ঢাকা , মঙ্গলবার, ০৫ মার্চ ২০২৪, ২১ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
Logo বন্দরে শ্লীলতাহানির ভিডিও ধারণ করে যুবতীকে ধর্ষণ, প্রধান আসামি গ্রেপ্তার Logo আড়াইহাজারে রেস্টুরেন্ট থেকে অপত্তিকর অবস্থায় ১৬ কিশোর কিশোরী আটক Logo সোনারগাঁয়ে ট্রাক চাপায় যুবক নিহত, চালক আটক Logo সোনারগাঁয়ের আলোচিত সাধন মিয়া হত্যা মামলায় দুইজনের মৃত্যুদন্ড ও একজনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড Logo বন্দর ১নং খেয়াঘাট মাঝি সমিতির নির্বাচন সম্পন্ন Logo আসন্ন উপজেলা নির্বাচনে মাকসুদ চেয়ারম্যান’র মত বিনিময় সভা ও উঠান বৈঠক Logo না’গঞ্জ জেলা জা’পা সভাপতি সানুর নাম ভাঙ্গিয়ে সুমন প্রধানের অপকর্ম রুখবে কে? Logo হুথিদের হামলায় লোহিত সাগরে ডুবে গেল সেই জাহাজ Logo রাতের লাইভের নেপথ্যের কারণ জানালেন তাহসান-ফারিণ Logo যেকোনো পরিস্থিতি মোকাবেলায় সশস্ত্র বাহিনীকে সক্ষম করে তোলা হচ্ছে : প্রধানমন্ত্রী

আরো মামলা হচ্ছে বলে শুনেছি : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় প্রথম আলোর সাংবাদিক শামসুজ্জামানকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন আদালত। এদিকে গত বুধবার মধ্যরাতে দৈনিকটির সম্পাদক মতিউর রহমানের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে একটি মামলা হয়েছে। এছাড়া শামসুজ্জামানের বিরুদ্ধে আরো মামলা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। এহেন পরিস্থিতিতে আতঙ্ক বিরাজ করছে প্রথম আলোর সংবাদকর্মীসহ সংশ্লিষ্টদের মধ্যে। নিরাপত্তাজনিত কারণে কর্তৃপক্ষের অনুরোধে প্রথম আলোর প্রধান কার্যালয়ে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

গত বুধবার ভোর চারটার দিকে সাভারে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের পাশের আমবাগান এলাকায় পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগের (সিআইডি) সদস্য পরিচয়ে শামসুজ্জামানের বাসায় তল্লাশি করে তার ব্যবহৃত একটি ল্যাপটপ, দুটি মুঠোফোন ও একটি পোর্টেবল হার্ডডিস্ক নিয়ে যান। পরে শামসুজ্জামানকে সঙ্গে নিয়ে যান তারা।

বাসা থেকে তুলে নেওয়ার ২০ ঘণ্টার বেশি সময় পর গত বুধবার রাতে শামসুজ্জামানের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে রাজধানীর তেজগাঁও ও রমনা থানায় দুটি মামলা হয়। প্রথম আলো সম্পাদক মতিউর রহমান এ মামলার প্রধান আসামি। গত বুধবার স্বাধীনতা দিবসে ‘মিথ্যা ও বানোয়াট’ তথ্য দিয়ে সংবাদ প্রকাশের অভিযোগ এনে তেজগাঁও থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে শামসুজ্জামানের বিরুদ্ধে আরেকটি মামলা দায়ের করেন সৈয়দ মো. গোলাম কিবরিয়া নামের এক ব্যক্তি। একটি মামলার বাদী আইনজীবী আবদুল মালেক (মশিউর মালেক)। তিনি নিজেকে হাইকোর্টের আইনজীবী পরিচয় দিয়েছেন। সেই মামলাতেই শামসুজ্জামানকে বাসা থেকে তুলে নেয়ার ৩০ ঘণ্টা পর গতকাল বৃহস্পতিবার ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির করা হয় শামসুজ্জামানকে। এ মামলায় তাকে কারাগারে আটক রাখার আবেদন করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ও রমনা মডেল থানার পরিদর্শক আবু আনছার। আসামির জামিন হলে তদন্তে বিঘœ হতে পারে বলে আবেদনে পুলিশ জানায়। অপরদিকে মামলায় জামিন চেয়ে শামসুজ্জামানের আইনজীবী প্রশান্ত কুমার কর্মকার আবেদন করেন। উভয়পক্ষের শুনানি শেষে ঢাকার অতিরিক্ত চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট তোফাজ্জল হোসেন শামসুজ্জামানের জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

