ঢাকা , শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

নির্বাচনে বাংলাদেশে জনগণের মতামতের প্রতিফলন দেখতে চায় যুক্তরাষ্ট্র

জাতীয় নির্বাচন বাংলাদেশের ‘অভ্যন্তরীণ’ বিষয়; তবে বাংলাদেশে জনগণের মতামতের প্রতিফলন ঘটবে এমন অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন চায় যুক্তরাষ্ট্র।

গত সোমবার মার্কিন পররাষ্ট্র দফতরের এক ব্রিফিংয়ে যুক্তরাষ্ট্রের এমন অবস্থানের কথা তুলে ধরেন পররাষ্ট্র দফতরের উপ-প্রধান মুখপাত্র বেদান্ত প্যাটেল তিনি বলেন, বাংলাদেশে একটি অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন চায় যুক্তরাষ্ট্র, যেখানে বাংলাদেশি জনগণের মতামতের প্রতিফলন ঘটবে । তবে যেহেতু এটি একটি আভ্যন্তরীণ ও ঘরোয়া নির্বাচন তাই এ নিয়ে আমার আর বেশি কিছু বলার নেই।

নির্বাচন প্রসঙ্গে বেদান্ত প্যাটেলকে এক সাংবাদিক বলেন, যুক্তরাষ্ট্র বাংলাদেশের গণতন্ত্রের গুরুত্বপূর্ণ সহযোগী। বাংলাদেশ দ্রুতই একটি জাতীয় নির্বাচনের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। অথচ সেখানে একটি দল নির্বাচনে অংশ নিতে চাইছে না। পরবর্তীতে তারা আবার দাবি করতে পারে যে, নির্বাচন সুষ্ঠু ও অবাধ হয়নি। যুক্তরাষ্ট্র এ পরিস্থিতিকে কীভাবে দেখছে? এর জবাবে বেদান্ত প্যাটেল বলেন, বাংলাদেশে একটি অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন চায় যুক্তরাষ্ট্র। এমন একটি নির্বাচন হতে হবে যেখানে বাংলাদেশের মানুষের ইচ্ছার প্রতিফলন ঘটে। তবে একটি আভ্যন্তরীণ ও ঘরোয়া নির্বাচন নিয়ে আমার আর কিছু বলার নেই। আমি যে বিষয়ে বিস্তারিত বলতে চাই তা হলো, যুক্তরাষ্ট্র ও বাংলাদেশ গত বছর কূটনৈতিক সম্পর্কের ৫০ বছর উদ্যাপন করেছে। সেই সম্পর্ক সামনে এগিয়ে নেয়ার ব্যাপারে ওয়াশিংটন আরও মনযোগী।

প্যাটেল বলেন, ঢাকা ও ওয়াশিংটনের বেশ কয়েকটি ক্ষেত্র রয়েছে যেখানে তাদের ব্যাপক সহযোগিতা ও সম্পৃক্ততার সম্ভাবনা রয়েছে – তা জলবায়ু পরিবর্তন হোক, অর্থনীতি হোক, মানবিক সংকট মোকাবিলা এবং অন্যান্য বিষয়ও হোক।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

কামাল হোসাইন

হ্যালো আমি কামাল হোসাইন, আমি গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করছি। ২০১৭ সাল থেকে এই পত্রিকার সাথে কাজ করছি। এভাবে এখানে আপনার প্রতিনিধিদের সম্পর্কে কিছু লিখতে পারবেন।
জনপ্রিয় সংবাদ

নির্বাচনে বাংলাদেশে জনগণের মতামতের প্রতিফলন দেখতে চায় যুক্তরাষ্ট্র

আপডেট সময় ০৪:৪৩:৩৬ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ৩ মে ২০২৩

জাতীয় নির্বাচন বাংলাদেশের ‘অভ্যন্তরীণ’ বিষয়; তবে বাংলাদেশে জনগণের মতামতের প্রতিফলন ঘটবে এমন অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন চায় যুক্তরাষ্ট্র।

গত সোমবার মার্কিন পররাষ্ট্র দফতরের এক ব্রিফিংয়ে যুক্তরাষ্ট্রের এমন অবস্থানের কথা তুলে ধরেন পররাষ্ট্র দফতরের উপ-প্রধান মুখপাত্র বেদান্ত প্যাটেল তিনি বলেন, বাংলাদেশে একটি অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন চায় যুক্তরাষ্ট্র, যেখানে বাংলাদেশি জনগণের মতামতের প্রতিফলন ঘটবে । তবে যেহেতু এটি একটি আভ্যন্তরীণ ও ঘরোয়া নির্বাচন তাই এ নিয়ে আমার আর বেশি কিছু বলার নেই।

নির্বাচন প্রসঙ্গে বেদান্ত প্যাটেলকে এক সাংবাদিক বলেন, যুক্তরাষ্ট্র বাংলাদেশের গণতন্ত্রের গুরুত্বপূর্ণ সহযোগী। বাংলাদেশ দ্রুতই একটি জাতীয় নির্বাচনের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। অথচ সেখানে একটি দল নির্বাচনে অংশ নিতে চাইছে না। পরবর্তীতে তারা আবার দাবি করতে পারে যে, নির্বাচন সুষ্ঠু ও অবাধ হয়নি। যুক্তরাষ্ট্র এ পরিস্থিতিকে কীভাবে দেখছে? এর জবাবে বেদান্ত প্যাটেল বলেন, বাংলাদেশে একটি অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন চায় যুক্তরাষ্ট্র। এমন একটি নির্বাচন হতে হবে যেখানে বাংলাদেশের মানুষের ইচ্ছার প্রতিফলন ঘটে। তবে একটি আভ্যন্তরীণ ও ঘরোয়া নির্বাচন নিয়ে আমার আর কিছু বলার নেই। আমি যে বিষয়ে বিস্তারিত বলতে চাই তা হলো, যুক্তরাষ্ট্র ও বাংলাদেশ গত বছর কূটনৈতিক সম্পর্কের ৫০ বছর উদ্যাপন করেছে। সেই সম্পর্ক সামনে এগিয়ে নেয়ার ব্যাপারে ওয়াশিংটন আরও মনযোগী।

প্যাটেল বলেন, ঢাকা ও ওয়াশিংটনের বেশ কয়েকটি ক্ষেত্র রয়েছে যেখানে তাদের ব্যাপক সহযোগিতা ও সম্পৃক্ততার সম্ভাবনা রয়েছে – তা জলবায়ু পরিবর্তন হোক, অর্থনীতি হোক, মানবিক সংকট মোকাবিলা এবং অন্যান্য বিষয়ও হোক।