ঢাকা , শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ৬ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ছুটির দিনে বইমেলায় উপচেপড়া ভিড়

অমর একুশে বইমেলার ১৭তম দিন আজ। শুক্রবার ছুটির দিনে মেলায় পাঠক, লেখক, প্রকাশ ও দর্শনার্থীদের ভিড় বেড়েছে। দিন গড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে মেলায় ভিড় বাড়ছে। ঘোরাঘুরির পাশাপাশি পছন্দের বই কিনছেন অনেকে। প্রকাশক ও লেখকরা জানান, সময় যত যাচ্ছে পাঠকের ভিড়ও বাড়ছে।
শুক্রবার (১৭ ফেব্রæয়ারি) অমর একুশে বইমেলায় গিয়ে এমন চিত্রই দেখা গেছে।

এ বছর নির্ধারিত সময়ে শুরু হয়েছে অমর একুশে বইমেলা। এরই মধ্যে মেলার অর্ধেক সময় পার হয়েছে। শুরুর দিকে মানুষের ভিড় কম থাকলেও দিনে দিনে বাড়ছে। আর ছুটির দিনে মেলায় থাকে সবচেয়ে বেশি ভিড়। আজ মেলায় সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের গেইটে লাইনে দাঁড়িয়ে মানুষদের ঢুকতে দেখা যায়। মেলার ভেতরেও ভিড় ছিল। অনেকে এসেছেন ঘুরতে, আবার কেউ কেউ এসেছেন পছন্দের বই কিনতে। ঘুরতে এসেও পছন্দের বই কিনছেন অনেকে।
মেলায় পছন্দের বই কিনতে আসা জুয়েল মাহমুদ জাগো নিউজকে বলেন, মেলায় এর আগেও এসেছি। ছুটির দিনে সময় নিয়ে বই কিনতে এসেছি। আমার পছন্দের বাংলাদেশের সংস্কৃতির ওপর কয়েকটি প্রবন্ধের বই কিনেছি।

 

মো. ছাব্বির হোসেন নামে আরেকজন বলেন, ঢাকার বাহিরে থাকায় মেলায় আসা হয় না। আজ এসে ভালোই লাগছে।
বৃহস্পতিবার বিপিএল খেলা দেখতে ঢাকায় আসেন কুমিল্লা মেডিকেল কলেজের তৃতীয় বর্ষের ছাত্র মো. আফ্রিদি ইসলাম। আজ মেলায় ঘুরতে এসেছেন তিনি। আফ্রিদি বলেন, মেলায় ঘুরতে ভালো লাগছে। ঘুরতে এসে বইও পছন্দ হয়ে যাওয়ায় দুটি থ্রিলার বই কিনেছি।

 

অনুপম প্রকাশনীর বিক্রয়কর্মী রাফসান আল সাদ বলেন, শুক্রবার মেলায় অনেক ভিড় থাকে। বিক্রিও অন্যান্য দিনের চেয়ে বেশি হয়। দিন যত যাবে মেলায় ভিড়ও বাড়বে। ছুটির দিনে লেখকরাও আসেন বইমেলায়। প্রিয় পাঠকদের সঙ্গে দেখা ও নিজের অটোগ্রাফ দিয়ে নিজের বই বিক্রিতে ব্যস্ত সময় কাটান তারা। তরুণ লেখক জামশেদ নাজিম বলেন, শুক্রবার ও শনিবার পাঠক, দর্শনার্থীদের ভিড় থাকে মেলায়। চেষ্টা করি ছুটির দিনে মেলায় এসে পাঠকদের সঙ্গে সময় কাটাতে। অনেকেই প্রত্যাশা করে লেখকের সইসহ বই কিনতে। আমার নিজেরও এ বছর থ্রিলার ‘নিষিদ্ধ নাগরিক’ মেলায় এসেছে। পাঠকের সাড়া পাচ্ছি এটাই ভালো লাগাছে।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

কামাল হোসাইন

হ্যালো আমি কামাল হোসাইন, আমি গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করছি। ২০১৭ সাল থেকে এই পত্রিকার সাথে কাজ করছি। এভাবে এখানে আপনার প্রতিনিধিদের সম্পর্কে কিছু লিখতে পারবেন।

