ঢাকা , শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ৬ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কালকে তোমার চাকরি যাবে, পরিচ্ছন্নতা কর্মকর্তাকে মেয়র আইভী

বেতন ভাতা বৃদ্ধিসহ ছয় দফা দাবিতে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের (নাসিক) নগর ভবনে ময়লা-আবর্জনা ফেলে বিক্ষোভ করেছেন পরিচ্ছন্নতাকর্মীরা। মঙ্গলবার (১৪ মার্চ) বিকালে নগর ভবন প্রাঙ্গণে এই বিক্ষোভ করেন তারা। পরে ঘটনাস্থলে হাজির হয়ে ময়লা ফেলাকে কেন্দ্র করে বিক্ষোভকারীদের ওপরে চটেছেন সিটি করপোরেশনের মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী।

আন্দোলনকারীদের দেওয়া ছয় দফা হলো, নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনে কর্মরত সব পরিচ্ছন্নতাকর্মীর চাকরি স্থায়ী করা, কর্মীর ন্যূনতম দৈনিক হাজিরা ৬৫০ টাকা ও ট্রাক শ্রমিকদের ৭৫০ টাকা করা, প্রত্যেক শ্রমিকের বেতনের সমপরিমাণ ঈদ ও পূজার বোনাস প্রদান, প্রতি ওয়ার্ডে দুজন করে ডোম নিয়োগ, নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন করার সময় যদি কোনও শ্রমিক দুর্ঘটনায় নিহত হন তাকে লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ দেওয়া, স্বাভাবিকভাবে মৃত্যুবরণ করলে তাদের দাফন বা সৎকারের জন্য আগের বরাদ্দ পাঁচ হাজার টাকার পরিবর্তে ৫০ হাজার টাকা দেওয়া।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বিকালের দিকে পরিচ্ছন্নতাকর্মীরা নগর ভবনের সামনে অবস্থান নিয়ে ছয় দফা দাবিসহ নানা স্লোগান দিয়ে সিটি করপোরেশনের গেট অবরুদ্ধ করে রাখেন। এ সময় একদল পরিচ্ছন্নতাকর্মী নগর ভবন প্রাঙ্গণে ময়লা-আবর্জনা ফেলেন। কেউ কেউ ফটক থেকে ভেতর পর্যন্ত আবর্জনা ঢেলে দেন। এ সময় পুলিশ এসে তাদের শান্ত করার চেষ্টা করে। কিন্তু তাতেও কোন কাজ হয়নি। পরে পরিচ্ছন্নতাকর্মীদের এমন আচরণ দেখে মেয়র আইভী ক্ষুব্ধ হয়ে নগর ভবন থেকে নিচে নেমে আসেন।

এ সময় মেয়র আইভী পরিচ্ছন্নতাকর্মীদের উদ্দেশে বলেন, আমার বিরুদ্ধে আন্দোলন করতে চাও করো, মেয়রকে ঘেরাও করে রাখতে চাও করো, কিন্তু ময়লা কেন ফেললে? বাংলাদেশ সরকার কোনও সিটি করপোরেশনে তোমাদের চাকরি পারমানেন্ট করেনি। তাহলে নগর ভবনে তোমরা ময়লা ফেলার দুঃসাহস কেন দেখালে? এটা কোন ধরনের আচরণ? তোমাদের সবার বেতন বেড়েছে, কিন্তু আমরা টাকা দিতে পারিনি।

এ সময় তিনি সিটি করপোরেশনের পরিচ্ছন্নতা কর্মকর্তা শ্যামলের ওপর ক্ষোভ প্রকাশ করেন। তিনি শ্যামলকে উদ্দেশ করে বলেন, মাসিক সভায় ওদের বেতন বেড়ে আট হাজার এবং বাসা ভাড়া বাড়িয়ে পাঁচ হাজার টাকা করা হয়েছে। এটা কেন তাদের জানাওনি? তোমার সঙ্গে ওদের কী সমস্যা? আজকে কেন এই পরিস্থিতি সৃষ্টি হলো? কালকে তোমার চাকরি যাবে। তুমি সাসপেন্ড হবা।

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন ওয়ার্কার্স ইউনিয়নের সভাপতি শিমুল দাস বলেন, এখন সবকিছুর দাম বেড়েছে। দৈনিক ১৭৫ টাকা মজুরিতে চারঘণ্টা কাজ করি। এ মজুরিতে সংসার চলে না। এখন আবার নতুন করে পাঁচ হাজার টাকা করে বাসা ভাড়া নির্ধারণ করেছে। কিন্তু সবকিছুর খরচ বেড়েছে। এই টাকা দিয়ে আমাদের চলে না। তবে বেতন বাড়ানোর বিষয়টি আমাদের কেউ জানায়নি।

ঘটনাস্থলে যাওয়া নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানার ওসি আনিচুর রহমান বলেন, পরিচ্ছন্নতাকর্মীদের বেতন আগেই বৃদ্ধি করা হয়েছে। কিন্তু ফান্ডের অভাবে অনেকের বেতন দেওয়া হচ্ছে না। এরপরও আন্দোলনকারীরা বিক্ষোভ করেছে। পরে মেয়রসহ আমরা তাদের বুঝিয়ে সরিয়ে দিয়েছি।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

কামাল হোসাইন

হ্যালো আমি কামাল হোসাইন, আমি গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করছি। ২০১৭ সাল থেকে এই পত্রিকার সাথে কাজ করছি। এভাবে এখানে আপনার প্রতিনিধিদের সম্পর্কে কিছু লিখতে পারবেন।

