ঢাকা , মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
Logo সরকার তারেককে ফিরিয়ে এনে অবশ্যই আদালতের রায় কার্যকর করবে : প্রধানমন্ত্রী Logo ফিলিস্তিনকে রাষ্ট্রের স্বীকৃতির প্রভাব কী হতে পারে? Logo মায়ের ওড়না শাড়ি বানিয়ে পরলেন জেফার, দেখালেন চমক Logo পরিবারসহ বেনজীরের আরও ১১৩ স্থাবর-অস্থাবর সম্পত্তি ক্রোকের নির্দেশ Logo হায়দরাবাদকে গুঁড়িয়ে, উড়িয়ে কলকাতা চ্যাম্পিয়ন Logo ফতুল্লায় রহিম হাজী ও সামেদ আলীর গ্রুপে সংঘর্ষ, ভাংচুর, আহত ১৫ Logo সোনারগাঁয়ে নির্বাচন পরবর্তী প্রতিহিংসায় শতাধিক ফলজ গাছ কর্তন Logo মুছাপুরে স্বর্ণকার অজিতের প্রেমের ফাঁদে সর্বশান্ত প্রবাসী নারী Logo বন্দরে বিভিন্ন মামলার ২ সাঁজাপ্রাপ্ত আসামি গ্রেপ্তার Logo নাসিকের ময়লার গাড়ির ধাক্কায় অন্ত:সত্তা নারীর মৃত্যু, চালক আটক

এই দানব সরকারকে রুখতে না পারলে রাষ্ট্রকাঠামো ভেঙে যাবে : মির্জা ফখরুল

ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ সরকারকে ভয়াবহ দানব বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তার দাবি, আজকে এই দানব সরকারকে রুখতে না পারলে রাষ্ট্রকাঠামো ভেঙে যাবে। দেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্ব ভেঙে তছনছ হয়ে যাবে। রোববার (১৬ এপ্রিল) জাতীয় প্রেস ক্লাবে বিএনপিপন্থি সাংবাদিকদের সংগঠন বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন (বিএফইউজে) ও ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের (ডিইউজে) যৌথ উদ্যোগে অনুষ্ঠিত হওয়া দোয়া ও ইফতার মাহফিলে এসব কথা বলেন তিনি।

মির্জা ফখরুল বলেন, এখন কিছুই ভালো নেই। আজ সমাজকে সম্পূর্ণভাবে বিভক্ত করা হয়েছে। রাষ্ট্রকে ব্যর্থ বানাতে ধাক্কা দিয়ে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। এটা আমাদের জন্য অত্যন্ত কষ্টকর। কারণ আমরা মুক্তিযুদ্ধ করেছিলাম গণতন্ত্রের জন্য, আজকে এই সরকার গণতান্ত্রিক প্রতিষ্ঠানগুলোকে ধ্বংস করে ফেলেছে। প্রধানমন্ত্রী সংসদে যে ভাষায় দাঁড়িয়ে কথা বলেন তা সভ্য সমাজে গ্রহণযোগ্য নয়। দলের নেতাকর্মীর নামে থাকা ৩৫ লাখ ‘মিথ্যা’ মামলা প্রত্যাহার, খালেদা জিয়ার মুক্তি ও তারেক রহমানকে দেশে প্রত্যাবর্তনের জন্য সবাইকে ঐক্যবদ্ধ আন্দোলনে শামিল হওয়ার আহ্বান জানান মির্জা ফখরুল। বলেন, বিএনপি নেতা চৌধুরী আলমসহ ৬ শতাধিক নেতাকর্মীকে গুম করা হয়েছে। শতাধিক নেতাকর্মীকে বিচারবহির্ভূত হত্যা করেছে এই জালিম সরকার।

গণমাধ্যমের স্বাধীনতা সরকার হরণ করেছে দাবি করে বিএনপি মহাসচিব আরো বলেন, যা ইতিপূর্বে কখনো দেখা যায়নি। এখন আর সেন্সরশিপ দেওয়ার কিছু নেই। কারণ সেল্ফ সেন্সরশিপ চলছে। যখন গণমাধ্যমে লেখা ও চিত্র দেখি তখন মনে হয় ফ্যাসিবাদের করাল সবকিছুকে গ্রাস করে ফেলেছে। আসলে ফ্যাসিবাদের শাসন এমনই হয়। ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে অনেক সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে বলে উল্লেখ করে সাবেক এই মন্ত্রী বলেন, সংগ্রামের সম্পাদক আবুল আসাদ যার অন্যতম উদাহরণ। আমাদের অনেক তরুণ যুবককে কারাগারে দেখেছি তাদের বিরুদ্ধেও এই আইনে মামলা হয়েছে। আজকে সাংবাদিকদের বিভক্ত করা হয়েছে। গণতান্ত্রিক সমাজ ও রাষ্ট্রের জন্য যে মুক্ত গণমাধ্যম দরকার, সেটাও নেই।

 

