ঢাকা , মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ৩ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

জব্বারের বলী খেলা কাল, জমে উঠেছে বৈশাখী মেলা

বন্দরনগরী চট্টগ্রামে শতবর্ষ ধরে চলমান ঐতিহ্যবাহী জব্বারের বলী খেলা উপলক্ষে লালদীঘির মাঠ ঘিরে জমে উঠেছে তিন দিনের বৈশাখী মেলা। আগামীকাল মঙ্গলবার (২৫ এপ্রিল) এই মাঠে অনুষ্ঠিত হবে ঐতিহাসিক জব্বারের বলি খেলা।

জব্বারের বলী খেলার এটি হবে ১১৪ তম আসর।

এদিকে, বলী খেলার জন্য প্রস্তুত হয়েছে লালদীঘির ময়দানের সুউচ্চ মঞ্চ। বিকেল ৩টা থেকে শুরু হতে যাওয়া এই খেলায় সারা দেশ থেকে কয়েকশ স্বাস্থ্যবান বলী অংশগ্রহণ করবে বলে আশা করছেন সংশ্লিষ্টরা।

 

আব্দুল জব্বার স্মৃতি কুস্তি প্রতিযোগিতা ও বৈশাখী মেলা কমিটির সহ-সভাপতি চৌধুরী ফরিদ জানান, জব্বারের বলী খেলা উপলক্ষ্যে সোমবার (২৪ এপ্রিল) থেকে লালদীঘির মাঠ ও কয়েক কিলোমিটার এলাকাজুড়ে বৈশাখী মেলা শুরু হয়েছে। আগামীকাল (মঙ্গলবার) বিকেল ৩টা থেকে বলী খেলার মূল প্রতিযোগিতা শুরু হবে লালদীঘি মাঠের সুউচ্চ বিশেষ মঞ্চে। ইতোমধ্যে বাঁশ ও বালি দিয়ে মাঠে বলী খেলার মঞ্চ (রিং) তৈরি হয়েছে।

তিনি আরও জানান, ২৬ এপ্রিল হবে চাঁটগাইয়া ঈদ উৎসব। বলী খেলা ছাড়া মেলা বসেছে মূল মাঠের বাইরেও। তিন দিনের বৈশাখী মেলায় সারা দেশ থেকে বিভিন্ন ধরনের পণ্য নিয়ে পসরা সাজিয়েছেন ব্যবসায়ীরা। তীব্র রোদ গরম উপেক্ষা করে বৈশাখী মেলায় জমজমাট ভাবে শুরু হয়েছে বেচাকেনা।

 

প্রসঙ্গত, ব্রিটিশবিরোধী আন্দোলনে যুব সমাজকে সংগঠিত করতে ১৯০৯ সালে বক্সিরহাট এলাকার স্থানীয় আব্দুল জব্বার সওদাগর চট্টগ্রাম নগরীর লালদীঘি মাঠে আয়োজন করেন কুস্তি প্রতিযোগিতা। যা সময়ের পরিক্রমায় জব্বারের বলী খেলা নামে খ্যাতি অর্জন করে। পঞ্জিকা অনুসারে বৈশাখের ১২ তারিখে লালদীঘির ময়দানে বলী খেলা হয়। এই উপলক্ষে তিনদিন ধরে চলে মেলা।

করোনার কারণে ২০২০ ও ২০২১ সালে জব্বারের বলী খেলা ও মেলার আয়োজন হয়নি। লালদীঘির মাঠের উন্নয়নের জন্য ২০২২ সালে বলী খেলা অনুষ্ঠিত হয় মূল মাঠের বাইরে। সর্বশেষ তিন বছর পর লালদিঘীর মাঠে ফিরছে ঐতিহাসিক জব্বারের বলী খেলা।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

কামাল হোসাইন

হ্যালো আমি কামাল হোসাইন, আমি গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করছি। ২০১৭ সাল থেকে এই পত্রিকার সাথে কাজ করছি। এভাবে এখানে আপনার প্রতিনিধিদের সম্পর্কে কিছু লিখতে পারবেন।

