ঢাকা , সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪, ৩ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ইউক্রেনকে হয় দাবি মানতে হবে, নইলে পরাজয়: রাশিয়া

রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছেন, কিয়েভকে যুদ্ধের অবসানের জন্য মস্কোর দাবি মেনে নিতে হবে অথবা যুদ্ধক্ষেত্রে পরাজয় বরণ করতে হবে। সোমবার রাতে তিনি এ কথা বলেছেন।

রুশ মন্ত্রীর এই ঘোষণার পর মঙ্গলবার মস্কোর বাহিনী পূর্ব ও দক্ষিণ ইউক্রেনের শহরগুলোতে গোলা এবং বোমাবর্ষণ করেছে।

রাশিয়ার দাবিগুলির মধ্যে রয়েছে ইউক্রেন তার ভূখণ্ডের এক পঞ্চমাংশ রাশিয়ার বিজয়কে স্বীকৃতি দিবে।

রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই ল্যাভরভকে উদ্ধৃত করে বার্তা সংস্থা তাস জানিয়েছে, ‘রুশ নিয়ন্ত্রিত অঞ্চলগুলোর নিরস্ত্রীকরণ ও নাৎসীবাদ মুক্ত করার জন্য আমাদের প্রস্তাব হচ্ছে, শত্রুদের কাছে সুপরিচিত আমাদের নতুন ভূমিসহ সেখান থেকে উদ্ভূত রাশিয়ার নিরাপত্তার হুমকি দূর করা। বিষয়টি সহজ: আপনাদের ভালোর জন্য সেগুলো পূরণ করুন। অন্যথায়, বিষয়টি রাশিয়ার সেনাবাহিনী সিদ্ধান্ত নেবে।’

এদিকে, সোমবার রাতে ইউক্রেনের বাখমুতে তীব্র হামলা চালিয়েছে। এই শহরটি রাশিয়ার দখলের মানে হচ্ছে, ক্রামত্রস্ক ও স্লোভিয়ানস্ক দখলের দিকে অগ্রসর হওয়া। এর পাশাপাশি খারসন অঞ্চলেও হামলা চালানো শুরু করেছে।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

কামাল হোসাইন

হ্যালো আমি কামাল হোসাইন, আমি গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করছি। ২০১৭ সাল থেকে এই পত্রিকার সাথে কাজ করছি। এভাবে এখানে আপনার প্রতিনিধিদের সম্পর্কে কিছু লিখতে পারবেন।

ইউক্রেনকে হয় দাবি মানতে হবে, নইলে পরাজয়: রাশিয়া

আপডেট সময় ০৩:৪৯:০৬ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২৮ ডিসেম্বর ২০২২

রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছেন, কিয়েভকে যুদ্ধের অবসানের জন্য মস্কোর দাবি মেনে নিতে হবে অথবা যুদ্ধক্ষেত্রে পরাজয় বরণ করতে হবে। সোমবার রাতে তিনি এ কথা বলেছেন।

রুশ মন্ত্রীর এই ঘোষণার পর মঙ্গলবার মস্কোর বাহিনী পূর্ব ও দক্ষিণ ইউক্রেনের শহরগুলোতে গোলা এবং বোমাবর্ষণ করেছে।

রাশিয়ার দাবিগুলির মধ্যে রয়েছে ইউক্রেন তার ভূখণ্ডের এক পঞ্চমাংশ রাশিয়ার বিজয়কে স্বীকৃতি দিবে।

রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই ল্যাভরভকে উদ্ধৃত করে বার্তা সংস্থা তাস জানিয়েছে, ‘রুশ নিয়ন্ত্রিত অঞ্চলগুলোর নিরস্ত্রীকরণ ও নাৎসীবাদ মুক্ত করার জন্য আমাদের প্রস্তাব হচ্ছে, শত্রুদের কাছে সুপরিচিত আমাদের নতুন ভূমিসহ সেখান থেকে উদ্ভূত রাশিয়ার নিরাপত্তার হুমকি দূর করা। বিষয়টি সহজ: আপনাদের ভালোর জন্য সেগুলো পূরণ করুন। অন্যথায়, বিষয়টি রাশিয়ার সেনাবাহিনী সিদ্ধান্ত নেবে।’

এদিকে, সোমবার রাতে ইউক্রেনের বাখমুতে তীব্র হামলা চালিয়েছে। এই শহরটি রাশিয়ার দখলের মানে হচ্ছে, ক্রামত্রস্ক ও স্লোভিয়ানস্ক দখলের দিকে অগ্রসর হওয়া। এর পাশাপাশি খারসন অঞ্চলেও হামলা চালানো শুরু করেছে।