আলেম-ওলামাদের সরকার রেহাই দিচ্ছে উল্লেখ করে বিএনপির মহাসচিব বলেন, মাসের পর মাস, বছরের পর বছর তাদেরকে কারাগারে ভরে রেখেছে। এমনকি হত্যা পর্যন্ত করা হয়েছে। বিএফইউজের সভাপতি এম আব্দুল্লাহর সভাপতিত্বে ও ডিইউজের সাধারণ সম্পাদক শহীদুল ইসলাম ইফতার পূর্ব অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন।

 

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

কামাল হোসাইন

হ্যালো আমি কামাল হোসাইন, আমি গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করছি। ২০১৭ সাল থেকে এই পত্রিকার সাথে কাজ করছি। এভাবে এখানে আপনার প্রতিনিধিদের সম্পর্কে কিছু লিখতে পারবেন।
জনপ্রিয় সংবাদ

সরকার তারেককে ফিরিয়ে এনে অবশ্যই আদালতের রায় কার্যকর করবে : প্রধানমন্ত্রী

এই দানব সরকারকে রুখতে না পারলে রাষ্ট্রকাঠামো ভেঙে যাবে : মির্জা ফখরুল

আপডেট সময় ০৪:১১:০৮ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৩

ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ সরকারকে ভয়াবহ দানব বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তার দাবি, আজকে এই দানব সরকারকে রুখতে না পারলে রাষ্ট্রকাঠামো ভেঙে যাবে। দেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্ব ভেঙে তছনছ হয়ে যাবে। রোববার (১৬ এপ্রিল) জাতীয় প্রেস ক্লাবে বিএনপিপন্থি সাংবাদিকদের সংগঠন বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন (বিএফইউজে) ও ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের (ডিইউজে) যৌথ উদ্যোগে অনুষ্ঠিত হওয়া দোয়া ও ইফতার মাহফিলে এসব কথা বলেন তিনি।

মির্জা ফখরুল বলেন, এখন কিছুই ভালো নেই। আজ সমাজকে সম্পূর্ণভাবে বিভক্ত করা হয়েছে। রাষ্ট্রকে ব্যর্থ বানাতে ধাক্কা দিয়ে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। এটা আমাদের জন্য অত্যন্ত কষ্টকর। কারণ আমরা মুক্তিযুদ্ধ করেছিলাম গণতন্ত্রের জন্য, আজকে এই সরকার গণতান্ত্রিক প্রতিষ্ঠানগুলোকে ধ্বংস করে ফেলেছে। প্রধানমন্ত্রী সংসদে যে ভাষায় দাঁড়িয়ে কথা বলেন তা সভ্য সমাজে গ্রহণযোগ্য নয়। দলের নেতাকর্মীর নামে থাকা ৩৫ লাখ ‘মিথ্যা’ মামলা প্রত্যাহার, খালেদা জিয়ার মুক্তি ও তারেক রহমানকে দেশে প্রত্যাবর্তনের জন্য সবাইকে ঐক্যবদ্ধ আন্দোলনে শামিল হওয়ার আহ্বান জানান মির্জা ফখরুল। বলেন, বিএনপি নেতা চৌধুরী আলমসহ ৬ শতাধিক নেতাকর্মীকে গুম করা হয়েছে। শতাধিক নেতাকর্মীকে বিচারবহির্ভূত হত্যা করেছে এই জালিম সরকার।

গণমাধ্যমের স্বাধীনতা সরকার হরণ করেছে দাবি করে বিএনপি মহাসচিব আরো বলেন, যা ইতিপূর্বে কখনো দেখা যায়নি। এখন আর সেন্সরশিপ দেওয়ার কিছু নেই। কারণ সেল্ফ সেন্সরশিপ চলছে। যখন গণমাধ্যমে লেখা ও চিত্র দেখি তখন মনে হয় ফ্যাসিবাদের করাল সবকিছুকে গ্রাস করে ফেলেছে। আসলে ফ্যাসিবাদের শাসন এমনই হয়। ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে অনেক সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে বলে উল্লেখ করে সাবেক এই মন্ত্রী বলেন, সংগ্রামের সম্পাদক আবুল আসাদ যার অন্যতম উদাহরণ। আমাদের অনেক তরুণ যুবককে কারাগারে দেখেছি তাদের বিরুদ্ধেও এই আইনে মামলা হয়েছে। আজকে সাংবাদিকদের বিভক্ত করা হয়েছে। গণতান্ত্রিক সমাজ ও রাষ্ট্রের জন্য যে মুক্ত গণমাধ্যম দরকার, সেটাও নেই।

 

আলেম-ওলামাদের সরকার রেহাই দিচ্ছে উল্লেখ করে বিএনপির মহাসচিব বলেন, মাসের পর মাস, বছরের পর বছর তাদেরকে কারাগারে ভরে রেখেছে। এমনকি হত্যা পর্যন্ত করা হয়েছে। বিএফইউজের সভাপতি এম আব্দুল্লাহর সভাপতিত্বে ও ডিইউজের সাধারণ সম্পাদক শহীদুল ইসলাম ইফতার পূর্ব অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন।