ঢাকা , শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে সাংবাদিক শামসুজ্জামানের বিরুদ্ধে মামলা

প্রথম আলোর সাংবাদিক শামসুজ্জামান শামসের বিরুদ্ধে রাজধানীর তেজগাঁও থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করা হয়েছে। গতকাল বুধবার গোলাম কিবরিয়া নামে এক ব্যক্তি বাদি হয়ে এ মামলা করেন। গতকাল সচিবালয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান কামাল সাংবাদিকদের বলেন, আইন নিজস্ব গতিতে চলে। আইন অনুযায়ী রাষ্ট্রসহ সবই চলে। কেউ যদি সংক্ষুব্ধ হয়ে বিচার চায়, কিংবা সংক্ষুব্ধ হয়ে থানায় মামলা করে, সেই অনুযায়ী পুলিশ ব্যবস্থা নিতেই পারে। আমি যতটুকু জানি, একটা মামলা রুজু হয়েছে।

বুধবার ভোরে সাভারের বাসা থেকে শামসুজ্জামানকে সিআইডি পরিচয়ে তোলে নেয়া হয়। প্রথম আলোর নিজস্ব প্রতিবেদক শামসুজ্জামান শামসের বিরুদ্ধে ডিজিটাল সিকিউরিটি আইনে মামলা হয়েছে। বুধবার রাজধানীর তেজগাঁও থানায় এই মামলা দায়ের করেন সৈয়দ গোলাম কিবরিয়া নামের এক ব্যক্তি। পেটে ভাত না থাকলে স্বাধীনতা দিয়া কী করমু? শিরোনামে সংবাদ করায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের ২৫(২), ২৬(২), ২৯(১), ৩১(২) এবং ৩৫(২) ধারায় অভিযোগ এনে মামলাটি করা হয়। তেজগাঁও থানার মামলা নম্বর-৫৮।

যা আছে মামলার এজাহারে: মামলার এজাহারে সৈয়দ গোলাম কিবরিয়া অভিযোগ করেছেন, গত ২৬ মার্চ মহান স্বাধীনতা দিবসে দৈনিক প্রথম আলোর ওয়েবসাইটে একটি ছবিসহ সংবাদ প্রকাশের পাশাপাশি তাদের ফেসবুক পেজ থেকে শেয়ার করে। ওই সংবাদে দেখা যায়, একটি শিশু ফুল হাতে জাতীয় স্মৃতিসৌধের ফটকে দাঁড়িয়ে আছে। প্রতিবেদকের দাবি সেই শিশুটির নাম জাকির হোসেন। প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়, শিশু জাকির হোসেন বলে-‘পেটে ভাত না জুটলে স্বাধীনতা দিয়া কি করুম। বাজারে গেলে ঘাম ছুটে যায়। আমাগো মাছ, মাংস আর চাইলের স্বাধীনতা লাগব।

সামাজিক মাধ্যমে সংবাদটি ভাইরাল হয়ে যায়। ওই সংবাদটি যা দেশ-বিদেশে অবস্থানরত হাজার হাজার মানুষ তাদের ব্যবহৃত সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে স্ক্রিনশটসহ শেয়ার করেন। এই ঘটনায় বাংলাদেশের মহান স্বাধীনতা দিবসে বাংলাদেশের সোনালী গৌরবোজ্জ্বল ভাবমূর্তি নিয়ে বাংলাদেশের জনগণসহ বহিঃবিশ্বে বিরূপ প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়।

উল্লেখ্য, বুধবার ভোর ৫টার দিকে আশুলিয়ায় আমবাগানের বাসা থেকে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগের (সিআইডি) সদস্য পরিচয় দিয়ে প্রথম আলোর সাভার প্রতিবেদক শামসুজ্জামান শামসকে বাসা থেকে তুলে নিয়ে যাওয়া হয়।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

কামাল হোসাইন

হ্যালো আমি কামাল হোসাইন, আমি গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করছি। ২০১৭ সাল থেকে এই পত্রিকার সাথে কাজ করছি। এভাবে এখানে আপনার প্রতিনিধিদের সম্পর্কে কিছু লিখতে পারবেন।
জনপ্রিয় সংবাদ

