তানবীর বলেন,ফেনী রেলস্টেশনে স্লো করে আমরা ইফতারী কিনি হাসানপুর রেলস্টেশনে প্রবেশের আগে ট্রেনটি আকাবাকা হয়ে ঢুলতে থাকে হঠাৎ বিকট শব্দ হয়।পরে দেখি ট্রেনটি এক্সিডেন্ট করছে আমরা আহত হই।
খবর পেয়ে উপজেলা চেয়ারম্যান সামছুদ্দিন কালু,ভাইস চেয়ারম্যান আবু ইউসূফ ভূইয়া,ইউপি চেয়ারম্যান আলমগীর হোসেন, নাজমুল হাসান ভূইয়া বাসির ঘটনাস্হল পরিদর্শন করেন।