ঢাকা , বুধবার, ২৯ মে ২০২৪, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

জজ বিচার বিক্রি করলে সঙ্গে সঙ্গে ব্যবস্থা: প্রধান বিচারপতি

বিচারকদের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ পেলে সঙ্গে সঙ্গে ব্যবস্থা নেওয়া হবে উল্লেখ করে প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী বলেছেন, যে জজ বিচার বিক্রি করবেন তার বিরুদ্ধে সঙ্গে সঙ্গে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

বুধবার দুপুরে ঝিনাইদহ বার ভবনে আইনজীবীদের সঙ্গে মতবিমিয়কালে তিনি এসব কথা বলেন।

প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী দুর্নীতিকে ক্যান্সারের সাথে তুলনা করে বলেন, বিচার বিভাগের কেউ দুর্নীতি করলে তাকে রাখা হবে না।

মতবিনিময় সভায় প্রধান বিচারপতি আরও বলেন, আমি মনে করি একজন ডাকাত চড়-থাপ্পড় মেরে গয়নাগাটি টাকাপয়সা নিয়ে যায়, কিন্তু একজন জজ যদি বিচার করে একজনের সম্পত্তি আরেকজনকে দিয়ে যায় পয়সার বিনিময়ে তাহলে ভুক্তভোগী তো সাফার করেই, পরের প্রজন্মকেও সাফার করতে হয়। আমার কাছে মনে হয় ওই দুর্নীতিগ্রস্ত বিচারক ডাকাতের চেয়েও খারাপ।

প্রসঙ্গ টেনে প্রধান বিচারপতি উপস্থিত সবার উদ্দেশ্যে বলেন, আপনারা অভিযোগ পেলে সঙ্গে সঙ্গে জানান। তদন্ত করে ওই বিচারকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে এবং তাকে (অভিযুক্ত) বিচারককে বিচার বিভাগে রাখা হবে না বলে দৃঢ়প্রত্যয় ব্যক্ত করেন তিনি (প্রধান বিচারপতি)।

সভায় জেলা ও দায়রা জজ নাজিমুদৌলা, জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি রবিউল ইসলাম, পিপি ইসমাইল হোসেন ও নবীন-প্রবীণ আইনজীবীসহ অন্যরা বক্তব্য রাখেন।

এর আগে প্রধান বিচারপতি আদালত এলাকা পরিদর্শন করেন। এ সময় ন্যায়কুঞ্জ নামের একটি ভবনের আনুষ্ঠানিকভাবে ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন এবং আদালত প্রাঙ্গণে একটি গাছের চারা রোপণ করেন।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

কামাল হোসাইন

হ্যালো আমি কামাল হোসাইন, আমি গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করছি। ২০১৭ সাল থেকে এই পত্রিকার সাথে কাজ করছি। এভাবে এখানে আপনার প্রতিনিধিদের সম্পর্কে কিছু লিখতে পারবেন।
জনপ্রিয় সংবাদ

জজ বিচার বিক্রি করলে সঙ্গে সঙ্গে ব্যবস্থা: প্রধান বিচারপতি

আপডেট সময় ০৪:৪০:২০ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৩

বিচারকদের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ পেলে সঙ্গে সঙ্গে ব্যবস্থা নেওয়া হবে উল্লেখ করে প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী বলেছেন, যে জজ বিচার বিক্রি করবেন তার বিরুদ্ধে সঙ্গে সঙ্গে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

বুধবার দুপুরে ঝিনাইদহ বার ভবনে আইনজীবীদের সঙ্গে মতবিমিয়কালে তিনি এসব কথা বলেন।

প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী দুর্নীতিকে ক্যান্সারের সাথে তুলনা করে বলেন, বিচার বিভাগের কেউ দুর্নীতি করলে তাকে রাখা হবে না।

মতবিনিময় সভায় প্রধান বিচারপতি আরও বলেন, আমি মনে করি একজন ডাকাত চড়-থাপ্পড় মেরে গয়নাগাটি টাকাপয়সা নিয়ে যায়, কিন্তু একজন জজ যদি বিচার করে একজনের সম্পত্তি আরেকজনকে দিয়ে যায় পয়সার বিনিময়ে তাহলে ভুক্তভোগী তো সাফার করেই, পরের প্রজন্মকেও সাফার করতে হয়। আমার কাছে মনে হয় ওই দুর্নীতিগ্রস্ত বিচারক ডাকাতের চেয়েও খারাপ।

প্রসঙ্গ টেনে প্রধান বিচারপতি উপস্থিত সবার উদ্দেশ্যে বলেন, আপনারা অভিযোগ পেলে সঙ্গে সঙ্গে জানান। তদন্ত করে ওই বিচারকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে এবং তাকে (অভিযুক্ত) বিচারককে বিচার বিভাগে রাখা হবে না বলে দৃঢ়প্রত্যয় ব্যক্ত করেন তিনি (প্রধান বিচারপতি)।

সভায় জেলা ও দায়রা জজ নাজিমুদৌলা, জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি রবিউল ইসলাম, পিপি ইসমাইল হোসেন ও নবীন-প্রবীণ আইনজীবীসহ অন্যরা বক্তব্য রাখেন।

এর আগে প্রধান বিচারপতি আদালত এলাকা পরিদর্শন করেন। এ সময় ন্যায়কুঞ্জ নামের একটি ভবনের আনুষ্ঠানিকভাবে ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন এবং আদালত প্রাঙ্গণে একটি গাছের চারা রোপণ করেন।