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে সাংবাদিক শামসুজ্জামানের বিরুদ্ধে মামলা

আপডেট সময় ০৩:৪৬:৩৪ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ মার্চ ২০২৩

প্রথম আলোর সাংবাদিক শামসুজ্জামান শামসের বিরুদ্ধে রাজধানীর তেজগাঁও থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করা হয়েছে। গতকাল বুধবার গোলাম কিবরিয়া নামে এক ব্যক্তি বাদি হয়ে এ মামলা করেন। গতকাল সচিবালয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান কামাল সাংবাদিকদের বলেন, আইন নিজস্ব গতিতে চলে। আইন অনুযায়ী রাষ্ট্রসহ সবই চলে। কেউ যদি সংক্ষুব্ধ হয়ে বিচার চায়, কিংবা সংক্ষুব্ধ হয়ে থানায় মামলা করে, সেই অনুযায়ী পুলিশ ব্যবস্থা নিতেই পারে। আমি যতটুকু জানি, একটা মামলা রুজু হয়েছে।

বুধবার ভোরে সাভারের বাসা থেকে শামসুজ্জামানকে সিআইডি পরিচয়ে তোলে নেয়া হয়। প্রথম আলোর নিজস্ব প্রতিবেদক শামসুজ্জামান শামসের বিরুদ্ধে ডিজিটাল সিকিউরিটি আইনে মামলা হয়েছে। বুধবার রাজধানীর তেজগাঁও থানায় এই মামলা দায়ের করেন সৈয়দ গোলাম কিবরিয়া নামের এক ব্যক্তি। পেটে ভাত না থাকলে স্বাধীনতা দিয়া কী করমু? শিরোনামে সংবাদ করায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের ২৫(২), ২৬(২), ২৯(১), ৩১(২) এবং ৩৫(২) ধারায় অভিযোগ এনে মামলাটি করা হয়। তেজগাঁও থানার মামলা নম্বর-৫৮।

যা আছে মামলার এজাহারে: মামলার এজাহারে সৈয়দ গোলাম কিবরিয়া অভিযোগ করেছেন, গত ২৬ মার্চ মহান স্বাধীনতা দিবসে দৈনিক প্রথম আলোর ওয়েবসাইটে একটি ছবিসহ সংবাদ প্রকাশের পাশাপাশি তাদের ফেসবুক পেজ থেকে শেয়ার করে। ওই সংবাদে দেখা যায়, একটি শিশু ফুল হাতে জাতীয় স্মৃতিসৌধের ফটকে দাঁড়িয়ে আছে। প্রতিবেদকের দাবি সেই শিশুটির নাম জাকির হোসেন। প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়, শিশু জাকির হোসেন বলে-‘পেটে ভাত না জুটলে স্বাধীনতা দিয়া কি করুম। বাজারে গেলে ঘাম ছুটে যায়। আমাগো মাছ, মাংস আর চাইলের স্বাধীনতা লাগব।

সামাজিক মাধ্যমে সংবাদটি ভাইরাল হয়ে যায়। ওই সংবাদটি যা দেশ-বিদেশে অবস্থানরত হাজার হাজার মানুষ তাদের ব্যবহৃত সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে স্ক্রিনশটসহ শেয়ার করেন। এই ঘটনায় বাংলাদেশের মহান স্বাধীনতা দিবসে বাংলাদেশের সোনালী গৌরবোজ্জ্বল ভাবমূর্তি নিয়ে বাংলাদেশের জনগণসহ বহিঃবিশ্বে বিরূপ প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়।

উল্লেখ্য, বুধবার ভোর ৫টার দিকে আশুলিয়ায় আমবাগানের বাসা থেকে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগের (সিআইডি) সদস্য পরিচয় দিয়ে প্রথম আলোর সাভার প্রতিবেদক শামসুজ্জামান শামসকে বাসা থেকে তুলে নিয়ে যাওয়া হয়।