এদিকে গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে সচিবালয়ে আইন মন্ত্রণালয়ে আইনমন্ত্রীর সঙ্গে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী দেখা করতে এলে বৈঠকের পর আইন মন্ত্রণালয়ের বারান্দায় সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, শামসুজ্জামানের বিরুদ্ধে আরো মামলা হচ্ছে বলে আমরা শুনেছি। তিনি বলেন, সিআইডি তাকে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে ছেড়ে দেয়। এরপর বেশ কয়েকটি মামলা বিভিন্ন স্থানে হয়েছে। সে মামলার ভিত্তিতে তাকে পুনরায় গ্রেফতার করা হয়েছে। আমরা এখন পর্যন্ত দুই তিনটির খবর জানি।

গতকাল যেভাবে একজন নাগরিককে বাসা থেকে তুলে নেওয়া হলো, ২০ ঘণ্টা পর্যন্ত কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীও গতকাল বলেছেন তার কাছে কোনো তথ্য নেই। এ বিষয়গুলো নাগরিকদের মনে ভয়ের উদ্বেগ করে কিনা জানতে চাইলে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আমি গতকাল স্পষ্ট করে বলেছি, একটা সংবাদের ভিত্তিতে দুই একটা মামলা হচ্ছে বলে আমি শুনেছি। কিন্তু মামলাগুলো কোথায় কখন হচ্ছে সেটার বিস্তারিত তথ্য আমার কাছে এখন পর্যন্ত নেই, এটাই আমি বলেছি। তিনি বলেন, আমি এখন বলতে চাই, প্রাথমিকভাবে যে তথ্য ৭১ টিভি ও প্রথম আলোসহ বিভিন্ন পত্রিকায় বা মিডিয়ায় এসেছে, সেগুলো জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সিআইডি তাকে নিয়েছিল। জিজ্ঞাসাবাদ শেষে তাকে ছেড়েও দিয়েছে। এরপর বিভিন্ন স্থানে বেশ কয়েকটি মামলা হয়েছে, সে মামলার ভিত্তিতে তাকে পুনরায় গ্রেফতার করা হয়েছে। আমরা এখন পর্যন্ত দুই তিনটির খবর জানি। আরো মামলা হচ্ছে বলে আমরা শুনেছি।

এদিকে দৈনিক প্রথম আলোর প্রধান কার্যালয়ে গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৮টা থেকে পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। পুলিশের ১৫ জন সদস্য কার্যালয়ের সামনে ডিউটিরত রয়েছেন। প্রথম আলোর সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, নিরাপত্তাজনিত কারণে অফিস কর্তৃপক্ষের অনুরোধে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। অফিসের ভেতরে স্বাভাবিক কার্যক্রম চলমান রয়েছে।

উল্লেখ্য, মহান স্বাধীনতা দিবসে প্রথম আলোর অনলাইন পোর্টালে এক প্রতিবেদন প্রকাশের জেরে দৈনিকটির সাভার প্রতিনিধি শামসুজ্জামানকে ডিজিটাল সিকিউরিটি অ্যাক্ট মামলায় গ্রেপ্তার করা হয়। এ ঘটনায় পৃথক দু’টি মামলা হয়। একটিতে প্রথম আলোর সম্পাদক মতিউর রহমানকে আসামি করা হয়েছে।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

কামাল হোসাইন

হ্যালো আমি কামাল হোসাইন, আমি গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করছি। ২০১৭ সাল থেকে এই পত্রিকার সাথে কাজ করছি। এভাবে এখানে আপনার প্রতিনিধিদের সম্পর্কে কিছু লিখতে পারবেন।
জনপ্রিয় সংবাদ

বন্দরে শ্লীলতাহানির ভিডিও ধারণ করে যুবতীকে ধর্ষণ, প্রধান আসামি গ্রেপ্তার

আরো মামলা হচ্ছে বলে শুনেছি : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

আপডেট সময় ০৩:৫৭:১৬ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ৩১ মার্চ ২০২৩

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় প্রথম আলোর সাংবাদিক শামসুজ্জামানকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন আদালত। এদিকে গত বুধবার মধ্যরাতে দৈনিকটির সম্পাদক মতিউর রহমানের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে একটি মামলা হয়েছে। এছাড়া শামসুজ্জামানের বিরুদ্ধে আরো মামলা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। এহেন পরিস্থিতিতে আতঙ্ক বিরাজ করছে প্রথম আলোর সংবাদকর্মীসহ সংশ্লিষ্টদের মধ্যে। নিরাপত্তাজনিত কারণে কর্তৃপক্ষের অনুরোধে প্রথম আলোর প্রধান কার্যালয়ে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

গত বুধবার ভোর চারটার দিকে সাভারে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের পাশের আমবাগান এলাকায় পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগের (সিআইডি) সদস্য পরিচয়ে শামসুজ্জামানের বাসায় তল্লাশি করে তার ব্যবহৃত একটি ল্যাপটপ, দুটি মুঠোফোন ও একটি পোর্টেবল হার্ডডিস্ক নিয়ে যান। পরে শামসুজ্জামানকে সঙ্গে নিয়ে যান তারা।

