ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

জামালপুরে আ.লীগ-বিএনপি সংঘর্ষে আহত ২৭

জামালপুরে আওয়ামী লীগ ও বিএনপির সংঘর্ষে পুলিশসহ উভয় পক্ষের অন্তত ২৭ জন আহত হয়েছেন। শনিবার (১১ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে সদর উপজেলার তিতপল্লা ইউনিয়নের কামালখান বাজারে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় ইউনিয়ন বিএনপির সাধারণ সম্পাদক হযরত আলীসহ ছয় জনকে আটক করেছে পুলিশ।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, দুপুরে তিতপল্লা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের শান্তি সমাবেশ ও ইউনিয়ন বিএনপির পদযাত্রা কর্মসূচি চলাকালে উভয়পক্ষের হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। পরে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষ হয়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে শটগানের গুলি ও টিয়ারশেল নিক্ষেপ করে পুলিশ।

তিতপল্লা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক দৌলতুজ্জামান বলেন, ‘দুপুরে আমাদের শান্তি সমাবেশে হামলা চালিয়েছেন বিএনপি নেতাকর্মীরা। এতে আমিসহ ছয় জন আহত হয়েছি। সেইসঙ্গে গুলি ও টিয়ারশেল নিক্ষেপ করেছে পুলিশ।’

তবে এ অভিযোগ অস্বীকার করে জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট শাহ মো. ওয়ারেছ আলী মামুন বলেন, ‘তিতপল্লা ইউনিয়নে বিএনপির পদযাত্রা কর্মসূচির প্রস্তুতিকালে লাঠিসোঁটা নিয়ে হামলা চালান আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা। তারা হামলা চালিয়ে এখন আমাদের ওপর দোষ চাপাচ্ছে। খবর পেয়ে সেখানে গিয়ে গুলি ও টিয়ারশেল নিক্ষেপ করে পুলিশ। এ ঘটনায় বিএনপির ২০ নেতাকর্মী আহত হয়েছেন। এ ছাড়া সদর উপজেলার দিগপাইত, ঘোড়াধাপ, বাঁশচড়া এবং মেলান্দহের ঝাউগড়া ইউনিয়নেও বিএনপির পদযাত্রা কর্মসূচিতে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা বাধা দিয়েছেন। পাশাপাশি হামলা করেছেন।’

সদর থানার ওসি কাজী শাহনেওয়াজ বলেন, ‘আওয়ামী লীগের সমাবেশে বিএনপি নেতাকর্মীরা হামলা করলে পুলিশ অবস্থান নেয়। পরে বিএনপি নেতাকর্মীরা পুলিশ ও আওয়ামী লীগের ওপর হামলা করে ও ইট-পাটকেল ছোড়ে। এতে এক পুলিশ সদস্যসহ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আহত হন। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ৩৪ রাউন্ড গুলি ও চার রাউন্ড টিয়ারশেল নিক্ষেপ করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় ইউনিয়ন বিএনপির সাধারণ সম্পাদক হযরত আলীসহ ছয় জনকে আটক করা হয়েছে।’

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

কামাল হোসাইন

হ্যালো আমি কামাল হোসাইন, আমি গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করছি। ২০১৭ সাল থেকে এই পত্রিকার সাথে কাজ করছি। এভাবে এখানে আপনার প্রতিনিধিদের সম্পর্কে কিছু লিখতে পারবেন।
জনপ্রিয় সংবাদ

জামালপুরে আ.লীগ-বিএনপি সংঘর্ষে আহত ২৭

আপডেট সময় ০৪:০৩:৪৮ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১২ ফেব্রুয়ারী ২০২৩

জামালপুরে আওয়ামী লীগ ও বিএনপির সংঘর্ষে পুলিশসহ উভয় পক্ষের অন্তত ২৭ জন আহত হয়েছেন। শনিবার (১১ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে সদর উপজেলার তিতপল্লা ইউনিয়নের কামালখান বাজারে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় ইউনিয়ন বিএনপির সাধারণ সম্পাদক হযরত আলীসহ ছয় জনকে আটক করেছে পুলিশ।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, দুপুরে তিতপল্লা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের শান্তি সমাবেশ ও ইউনিয়ন বিএনপির পদযাত্রা কর্মসূচি চলাকালে উভয়পক্ষের হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। পরে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষ হয়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে শটগানের গুলি ও টিয়ারশেল নিক্ষেপ করে পুলিশ।

তিতপল্লা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক দৌলতুজ্জামান বলেন, ‘দুপুরে আমাদের শান্তি সমাবেশে হামলা চালিয়েছেন বিএনপি নেতাকর্মীরা। এতে আমিসহ ছয় জন আহত হয়েছি। সেইসঙ্গে গুলি ও টিয়ারশেল নিক্ষেপ করেছে পুলিশ।’

তবে এ অভিযোগ অস্বীকার করে জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট শাহ মো. ওয়ারেছ আলী মামুন বলেন, ‘তিতপল্লা ইউনিয়নে বিএনপির পদযাত্রা কর্মসূচির প্রস্তুতিকালে লাঠিসোঁটা নিয়ে হামলা চালান আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা। তারা হামলা চালিয়ে এখন আমাদের ওপর দোষ চাপাচ্ছে। খবর পেয়ে সেখানে গিয়ে গুলি ও টিয়ারশেল নিক্ষেপ করে পুলিশ। এ ঘটনায় বিএনপির ২০ নেতাকর্মী আহত হয়েছেন। এ ছাড়া সদর উপজেলার দিগপাইত, ঘোড়াধাপ, বাঁশচড়া এবং মেলান্দহের ঝাউগড়া ইউনিয়নেও বিএনপির পদযাত্রা কর্মসূচিতে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা বাধা দিয়েছেন। পাশাপাশি হামলা করেছেন।’

সদর থানার ওসি কাজী শাহনেওয়াজ বলেন, ‘আওয়ামী লীগের সমাবেশে বিএনপি নেতাকর্মীরা হামলা করলে পুলিশ অবস্থান নেয়। পরে বিএনপি নেতাকর্মীরা পুলিশ ও আওয়ামী লীগের ওপর হামলা করে ও ইট-পাটকেল ছোড়ে। এতে এক পুলিশ সদস্যসহ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আহত হন। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ৩৪ রাউন্ড গুলি ও চার রাউন্ড টিয়ারশেল নিক্ষেপ করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় ইউনিয়ন বিএনপির সাধারণ সম্পাদক হযরত আলীসহ ছয় জনকে আটক করা হয়েছে।’