ঢাকা , মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ৩ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

উপজেলা চেয়ারম্যানকে গুলির ঘটনায় সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ

নরসিংদীর শিবপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হারুন-অর রশিদ খান নিজ বাড়িতে দুর্বৃত্তদের হাতে গুলিবিদ্ধের ঘটনায় তার সমর্থকরা ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে টায়ারে আগুন জ্বালিয়ে অবরোধ করেছেন। শনিবার সকাল ১০টা থেকে তারা বিক্ষোভ শুরু করেন। পরে জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপার গিয়ে অবরোধকারীদের বুঝিয়ে দ্রুত আসামিদের গ্রেফতারের আশ্বাস দিলে দুপুর ২টার দিকে তারা সড়ক অবরোধ তুলে নেন।

চেয়ারম্যানকে গুলিবিদ্ধের খবর ছড়িয়ে পড়লে সকাল থেকে সমর্থকরা শহরের বিভিন্ন সড়কে টায়ার ও কাঠে আগুন লাগিয়ে ঘটনার প্রতিবাদে বিক্ষোভ করেন। এ ছাড়া ঢাকা-মনোহরদী সড়কের শিবপুর কলেজ গেট, শিবপুর বাসস্ট্যান্ডসহ বেশ কয়েকটি স্থানে গাছ ফেলে ব্যারিকেড দেন। এতে ওই সড়কে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। বিক্ষুব্ধ সমর্থকরা শিবপুর পৌরসভার বিভিন্ন সড়কে ‘হারুন খানের কিছু হলে/ জ্বলবে আগুন ঘরে ঘরে’ স্লোগান দিয়ে বিক্ষোভ মিছিলে করেন।

শিবপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শামসুল আলম ভুঁইয়া জানান, চেয়ারম্যান হারুন-অর রশিদ খানকে গুরুতর আহত অবস্থায় ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রাখা হয়েছে। কী কারণে, কে বা কারা এ ঘটনা ঘটিয়েছে সেটি আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর খতিয়ে দেখছে।

শিবপুর থানার ভারপ্রাপ্ত (ওসি) কর্মকর্তা ফিরোজ তালুকদার বলেন, ‘আশপাশের সিসিটিভি ফুটেজ বিশ্লেষণসহ ঘটনার তদন্ত করা হচ্ছে। জড়িতদের চিহ্নিত ও গ্রেফতারে পুলিশি অভিযান চলছে।’

পুলিশ সুপার (এসপি) কাজী আশরাফুল আজীম জানান, যারা এ ঘটনা ঘটিয়েছেন তাদের আইনের আওতায় আনা হবে।

জেলা প্রশাসক (ডিসি) আবু নইম মোহাম্মদ মারুফ খান জানান, শিগগিরই দুষ্কৃতকারীদের আইনের আওতায় আনা হবে। গ্রেফতারের বিষয়টি চলমান রয়েছে।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

কামাল হোসাইন

হ্যালো আমি কামাল হোসাইন, আমি গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করছি। ২০১৭ সাল থেকে এই পত্রিকার সাথে কাজ করছি। এভাবে এখানে আপনার প্রতিনিধিদের সম্পর্কে কিছু লিখতে পারবেন।

উপজেলা চেয়ারম্যানকে গুলির ঘটনায় সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ

আপডেট সময় ০৪:০৭:২৬ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৩

নরসিংদীর শিবপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হারুন-অর রশিদ খান নিজ বাড়িতে দুর্বৃত্তদের হাতে গুলিবিদ্ধের ঘটনায় তার সমর্থকরা ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে টায়ারে আগুন জ্বালিয়ে অবরোধ করেছেন। শনিবার সকাল ১০টা থেকে তারা বিক্ষোভ শুরু করেন। পরে জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপার গিয়ে অবরোধকারীদের বুঝিয়ে দ্রুত আসামিদের গ্রেফতারের আশ্বাস দিলে দুপুর ২টার দিকে তারা সড়ক অবরোধ তুলে নেন।

চেয়ারম্যানকে গুলিবিদ্ধের খবর ছড়িয়ে পড়লে সকাল থেকে সমর্থকরা শহরের বিভিন্ন সড়কে টায়ার ও কাঠে আগুন লাগিয়ে ঘটনার প্রতিবাদে বিক্ষোভ করেন। এ ছাড়া ঢাকা-মনোহরদী সড়কের শিবপুর কলেজ গেট, শিবপুর বাসস্ট্যান্ডসহ বেশ কয়েকটি স্থানে গাছ ফেলে ব্যারিকেড দেন। এতে ওই সড়কে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। বিক্ষুব্ধ সমর্থকরা শিবপুর পৌরসভার বিভিন্ন সড়কে ‘হারুন খানের কিছু হলে/ জ্বলবে আগুন ঘরে ঘরে’ স্লোগান দিয়ে বিক্ষোভ মিছিলে করেন।

শিবপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শামসুল আলম ভুঁইয়া জানান, চেয়ারম্যান হারুন-অর রশিদ খানকে গুরুতর আহত অবস্থায় ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রাখা হয়েছে। কী কারণে, কে বা কারা এ ঘটনা ঘটিয়েছে সেটি আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর খতিয়ে দেখছে।

শিবপুর থানার ভারপ্রাপ্ত (ওসি) কর্মকর্তা ফিরোজ তালুকদার বলেন, ‘আশপাশের সিসিটিভি ফুটেজ বিশ্লেষণসহ ঘটনার তদন্ত করা হচ্ছে। জড়িতদের চিহ্নিত ও গ্রেফতারে পুলিশি অভিযান চলছে।’

পুলিশ সুপার (এসপি) কাজী আশরাফুল আজীম জানান, যারা এ ঘটনা ঘটিয়েছেন তাদের আইনের আওতায় আনা হবে।

জেলা প্রশাসক (ডিসি) আবু নইম মোহাম্মদ মারুফ খান জানান, শিগগিরই দুষ্কৃতকারীদের আইনের আওতায় আনা হবে। গ্রেফতারের বিষয়টি চলমান রয়েছে।