ঢাকা , মঙ্গলবার, ০৫ মার্চ ২০২৪, ২১ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
Logo বন্দরে শ্লীলতাহানির ভিডিও ধারণ করে যুবতীকে ধর্ষণ, প্রধান আসামি গ্রেপ্তার Logo আড়াইহাজারে রেস্টুরেন্ট থেকে অপত্তিকর অবস্থায় ১৬ কিশোর কিশোরী আটক Logo সোনারগাঁয়ে ট্রাক চাপায় যুবক নিহত, চালক আটক Logo সোনারগাঁয়ের আলোচিত সাধন মিয়া হত্যা মামলায় দুইজনের মৃত্যুদন্ড ও একজনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড Logo বন্দর ১নং খেয়াঘাট মাঝি সমিতির নির্বাচন সম্পন্ন Logo আসন্ন উপজেলা নির্বাচনে মাকসুদ চেয়ারম্যান’র মত বিনিময় সভা ও উঠান বৈঠক Logo না’গঞ্জ জেলা জা’পা সভাপতি সানুর নাম ভাঙ্গিয়ে সুমন প্রধানের অপকর্ম রুখবে কে? Logo হুথিদের হামলায় লোহিত সাগরে ডুবে গেল সেই জাহাজ Logo রাতের লাইভের নেপথ্যের কারণ জানালেন তাহসান-ফারিণ Logo যেকোনো পরিস্থিতি মোকাবেলায় সশস্ত্র বাহিনীকে সক্ষম করে তোলা হচ্ছে : প্রধানমন্ত্রী

ডেটিং অ্যাপে স্বস্তিকা, অ্যাকাউন্ট খুলে চ্যাট করলেন মেয়ে

১৯৯৮ সালে জনপ্রিয় রবীন্দ্র সংগীতশিল্পী সাগর সেনের ছেলে প্রমিত সেনকে বিয়ে করেন টলিউড অভিনেত্রী স্বস্তিকা মুখার্জি। বাবা-মায়ের পছন্দে এ বিয়ে করেছিলেন তিনি। কিন্তু কয়েক বছরের মধ্যে সংসার জীবনে ছন্দপতন ঘটে। দুধের শিশু কোলে নিয়ে শ্বশুরবাড়ি ছেড়ে চলে আসেন স্বস্তিকা। তারপর সিঙ্গেল মাদার হিসেবে কন্যা অন্বেষাকে বড় করেছেন এই নায়িকা। মেয়েই স্বস্তিকার বেস্ট ফ্রেন্ড। এবার মায়ের জীবনের একাকীত্ব কাটাতে ডেটিং অ্যাপে অ্যাকাউন্ট খুলে দিলেন অন্বেষা।

ডেটিং অ্যাপের যাবতীয় কর্মকাণ্ড সামলায় মেয়ে অন্বেষা। কেমন পুরুষ পছন্দ স্বস্তিকার, তার বিবরণ, প্রেমিকের প্রস্তাবে ‘রাইট সোয়্যাপ’, এমনকী সেইসব পুরুষদের সঙ্গে চ্যাটিং করেন অন্বেষা। কারো সঙ্গে বাস্তবে ডেটে না গেলেও পুরো প্রক্রিয়াটাই মা-মেয়ের কাছে বেশ মজার। এক সাক্ষাৎকারে স্বস্তিকা বলেন— ‘মেয়ে বলল মা তোমার জীবনে একটু স্পাইসি দরকার, একটু অ্যাকশন দরকার, বুঝলে।’

 

 

মুম্বাইয়ে বসে মা-মেয়ে মিলে ডেটিং অ্যাপে অ্যাকাউন্ট খুলে এসব করেছেন। তা জানিয়ে স্বস্তিকা মুখার্জি বলেন, ‘মুম্বাইতে বসে দুজনে মিলে এসব ফালতু কাজ করেছি। কিন্তু কলকাতায় তো আর সম্ভব নয়। আমি এত ব্যাপার-স্যাপার বুঝি না। কিন্তু কলকাতায় পৌঁছালে ওখানকার লোকজন অ্যাকাউন্ট দেখতে পাবে বা এমন কিছু মেকানিজম রয়েছে। প্লেন থেকে নেমে ফোন অন করতেই মেয়ের ৭০টা মেসেজ দেখে ঘাবড়ে যাই। লগ-আউটের বদলে সোজা ফোন থেকে অ্যাপটা ডিলিট করে দিই। কিন্তু প্রোফাইল বহাল তবিয়তে রয়েছে।’

 

 

এরপর স্বস্তিকার ফেসবুক, ইনস্টাগ্রামে অসংখ্য মেসেজ আসতে থাকে। লোকজন সচেতন করে স্বস্তিকাকে জানান, ‘ম্যাডাম আপনার নামে ডেটিং সাইটে কেউ ভুয়া অ্যাকাউন্ট খুলেছে, আমি সেটার রিপোর্ট করেছি।’ হাসতে হাসতে স্বস্তিকা বলেন, ‘রিপোর্ট করার দরকার নেই। ওটা অরিজিন্যাল আমি। যাদের ওইসব সোয়্যাপ করার ইচ্ছা হবে করে দিও, আমি নিশ্চয় দেখব।’

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

কামাল হোসাইন

হ্যালো আমি কামাল হোসাইন, আমি গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করছি। ২০১৭ সাল থেকে এই পত্রিকার সাথে কাজ করছি। এভাবে এখানে আপনার প্রতিনিধিদের সম্পর্কে কিছু লিখতে পারবেন।
জনপ্রিয় সংবাদ

বন্দরে শ্লীলতাহানির ভিডিও ধারণ করে যুবতীকে ধর্ষণ, প্রধান আসামি গ্রেপ্তার

ডেটিং অ্যাপে স্বস্তিকা, অ্যাকাউন্ট খুলে চ্যাট করলেন মেয়ে

আপডেট সময় ০৩:৫৫:৩৬ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৩

১৯৯৮ সালে জনপ্রিয় রবীন্দ্র সংগীতশিল্পী সাগর সেনের ছেলে প্রমিত সেনকে বিয়ে করেন টলিউড অভিনেত্রী স্বস্তিকা মুখার্জি। বাবা-মায়ের পছন্দে এ বিয়ে করেছিলেন তিনি। কিন্তু কয়েক বছরের মধ্যে সংসার জীবনে ছন্দপতন ঘটে। দুধের শিশু কোলে নিয়ে শ্বশুরবাড়ি ছেড়ে চলে আসেন স্বস্তিকা। তারপর সিঙ্গেল মাদার হিসেবে কন্যা অন্বেষাকে বড় করেছেন এই নায়িকা। মেয়েই স্বস্তিকার বেস্ট ফ্রেন্ড। এবার মায়ের জীবনের একাকীত্ব কাটাতে ডেটিং অ্যাপে অ্যাকাউন্ট খুলে দিলেন অন্বেষা।

ডেটিং অ্যাপের যাবতীয় কর্মকাণ্ড সামলায় মেয়ে অন্বেষা। কেমন পুরুষ পছন্দ স্বস্তিকার, তার বিবরণ, প্রেমিকের প্রস্তাবে ‘রাইট সোয়্যাপ’, এমনকী সেইসব পুরুষদের সঙ্গে চ্যাটিং করেন অন্বেষা। কারো সঙ্গে বাস্তবে ডেটে না গেলেও পুরো প্রক্রিয়াটাই মা-মেয়ের কাছে বেশ মজার। এক সাক্ষাৎকারে স্বস্তিকা বলেন— ‘মেয়ে বলল মা তোমার জীবনে একটু স্পাইসি দরকার, একটু অ্যাকশন দরকার, বুঝলে।’

 

 

মুম্বাইয়ে বসে মা-মেয়ে মিলে ডেটিং অ্যাপে অ্যাকাউন্ট খুলে এসব করেছেন। তা জানিয়ে স্বস্তিকা মুখার্জি বলেন, ‘মুম্বাইতে বসে দুজনে মিলে এসব ফালতু কাজ করেছি। কিন্তু কলকাতায় তো আর সম্ভব নয়। আমি এত ব্যাপার-স্যাপার বুঝি না। কিন্তু কলকাতায় পৌঁছালে ওখানকার লোকজন অ্যাকাউন্ট দেখতে পাবে বা এমন কিছু মেকানিজম রয়েছে। প্লেন থেকে নেমে ফোন অন করতেই মেয়ের ৭০টা মেসেজ দেখে ঘাবড়ে যাই। লগ-আউটের বদলে সোজা ফোন থেকে অ্যাপটা ডিলিট করে দিই। কিন্তু প্রোফাইল বহাল তবিয়তে রয়েছে।’

 

 

এরপর স্বস্তিকার ফেসবুক, ইনস্টাগ্রামে অসংখ্য মেসেজ আসতে থাকে। লোকজন সচেতন করে স্বস্তিকাকে জানান, ‘ম্যাডাম আপনার নামে ডেটিং সাইটে কেউ ভুয়া অ্যাকাউন্ট খুলেছে, আমি সেটার রিপোর্ট করেছি।’ হাসতে হাসতে স্বস্তিকা বলেন, ‘রিপোর্ট করার দরকার নেই। ওটা অরিজিন্যাল আমি। যাদের ওইসব সোয়্যাপ করার ইচ্ছা হবে করে দিও, আমি নিশ্চয় দেখব।’