বাসা থেকে তুলে নেওয়ার ২০ ঘণ্টার বেশি সময় পর গত বুধবার রাতে শামসুজ্জামানের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে রাজধানীর তেজগাঁও ও রমনা থানায় দুটি মামলা হয়। প্রথম আলো সম্পাদক মতিউর রহমান এ মামলার প্রধান আসামি। গত বুধবার স্বাধীনতা দিবসে ‘মিথ্যা ও বানোয়াট’ তথ্য দিয়ে সংবাদ প্রকাশের অভিযোগ এনে তেজগাঁও থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে শামসুজ্জামানের বিরুদ্ধে আরেকটি মামলা দায়ের করেন সৈয়দ মো. গোলাম কিবরিয়া নামের এক ব্যক্তি। একটি মামলার বাদী আইনজীবী আবদুল মালেক (মশিউর মালেক)। তিনি নিজেকে হাইকোর্টের আইনজীবী পরিচয় দিয়েছেন। সেই মামলাতেই শামসুজ্জামানকে বাসা থেকে তুলে নেয়ার ৩০ ঘণ্টা পর গতকাল বৃহস্পতিবার ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির করা হয় শামসুজ্জামানকে। এ মামলায় তাকে কারাগারে আটক রাখার আবেদন করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ও রমনা মডেল থানার পরিদর্শক আবু আনছার। আসামির জামিন হলে তদন্তে বিঘœ হতে পারে বলে আবেদনে পুলিশ জানায়। অপরদিকে মামলায় জামিন চেয়ে শামসুজ্জামানের আইনজীবী প্রশান্ত কুমার কর্মকার আবেদন করেন। উভয়পক্ষের শুনানি শেষে ঢাকার অতিরিক্ত চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট তোফাজ্জল হোসেন শামসুজ্জামানের জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

এদিকে গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে সচিবালয়ে আইন মন্ত্রণালয়ে আইনমন্ত্রীর সঙ্গে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী দেখা করতে এলে বৈঠকের পর আইন মন্ত্রণালয়ের বারান্দায় সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, শামসুজ্জামানের বিরুদ্ধে আরো মামলা হচ্ছে বলে আমরা শুনেছি। তিনি বলেন, সিআইডি তাকে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে ছেড়ে দেয়। এরপর বেশ কয়েকটি মামলা বিভিন্ন স্থানে হয়েছে। সে মামলার ভিত্তিতে তাকে পুনরায় গ্রেফতার করা হয়েছে। আমরা এখন পর্যন্ত দুই তিনটির খবর জানি।

গতকাল যেভাবে একজন নাগরিককে বাসা থেকে তুলে নেওয়া হলো, ২০ ঘণ্টা পর্যন্ত কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীও গতকাল বলেছেন তার কাছে কোনো তথ্য নেই। এ বিষয়গুলো নাগরিকদের মনে ভয়ের উদ্বেগ করে কিনা জানতে চাইলে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আমি গতকাল স্পষ্ট করে বলেছি, একটা সংবাদের ভিত্তিতে দুই একটা মামলা হচ্ছে বলে আমি শুনেছি। কিন্তু মামলাগুলো কোথায় কখন হচ্ছে সেটার বিস্তারিত তথ্য আমার কাছে এখন পর্যন্ত নেই, এটাই আমি বলেছি। তিনি বলেন, আমি এখন বলতে চাই, প্রাথমিকভাবে যে তথ্য ৭১ টিভি ও প্রথম আলোসহ বিভিন্ন পত্রিকায় বা মিডিয়ায় এসেছে, সেগুলো জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সিআইডি তাকে নিয়েছিল। জিজ্ঞাসাবাদ শেষে তাকে ছেড়েও দিয়েছে। এরপর বিভিন্ন স্থানে বেশ কয়েকটি মামলা হয়েছে, সে মামলার ভিত্তিতে তাকে পুনরায় গ্রেফতার করা হয়েছে। আমরা এখন পর্যন্ত দুই তিনটির খবর জানি। আরো মামলা হচ্ছে বলে আমরা শুনেছি।

এদিকে দৈনিক প্রথম আলোর প্রধান কার্যালয়ে গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৮টা থেকে পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। পুলিশের ১৫ জন সদস্য কার্যালয়ের সামনে ডিউটিরত রয়েছেন। প্রথম আলোর সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, নিরাপত্তাজনিত কারণে অফিস কর্তৃপক্ষের অনুরোধে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। অফিসের ভেতরে স্বাভাবিক কার্যক্রম চলমান রয়েছে।

উল্লেখ্য, মহান স্বাধীনতা দিবসে প্রথম আলোর অনলাইন পোর্টালে এক প্রতিবেদন প্রকাশের জেরে দৈনিকটির সাভার প্রতিনিধি শামসুজ্জামানকে ডিজিটাল সিকিউরিটি অ্যাক্ট মামলায় গ্রেপ্তার করা হয়। এ ঘটনায় পৃথক দু’টি মামলা হয়। একটিতে প্রথম আলোর সম্পাদক মতিউর রহমানকে আসামি করা হয়েছে।