ঢাকা , মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ৪ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

খুলনায় স্বামীর সামনে স্ত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ

খুলনা নগরীর আড়ংঘাটা বাইপাস সড়কে প্রশাসনের লোক হিসেবে পরিচয় দিয়ে দুর্বৃত্তরা স্বামীর সামনেই এক গৃহবধূকে পালাক্রমে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে।

এসময় ধর্ষণকারীরা ভিডিও ধারণ করে দম্পতিকে হুমকি প্রদান করেন।পাশাপাশি একটি মোবাইল নম্বর দিয়ে পরবর্তীতে যোগাযোগ করা হবে বলে হুশিয়ারিও দেওয়া হয়।

র‌্যাব-৬ ও আড়ংঘাটা থানা পুলিশ পৃথকভাবে বিষয়টির ছায়া তদন্ত শুরু করেছে।এ ঘটনায় নগরীতে সমালোচনার ঝড় বইছে।

জানা যায়, নগরীর ফুলবাড়ি গেটের ও দম্পতি বাইপাস সড়কে ঘুরতে বের হন। এসময় দুটি মোটরসাইকেলে কয়েকজন এসে দম্পতির কাছে নিজেদের প্রশাসনের লোক বলে পরিচয় দেন।

এরপর স্বামীর চোখ বেধে আড়ংঘাটার মোড়লপাড়া এলাকার কাছে একটি নির্জন স্থানে মঙ্গলবার রাত ৯টা পর থেকে কয়েকঘণ্টা পালাক্রমে ধর্ষণ করা হয়।

পরে ধর্ষণের বিষয়টি কাউকে না বলার জন্য হুমকি দেওয়া হয়। ধর্ষণকারীরা মোবাইলে ভিডিও করে এবং একটি মোবাইল নম্বর দিয়ে যায় পরবর্তীতে যোগাযোগের জন্য।

অসুস্থ অবস্থায় গৃহবধূকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওসিসিতে ভর্তি করা হয়।

আড়ংঘাটা থানার ওসি মো. ওয়াহিদুজ্জামান বুধবার রাতে যুগান্তরকে জানান, আমরা আসামিদের শনাক্ত করার কাজ করছি। আমাদের একাধিক টিম কাজ করছে। প্রশাসনের পরিচয়ে এমন ঘটনা দু:খজনক।

মামলার বিষয়ে তিনি বলেন, ভুক্তভোগীরা খুলনা মেডিকেলে ছিলেন। তারা থানায় আসছেন, এরপরই মামলা দায়ের করা হবে।

র‌্যাব-৬ এর সিনিয়র এএসপি পহন চাকমা যুগান্তরকে বুধবার রাতে জানান, বিষয়টি আমরা মৌখিকভাবে জানতে পেরেছি। মোবাইল নম্বরও আমরা পেয়েছি। তবে এ বিষয়ে এখনই কিছু বলা যাবে না। আমরা ছায়া তদন্ত করছি। খুব দ্রুতই আমরা মিডিয়াকে বিস্তারিত জানাব।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

কামাল হোসাইন

হ্যালো আমি কামাল হোসাইন, আমি গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করছি। ২০১৭ সাল থেকে এই পত্রিকার সাথে কাজ করছি। এভাবে এখানে আপনার প্রতিনিধিদের সম্পর্কে কিছু লিখতে পারবেন।

খুলনায় স্বামীর সামনে স্ত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ

আপডেট সময় ০৪:১৯:২৯ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৫ ডিসেম্বর ২০২২

খুলনা নগরীর আড়ংঘাটা বাইপাস সড়কে প্রশাসনের লোক হিসেবে পরিচয় দিয়ে দুর্বৃত্তরা স্বামীর সামনেই এক গৃহবধূকে পালাক্রমে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে।

এসময় ধর্ষণকারীরা ভিডিও ধারণ করে দম্পতিকে হুমকি প্রদান করেন।পাশাপাশি একটি মোবাইল নম্বর দিয়ে পরবর্তীতে যোগাযোগ করা হবে বলে হুশিয়ারিও দেওয়া হয়।

র‌্যাব-৬ ও আড়ংঘাটা থানা পুলিশ পৃথকভাবে বিষয়টির ছায়া তদন্ত শুরু করেছে।এ ঘটনায় নগরীতে সমালোচনার ঝড় বইছে।

জানা যায়, নগরীর ফুলবাড়ি গেটের ও দম্পতি বাইপাস সড়কে ঘুরতে বের হন। এসময় দুটি মোটরসাইকেলে কয়েকজন এসে দম্পতির কাছে নিজেদের প্রশাসনের লোক বলে পরিচয় দেন।

এরপর স্বামীর চোখ বেধে আড়ংঘাটার মোড়লপাড়া এলাকার কাছে একটি নির্জন স্থানে মঙ্গলবার রাত ৯টা পর থেকে কয়েকঘণ্টা পালাক্রমে ধর্ষণ করা হয়।

পরে ধর্ষণের বিষয়টি কাউকে না বলার জন্য হুমকি দেওয়া হয়। ধর্ষণকারীরা মোবাইলে ভিডিও করে এবং একটি মোবাইল নম্বর দিয়ে যায় পরবর্তীতে যোগাযোগের জন্য।

অসুস্থ অবস্থায় গৃহবধূকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওসিসিতে ভর্তি করা হয়।

আড়ংঘাটা থানার ওসি মো. ওয়াহিদুজ্জামান বুধবার রাতে যুগান্তরকে জানান, আমরা আসামিদের শনাক্ত করার কাজ করছি। আমাদের একাধিক টিম কাজ করছে। প্রশাসনের পরিচয়ে এমন ঘটনা দু:খজনক।

মামলার বিষয়ে তিনি বলেন, ভুক্তভোগীরা খুলনা মেডিকেলে ছিলেন। তারা থানায় আসছেন, এরপরই মামলা দায়ের করা হবে।

র‌্যাব-৬ এর সিনিয়র এএসপি পহন চাকমা যুগান্তরকে বুধবার রাতে জানান, বিষয়টি আমরা মৌখিকভাবে জানতে পেরেছি। মোবাইল নম্বরও আমরা পেয়েছি। তবে এ বিষয়ে এখনই কিছু বলা যাবে না। আমরা ছায়া তদন্ত করছি। খুব দ্রুতই আমরা মিডিয়াকে বিস্তারিত জানাব।