ছুটির দিনে বইমেলায় উপচেপড়া ভিড়

আপডেট সময় ০৩:৫০:১২ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৩

অমর একুশে বইমেলার ১৭তম দিন আজ। শুক্রবার ছুটির দিনে মেলায় পাঠক, লেখক, প্রকাশ ও দর্শনার্থীদের ভিড় বেড়েছে। দিন গড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে মেলায় ভিড় বাড়ছে। ঘোরাঘুরির পাশাপাশি পছন্দের বই কিনছেন অনেকে। প্রকাশক ও লেখকরা জানান, সময় যত যাচ্ছে পাঠকের ভিড়ও বাড়ছে।
শুক্রবার (১৭ ফেব্রæয়ারি) অমর একুশে বইমেলায় গিয়ে এমন চিত্রই দেখা গেছে।

এ বছর নির্ধারিত সময়ে শুরু হয়েছে অমর একুশে বইমেলা। এরই মধ্যে মেলার অর্ধেক সময় পার হয়েছে। শুরুর দিকে মানুষের ভিড় কম থাকলেও দিনে দিনে বাড়ছে। আর ছুটির দিনে মেলায় থাকে সবচেয়ে বেশি ভিড়। আজ মেলায় সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের গেইটে লাইনে দাঁড়িয়ে মানুষদের ঢুকতে দেখা যায়। মেলার ভেতরেও ভিড় ছিল। অনেকে এসেছেন ঘুরতে, আবার কেউ কেউ এসেছেন পছন্দের বই কিনতে। ঘুরতে এসেও পছন্দের বই কিনছেন অনেকে।
মেলায় পছন্দের বই কিনতে আসা জুয়েল মাহমুদ জাগো নিউজকে বলেন, মেলায় এর আগেও এসেছি। ছুটির দিনে সময় নিয়ে বই কিনতে এসেছি। আমার পছন্দের বাংলাদেশের সংস্কৃতির ওপর কয়েকটি প্রবন্ধের বই কিনেছি।

 

মো. ছাব্বির হোসেন নামে আরেকজন বলেন, ঢাকার বাহিরে থাকায় মেলায় আসা হয় না। আজ এসে ভালোই লাগছে।
বৃহস্পতিবার বিপিএল খেলা দেখতে ঢাকায় আসেন কুমিল্লা মেডিকেল কলেজের তৃতীয় বর্ষের ছাত্র মো. আফ্রিদি ইসলাম। আজ মেলায় ঘুরতে এসেছেন তিনি। আফ্রিদি বলেন, মেলায় ঘুরতে ভালো লাগছে। ঘুরতে এসে বইও পছন্দ হয়ে যাওয়ায় দুটি থ্রিলার বই কিনেছি।

 

অনুপম প্রকাশনীর বিক্রয়কর্মী রাফসান আল সাদ বলেন, শুক্রবার মেলায় অনেক ভিড় থাকে। বিক্রিও অন্যান্য দিনের চেয়ে বেশি হয়। দিন যত যাবে মেলায় ভিড়ও বাড়বে। ছুটির দিনে লেখকরাও আসেন বইমেলায়। প্রিয় পাঠকদের সঙ্গে দেখা ও নিজের অটোগ্রাফ দিয়ে নিজের বই বিক্রিতে ব্যস্ত সময় কাটান তারা। তরুণ লেখক জামশেদ নাজিম বলেন, শুক্রবার ও শনিবার পাঠক, দর্শনার্থীদের ভিড় থাকে মেলায়। চেষ্টা করি ছুটির দিনে মেলায় এসে পাঠকদের সঙ্গে সময় কাটাতে। অনেকেই প্রত্যাশা করে লেখকের সইসহ বই কিনতে। আমার নিজেরও এ বছর থ্রিলার ‘নিষিদ্ধ নাগরিক’ মেলায় এসেছে। পাঠকের সাড়া পাচ্ছি এটাই ভালো লাগাছে।