কালকে তোমার চাকরি যাবে, পরিচ্ছন্নতা কর্মকর্তাকে মেয়র আইভী

আপডেট সময় ০৪:৪৪:৪৪ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৫ মার্চ ২০২৩

বেতন ভাতা বৃদ্ধিসহ ছয় দফা দাবিতে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের (নাসিক) নগর ভবনে ময়লা-আবর্জনা ফেলে বিক্ষোভ করেছেন পরিচ্ছন্নতাকর্মীরা। মঙ্গলবার (১৪ মার্চ) বিকালে নগর ভবন প্রাঙ্গণে এই বিক্ষোভ করেন তারা। পরে ঘটনাস্থলে হাজির হয়ে ময়লা ফেলাকে কেন্দ্র করে বিক্ষোভকারীদের ওপরে চটেছেন সিটি করপোরেশনের মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী।

আন্দোলনকারীদের দেওয়া ছয় দফা হলো, নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনে কর্মরত সব পরিচ্ছন্নতাকর্মীর চাকরি স্থায়ী করা, কর্মীর ন্যূনতম দৈনিক হাজিরা ৬৫০ টাকা ও ট্রাক শ্রমিকদের ৭৫০ টাকা করা, প্রত্যেক শ্রমিকের বেতনের সমপরিমাণ ঈদ ও পূজার বোনাস প্রদান, প্রতি ওয়ার্ডে দুজন করে ডোম নিয়োগ, নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন করার সময় যদি কোনও শ্রমিক দুর্ঘটনায় নিহত হন তাকে লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ দেওয়া, স্বাভাবিকভাবে মৃত্যুবরণ করলে তাদের দাফন বা সৎকারের জন্য আগের বরাদ্দ পাঁচ হাজার টাকার পরিবর্তে ৫০ হাজার টাকা দেওয়া।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বিকালের দিকে পরিচ্ছন্নতাকর্মীরা নগর ভবনের সামনে অবস্থান নিয়ে ছয় দফা দাবিসহ নানা স্লোগান দিয়ে সিটি করপোরেশনের গেট অবরুদ্ধ করে রাখেন। এ সময় একদল পরিচ্ছন্নতাকর্মী নগর ভবন প্রাঙ্গণে ময়লা-আবর্জনা ফেলেন। কেউ কেউ ফটক থেকে ভেতর পর্যন্ত আবর্জনা ঢেলে দেন। এ সময় পুলিশ এসে তাদের শান্ত করার চেষ্টা করে। কিন্তু তাতেও কোন কাজ হয়নি। পরে পরিচ্ছন্নতাকর্মীদের এমন আচরণ দেখে মেয়র আইভী ক্ষুব্ধ হয়ে নগর ভবন থেকে নিচে নেমে আসেন।

এ সময় মেয়র আইভী পরিচ্ছন্নতাকর্মীদের উদ্দেশে বলেন, আমার বিরুদ্ধে আন্দোলন করতে চাও করো, মেয়রকে ঘেরাও করে রাখতে চাও করো, কিন্তু ময়লা কেন ফেললে? বাংলাদেশ সরকার কোনও সিটি করপোরেশনে তোমাদের চাকরি পারমানেন্ট করেনি। তাহলে নগর ভবনে তোমরা ময়লা ফেলার দুঃসাহস কেন দেখালে? এটা কোন ধরনের আচরণ? তোমাদের সবার বেতন বেড়েছে, কিন্তু আমরা টাকা দিতে পারিনি।

এ সময় তিনি সিটি করপোরেশনের পরিচ্ছন্নতা কর্মকর্তা শ্যামলের ওপর ক্ষোভ প্রকাশ করেন। তিনি শ্যামলকে উদ্দেশ করে বলেন, মাসিক সভায় ওদের বেতন বেড়ে আট হাজার এবং বাসা ভাড়া বাড়িয়ে পাঁচ হাজার টাকা করা হয়েছে। এটা কেন তাদের জানাওনি? তোমার সঙ্গে ওদের কী সমস্যা? আজকে কেন এই পরিস্থিতি সৃষ্টি হলো? কালকে তোমার চাকরি যাবে। তুমি সাসপেন্ড হবা।

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন ওয়ার্কার্স ইউনিয়নের সভাপতি শিমুল দাস বলেন, এখন সবকিছুর দাম বেড়েছে। দৈনিক ১৭৫ টাকা মজুরিতে চারঘণ্টা কাজ করি। এ মজুরিতে সংসার চলে না। এখন আবার নতুন করে পাঁচ হাজার টাকা করে বাসা ভাড়া নির্ধারণ করেছে। কিন্তু সবকিছুর খরচ বেড়েছে। এই টাকা দিয়ে আমাদের চলে না। তবে বেতন বাড়ানোর বিষয়টি আমাদের কেউ জানায়নি।

ঘটনাস্থলে যাওয়া নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানার ওসি আনিচুর রহমান বলেন, পরিচ্ছন্নতাকর্মীদের বেতন আগেই বৃদ্ধি করা হয়েছে। কিন্তু ফান্ডের অভাবে অনেকের বেতন দেওয়া হচ্ছে না। এরপরও আন্দোলনকারীরা বিক্ষোভ করেছে। পরে মেয়রসহ আমরা তাদের বুঝিয়ে সরিয়ে দিয়েছি।