ঢাকা , মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ৩ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ত্বকী হত্যায় রাষ্ট্রের ছত্রছায়ায় বেড়ে ওঠা প্রভাবশালীরা জড়িত: আইভী

নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী বলেছেন, ‘ত্বকী হত্যার বিচার কেন হচ্ছে না, তা সারাদেশের মানুষ বুঝতে পারে। এখানে এমন প্রভাবশালী লোকজন জড়িত, রাষ্ট্রের ছত্রছায়ায় যাদের বেড়ে ওঠা। তারা রাষ্ট্রকেই মানতে চায় না।’

শনিবার (১১ মার্চ) বিকেলে অষ্টম জাতীয় ত্বকী চিত্রাঙ্কন ও রচনা প্রতিযোগিতা-২২-এর পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

তানভীর মুহাম্মদ ত্বকীর ২৭তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে রাজধানীর জাতীয় জাদুঘরে কবি সুফিয়া কামাল মিলনায়তনে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে সন্ত্রাস নির্মূল ত্বকী মঞ্চ।

মঞ্চের আহ্বায়ক ত্বকীর বাবা রফিউর রাব্বির সভাপতিত্বে বক্তব্য দেন শিক্ষাবিদ অধ্যাপক সৈয়দ আনোয়ার হোসেন, নাট্যব্যক্তিত্ব রামেন্দু মজুমদার, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক শওকত আরা হোসেন প্রমুখ।

এসময় রফিউর রাব্বি বলেন, রাষ্ট্র কতটা নিষ্ঠুর ও বর্বর হতে পারে তার উদাহরণ এই ত্বকী হত্যা। তৈরি করে রাখা অভিযোগপত্র আদালতে জমা দেওয়ার জন্য ত্বকী হত্যা মামলার তারিখ ঘুরেছে ৬২ বার।

অনুষ্ঠানে সারাদেশের বিজয়ী ৬০ জনকে পুরস্কার দেওয়া হয়। ছয়টি বিভাগে শ্রেষ্ঠ ৬ জনকে ‘ত্বকী পদক’ দেওয়া হয়। সেরা ১০ জনের লেখা ও আঁকা নিয়ে প্রকাশিত হয় স্মারক ‘ত্বকী’।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

কামাল হোসাইন

হ্যালো আমি কামাল হোসাইন, আমি গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করছি। ২০১৭ সাল থেকে এই পত্রিকার সাথে কাজ করছি। এভাবে এখানে আপনার প্রতিনিধিদের সম্পর্কে কিছু লিখতে পারবেন।

ত্বকী হত্যায় রাষ্ট্রের ছত্রছায়ায় বেড়ে ওঠা প্রভাবশালীরা জড়িত: আইভী

আপডেট সময় ০৪:১৯:৩৯ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৩ মার্চ ২০২৩

নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী বলেছেন, ‘ত্বকী হত্যার বিচার কেন হচ্ছে না, তা সারাদেশের মানুষ বুঝতে পারে। এখানে এমন প্রভাবশালী লোকজন জড়িত, রাষ্ট্রের ছত্রছায়ায় যাদের বেড়ে ওঠা। তারা রাষ্ট্রকেই মানতে চায় না।’

শনিবার (১১ মার্চ) বিকেলে অষ্টম জাতীয় ত্বকী চিত্রাঙ্কন ও রচনা প্রতিযোগিতা-২২-এর পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

তানভীর মুহাম্মদ ত্বকীর ২৭তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে রাজধানীর জাতীয় জাদুঘরে কবি সুফিয়া কামাল মিলনায়তনে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে সন্ত্রাস নির্মূল ত্বকী মঞ্চ।

মঞ্চের আহ্বায়ক ত্বকীর বাবা রফিউর রাব্বির সভাপতিত্বে বক্তব্য দেন শিক্ষাবিদ অধ্যাপক সৈয়দ আনোয়ার হোসেন, নাট্যব্যক্তিত্ব রামেন্দু মজুমদার, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক শওকত আরা হোসেন প্রমুখ।

এসময় রফিউর রাব্বি বলেন, রাষ্ট্র কতটা নিষ্ঠুর ও বর্বর হতে পারে তার উদাহরণ এই ত্বকী হত্যা। তৈরি করে রাখা অভিযোগপত্র আদালতে জমা দেওয়ার জন্য ত্বকী হত্যা মামলার তারিখ ঘুরেছে ৬২ বার।

অনুষ্ঠানে সারাদেশের বিজয়ী ৬০ জনকে পুরস্কার দেওয়া হয়। ছয়টি বিভাগে শ্রেষ্ঠ ৬ জনকে ‘ত্বকী পদক’ দেওয়া হয়। সেরা ১০ জনের লেখা ও আঁকা নিয়ে প্রকাশিত হয় স্মারক ‘ত্বকী’।