ঢাকা , শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ৬ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ইউক্রেনকে অত্যাধুনিক ট্যাংক দিচ্ছে যুক্তরাজ্য, একই পথে ফ্রান্স-পোল্যান্ড

ইউক্রেনের মাটিতে রাশিয়ার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে কিয়েভকে অবশেষে অত্যাধুনিক ‘চ্যালেঞ্জার-২’ ট্যাংক পাঠাতে যাচ্ছে যুক্তরাজ্য। সামরিক সহায়তার অংশ হিসেবেই কিয়েভকে ১২টি ট্যাংক দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় ডাউনিং স্ট্রিট।

১০ ডাউনিং স্ট্রিট জানিয়েছে, শনিবার (১৪ জানুয়ারি) ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কির সঙ্গে ফোনে আলাপ হয় ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী ঋষি সুনাকের। কিয়েভকে চ্যালেঞ্জার-২ ট্যাংকসহ অতিরিক্তি আর্টিলারি সিস্টেম সরবরাহের প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী। একই সঙ্গে ইউক্রেনের পাশে থাকার রূপরেখাও দিয়েছেন তিনি।

ব্রিটেনের এই ঘোষণার পর টেলিগ্রাম পোস্টে প্রধানমন্ত্রী ঋষি সুনাককে ধন্যবাদ জানিয়েছে জেলেনস্কি লিখেছেন, ‘এমন সহায়তায় যুদ্ধে আমাদের অবস্থান জোরালো করবে। পাশাপাশি সহায়তার বিষয়ে অন্য মিত্রদেরও সঠিক বার্তা পৌঁছে দেবে।’

যুক্তরাজ্যের পথে হাটছে ফ্রান্স ও পোল্যান্ডও। রাশিয়ার আগ্রাসনের হাত থেকে নিজেদের রক্ষায় ন্যাটোর এই দুই দেশও ইউক্রেনের সেনাবাহিনীকে শিগগিরিই ট্যাংক সরবরাহের প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। এদিকে রাশিয়ার প্রতিবেশী দেশ ফিনল্যান্ডও জেলেনস্কির সরকারকে সামরিক সহায়তার কথা ভাবছে।

গত বছরের ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে রাশিয়ার আগ্রাসন শুরুর পর থেকেই যুক্তরাষ্ট্রসহ পশ্চিমা মিত্র দেশগুলোর কাছে আধুনিক অস্ত্র চেয়ে আসছেন জেলেনস্কি। এরই অংশ হিসেবে ধারাবাহিকভাবে এই সহায়তা দিচ্ছে দেশগুলো। যার ফলে ইউক্রেনীয় ভূখণ্ডে বিপর্যয়ের মুখে পড়েছে রুশ বাহিনী।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

কামাল হোসাইন

হ্যালো আমি কামাল হোসাইন, আমি গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করছি। ২০১৭ সাল থেকে এই পত্রিকার সাথে কাজ করছি। এভাবে এখানে আপনার প্রতিনিধিদের সম্পর্কে কিছু লিখতে পারবেন।

ইউক্রেনকে অত্যাধুনিক ট্যাংক দিচ্ছে যুক্তরাজ্য, একই পথে ফ্রান্স-পোল্যান্ড

আপডেট সময় ০৩:৫২:১৯ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৫ জানুয়ারী ২০২৩

ইউক্রেনের মাটিতে রাশিয়ার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে কিয়েভকে অবশেষে অত্যাধুনিক ‘চ্যালেঞ্জার-২’ ট্যাংক পাঠাতে যাচ্ছে যুক্তরাজ্য। সামরিক সহায়তার অংশ হিসেবেই কিয়েভকে ১২টি ট্যাংক দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় ডাউনিং স্ট্রিট।

১০ ডাউনিং স্ট্রিট জানিয়েছে, শনিবার (১৪ জানুয়ারি) ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কির সঙ্গে ফোনে আলাপ হয় ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী ঋষি সুনাকের। কিয়েভকে চ্যালেঞ্জার-২ ট্যাংকসহ অতিরিক্তি আর্টিলারি সিস্টেম সরবরাহের প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী। একই সঙ্গে ইউক্রেনের পাশে থাকার রূপরেখাও দিয়েছেন তিনি।

ব্রিটেনের এই ঘোষণার পর টেলিগ্রাম পোস্টে প্রধানমন্ত্রী ঋষি সুনাককে ধন্যবাদ জানিয়েছে জেলেনস্কি লিখেছেন, ‘এমন সহায়তায় যুদ্ধে আমাদের অবস্থান জোরালো করবে। পাশাপাশি সহায়তার বিষয়ে অন্য মিত্রদেরও সঠিক বার্তা পৌঁছে দেবে।’

যুক্তরাজ্যের পথে হাটছে ফ্রান্স ও পোল্যান্ডও। রাশিয়ার আগ্রাসনের হাত থেকে নিজেদের রক্ষায় ন্যাটোর এই দুই দেশও ইউক্রেনের সেনাবাহিনীকে শিগগিরিই ট্যাংক সরবরাহের প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। এদিকে রাশিয়ার প্রতিবেশী দেশ ফিনল্যান্ডও জেলেনস্কির সরকারকে সামরিক সহায়তার কথা ভাবছে।

গত বছরের ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে রাশিয়ার আগ্রাসন শুরুর পর থেকেই যুক্তরাষ্ট্রসহ পশ্চিমা মিত্র দেশগুলোর কাছে আধুনিক অস্ত্র চেয়ে আসছেন জেলেনস্কি। এরই অংশ হিসেবে ধারাবাহিকভাবে এই সহায়তা দিচ্ছে দেশগুলো। যার ফলে ইউক্রেনীয় ভূখণ্ডে বিপর্যয়ের মুখে পড়েছে রুশ বাহিনী।