জব্বারের বলী খেলা কাল, জমে উঠেছে বৈশাখী মেলা

আপডেট সময় ০৩:৩৩:৫২ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৩

বন্দরনগরী চট্টগ্রামে শতবর্ষ ধরে চলমান ঐতিহ্যবাহী জব্বারের বলী খেলা উপলক্ষে লালদীঘির মাঠ ঘিরে জমে উঠেছে তিন দিনের বৈশাখী মেলা। আগামীকাল মঙ্গলবার (২৫ এপ্রিল) এই মাঠে অনুষ্ঠিত হবে ঐতিহাসিক জব্বারের বলি খেলা।

জব্বারের বলী খেলার এটি হবে ১১৪ তম আসর।

এদিকে, বলী খেলার জন্য প্রস্তুত হয়েছে লালদীঘির ময়দানের সুউচ্চ মঞ্চ। বিকেল ৩টা থেকে শুরু হতে যাওয়া এই খেলায় সারা দেশ থেকে কয়েকশ স্বাস্থ্যবান বলী অংশগ্রহণ করবে বলে আশা করছেন সংশ্লিষ্টরা।

 

আব্দুল জব্বার স্মৃতি কুস্তি প্রতিযোগিতা ও বৈশাখী মেলা কমিটির সহ-সভাপতি চৌধুরী ফরিদ জানান, জব্বারের বলী খেলা উপলক্ষ্যে সোমবার (২৪ এপ্রিল) থেকে লালদীঘির মাঠ ও কয়েক কিলোমিটার এলাকাজুড়ে বৈশাখী মেলা শুরু হয়েছে। আগামীকাল (মঙ্গলবার) বিকেল ৩টা থেকে বলী খেলার মূল প্রতিযোগিতা শুরু হবে লালদীঘি মাঠের সুউচ্চ বিশেষ মঞ্চে। ইতোমধ্যে বাঁশ ও বালি দিয়ে মাঠে বলী খেলার মঞ্চ (রিং) তৈরি হয়েছে।

তিনি আরও জানান, ২৬ এপ্রিল হবে চাঁটগাইয়া ঈদ উৎসব। বলী খেলা ছাড়া মেলা বসেছে মূল মাঠের বাইরেও। তিন দিনের বৈশাখী মেলায় সারা দেশ থেকে বিভিন্ন ধরনের পণ্য নিয়ে পসরা সাজিয়েছেন ব্যবসায়ীরা। তীব্র রোদ গরম উপেক্ষা করে বৈশাখী মেলায় জমজমাট ভাবে শুরু হয়েছে বেচাকেনা।

 

প্রসঙ্গত, ব্রিটিশবিরোধী আন্দোলনে যুব সমাজকে সংগঠিত করতে ১৯০৯ সালে বক্সিরহাট এলাকার স্থানীয় আব্দুল জব্বার সওদাগর চট্টগ্রাম নগরীর লালদীঘি মাঠে আয়োজন করেন কুস্তি প্রতিযোগিতা। যা সময়ের পরিক্রমায় জব্বারের বলী খেলা নামে খ্যাতি অর্জন করে। পঞ্জিকা অনুসারে বৈশাখের ১২ তারিখে লালদীঘির ময়দানে বলী খেলা হয়। এই উপলক্ষে তিনদিন ধরে চলে মেলা।

করোনার কারণে ২০২০ ও ২০২১ সালে জব্বারের বলী খেলা ও মেলার আয়োজন হয়নি। লালদীঘির মাঠের উন্নয়নের জন্য ২০২২ সালে বলী খেলা অনুষ্ঠিত হয় মূল মাঠের বাইরে। সর্বশেষ তিন বছর পর লালদিঘীর মাঠে ফিরছে ঐতিহাসিক জব্বারের বলী খেলা।